৭৯৩

পরিচ্ছেদঃ ১৫: ইমাম অনুপস্থিত থাকলে ভারপ্রাপ্ত নিযুক্ত করা

৭৯৩. আহমাদ ইবনু ’আবদাহ (রহ.) ..... সাহল ইবনু সা’দ (রাঃ) হতে বর্ণিত। বানু আমর ইবনু ’আওফ-এর মধ্যে ঝগড়া হচ্ছিল। এ খবর রাসূলুল্লাহ (সা.) -এর কাছে পৌছলো তিনি যুহরের সালাত আদায় করে তাদের মধ্যে আপোস করে দেবার জন্যে তাদের কাছে গেলেন। তারপর তিনি বিলাল (রাঃ) বলেন, বিলাল! যখন ’আসরের সালাতের সময় হয় আর আমি আসতে না পারি তখন আবূ বকর (রাঃ)-কে বলবে, সে যেন লোকেদের নিয়ে সালাত আদায় করে। যখন সালাতের সময় হলো তখন বিলাল (রাঃ) আযান দিলেন। তারপর ইক্বামাত বললেন এবং আবূ বকর (রাঃ)-কে বললেন, সামনে যান, তখন আবূ বকর (রাঃ) সামনে গিয়ে সালাত শুরু করলেন। তারপর রসুলল্লাহ (সা.) আসলেন এবং লোকেদের কাতারের মধ্যে দিয়ে এসে আবূ বকর (রাঃ)-এর পেছনে দাঁড়ালেন। লোকেরা হাততালি দিয়ে ইশারা করলেন। আর আবূ বকর (রাঃ) সালাতে দাঁড়ালে কোন দিকে লক্ষ্য করতেন না। যখন তিনি দেখলেন তাদের হাততালি বন্ধ হচ্ছে না তখন তিনি লক্ষ্য করলেন, রাসূলুল্লাহ (সা.) -এর সালাত চালিয়ে যাওয়া ইশারার জন্যে তিনি আল্লাহর শোকর আদায় করলেন। তারপর আবূ বকর (রাঃ) পেছনে সরে আসলেন। রসুলুল্লাহ (সা.) তা দেখে সামনে অগ্রসর হলেন এবং লোকেদের নিয়ে সালাত আদায় করলেন। যখন সালাত শেষ করলেন তখন তিনি বললেন, হে আবূ বকর! আমি যখন তোমাকে ইঙ্গিত করলাম তখন তুমি পিছে সরে আসা থেকে কেন ক্ষান্ত থাকলে না! তিনি বললেন, আবু কুহাফার পুত্রের জন্যে রাসূলুল্লাহ (সা.) -এর ইমামতি করা শোভা পায় না। রাসূলুল্লাহ (সা.) লোকেদের বললেন, যখন তোমাদের কোন সমস্যা দেখা দেয় তখন পুরুষরা ’সুবহা-নাল্ল-হ’ বলবে আর নারীরা ’হাত তালি দিবে।

استخلاف الإمام إذا غاب

أَخْبَرَنَا أَحْمَدُ بْنُ عَبْدَةَ، ‏‏‏‏‏‏عَنْ حَمَّادِ بْنِ زَيْدٍ، ‏‏‏‏‏‏ثُمَّ ذَكَرَ كَلِمَةً مَعْنَاهَا قال:‏‏‏‏ حَدَّثَنَا أَبُو حَازِمٍ، ‏‏‏‏‏‏قال سَهْلُ بْنُ سَعْدٍ كَانَ قِتَالٌ بَيْنَ بَنِي عَمْرِو بْنِ عَوْفٍ فَبَلَغَ ذَلِكَ النَّبِيَّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ فَصَلَّى الظُّهْرَ ثُمَّ أَتَاهُمْ لِيُصْلِحَ بَيْنَهُمْ ثُمَّ قَالَ لِبِلَالٍ:‏‏‏‏ يَا بِلَالُ، ‏‏‏‏‏‏إِذَا حَضَرَ الْعَصْرُ وَلَمْ آتِ فَمُرْ أَبَا بَكْرٍ فَلْيُصَلِّ بِالنَّاسِ فَلَمَّا حَضَرَتْ أَذَّنَ بِلَالٌ، ‏‏‏‏‏‏ثُمَّ أَقَامَ فَقَالَ لِأَبِي بَكْرٍ رَضِيَ اللَّهُ عَنْهُ تَقَدَّمْ فَتَقَدَّمَ أَبُو بَكْرٍ فَدَخَلَ فِي الصَّلَاةِ، ‏‏‏‏‏‏ثُمَّ جَاءَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ:‏‏‏‏ فَجَعَلَ يَشُقُّ النَّاسَ حَتَّى قَامَ خَلْفَ أَبِي بَكْرٍ وَصَفَّحَ الْقَوْمُ وَكَانَ أَبُو بَكْرٍ إِذَا دَخَلَ فِي الصَّلَاةِ لَمْ يَلْتَفِتْ فَلَمَّا رَأَى أَبُو بَكْرٍ التَّصْفِيحَ لَا يُمْسَكُ عَنْهُ الْتَفَتَ فَأَوْمَأَ إِلَيْهِ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ بِيَدِهِ فَحَمِدَ اللَّهَ عَزَّ وَجَلَّ عَلَى قَوْلِ رَسُولِ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ لَهُ امْضِهْ، ‏‏‏‏‏‏ثُمَّ مَشَى أَبُو بَكْرٍ الْقَهْقَرَى عَلَى عَقِبَيْهِ فَتَأَخَّرَ فَلَمَّا رَأَى ذَلِكَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ تَقَدَّمَ فَصَلَّى بِالنَّاسِ فَلَمَّا قَضَى صَلَاتَهُ قَالَ:‏‏‏‏ يَا أَبَا بَكْرٍ مَا مَنَعَكَ إِذْ أَوْمَأْتُ إِلَيْكَ أَنْ لَا تَكُونَ مَضَيْتَ ، ‏‏‏‏‏‏فَقَالَ:‏‏‏‏ لَمْ يَكُنْ لِابْنِ أَبِي قُحَافَةَ أَنْ يَؤُمَّ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ وَقَالَ لِلنَّاسِ:‏‏‏‏ إِذَا نَابَكُمْ شَيْءٌ فَلْيُسَبِّحِ الرِّجَالُ النِّسَاءُ .

تخریج دارالدعوہ: صحیح البخاری/الأحکام ۳۶ (۷۱۹۰)، سنن ابی داود/الصلاة ۱۷۳ (۹۴۱)، مسند احمد ۵/۳۳۲، سنن الدارمی/الصلاة ۹۵ (۱۴۰۴)، تحفة الأشراف: ۴۶۶۹) (صحیح)

صحيح وضعيف سنن النسائي الألباني: حديث نمبر 794 - صحيح

أخبرنا أحمد بن عبدة، ‏‏‏‏‏‏عن حماد بن زيد، ‏‏‏‏‏‏ثم ذكر كلمة معناها قال:‏‏‏‏ حدثنا أبو حازم، ‏‏‏‏‏‏قال سهل بن سعد كان قتال بين بني عمرو بن عوف فبلغ ذلك النبي صلى الله عليه وسلم فصلى الظهر ثم أتاهم ليصلح بينهم ثم قال لبلال:‏‏‏‏ يا بلال، ‏‏‏‏‏‏إذا حضر العصر ولم آت فمر أبا بكر فليصل بالناس فلما حضرت أذن بلال، ‏‏‏‏‏‏ثم أقام فقال لأبي بكر رضي الله عنه تقدم فتقدم أبو بكر فدخل في الصلاة، ‏‏‏‏‏‏ثم جاء رسول الله صلى الله عليه وسلم:‏‏‏‏ فجعل يشق الناس حتى قام خلف أبي بكر وصفح القوم وكان أبو بكر إذا دخل في الصلاة لم يلتفت فلما رأى أبو بكر التصفيح لا يمسك عنه التفت فأومأ إليه رسول الله صلى الله عليه وسلم بيده فحمد الله عز وجل على قول رسول الله صلى الله عليه وسلم له امضه، ‏‏‏‏‏‏ثم مشى أبو بكر القهقرى على عقبيه فتأخر فلما رأى ذلك رسول الله صلى الله عليه وسلم تقدم فصلى بالناس فلما قضى صلاته قال:‏‏‏‏ يا أبا بكر ما منعك إذ أومأت إليك أن لا تكون مضيت ، ‏‏‏‏‏‏فقال:‏‏‏‏ لم يكن لابن أبي قحافة أن يؤم رسول الله صلى الله عليه وسلم وقال للناس:‏‏‏‏ إذا نابكم شيء فليسبح الرجال النساء .

15. The Imam Appointing Someone Else To Lead The Prayers In His Absence


Sahl bin Sa'd said: There was some fighting among Banu 'Amr bin 'Awf, and news of that reached the Prophet (ﷺ). He prayed Zuhr, then he went to them to reconcile between them. Then he said to Bilal: 'O Bilal, if the time for Asr comes and I have not come back, then tell Abu Bakr to lead the people in prayer.' When the time (for Asr) came, Bilal called the Adhan, then the Iqamah, then he said to Abu Bakr: 'Go forward. So Abu Bakr went forward and started to pray. Then the Messenger of Allah (ﷺ) came and started passing through the rows of people until he stood behind Abu Bakr, and the people clapped. Abu Bakr was such that whenever he started praying, he would never glance sideways, but when he noticed that the clapping persisted he turned around. The Messenger of Allah (ﷺ) gestured to him to carry on praying. Abu Bakr praised Allah the Mighty and Sublime for the Messenger of Allah (ﷺ) having told him to continue. Then Abu Bakr moved backward on his heels, and when the Messenger of Allah (ﷺ) saw that, he came forward and led the people in prayer. When he completed the prayer he said: 'O Abu Bakr, when I gestured to you, what kept you from continuing (to lead the people)?' He said: 'It does not befit the son of Abu Quhafah to lead the Messenger of Allah (ﷺ) in prayer.' And he (the Prophet) said to the people: 'If you notice something (during the prayer), men should say Subhan Allah and women should clap.'


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
বর্ণনাকারীঃ সাহল বিন সা'দ (রাঃ)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সুনান আন-নাসায়ী (তাহকীককৃত)
পর্ব-১০: ইমামাত প্রসঙ্গ (كِتَابُ الْإمَامَةِ)