Hadithbd Logo

 বুধবার (রাত ১:৪২)
৪ঠা জমাদিউস-সানি, ১৪৩৯ হিজরী
৯ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ (বসন্তকাল)
২১শে ফেব্রুয়ারি , ২০১৮ ইং
সালাত, সাহরী ও ইফতারের সময়সূচী

সতর্কতাঃ যেহেতু সময়টি অটোম্যাটিক ভিত্তিতে হিসাব হয়ে থাকে তাই সাহরী ও ইফতারের ক্ষেত্রে কোন কোন দিন ১-২ মিনিট + - হতে পারে

  • ৭১৯৭৮ টি সর্বমোট হাদিস আছেঃ
  • ৮২৭৬ টি প্রশ্নোত্তর ও ফিকাহঃ

 

 

 

 


আলহামদুলিল্লাহ্, অবশেষে শুরু হচ্ছে আইওএস অর্থাৎ আইফোনের জন্য বাংলা হাদিসের নতুন ভার্শনের কাজ যা মূলত আমাদের বর্তমান এন্ড্রয়েড এপের মত আধুনিক সুযোগ সুবিধা সম্বলিত থাকবে এবং আমরা আশা করছি আগামী দুই মাসে কাজটি শেষ হবে ইন-শা-আল্লাহ।

বাংলা হাদিসের এন্ড্রয়েড এপ ভার্শন ৫.১ এবং পুরাতন ভার্শন ৪.২.১ এর ডাউনলোড লিঙ্ক

এন্ড্রয়েড এপ ডাউনলোড লিঙ্ক

ফুল অফলাইন ভার্শন

ডাউনলোড করুন ৫.১

গুগল প্লে অনলাইন ভার্শন

ডাউনলোড করুন ৫.১

পুরাতন ভার্শন

  ডাউনলোড করুন (৪.২.১)

ডাটা কপি পেস্ট বিষয়ে একটি গুরুত্বপূর্ণ বিজ্ঞপ্তি

কপিরাইট সম্পর্কে জরুরী দৃষ্টি আকর্ষণ

বাংলা হাদিসের সমস্ত কন্টেন্ট যারা দাওয়াতি কাজ করে থাকেন বা সর্ব সাধারন তাদের সকলের জন্য কপি পেস্ট (সোর্স সহ বা ছাড়া, [যদিও আমরা আশা করি যে আপনারা আমাদের সোর্স উল্লেখ করবেন কেননা তাতে অন্যরাও জানতে পারবে এবং দাওয়াতি কাজে উৎসাহী হবে]) উন্মুক্ত এবং এতে কোন ধরনের বাঁধা নেই।

কিন্তু কোন ব্যাক্তি, প্রতিষ্ঠান বা গ্রুপ আমাদের কন্টেন্ট নিয়ে আলাদাভাবে পুরোপুরি বা আংশিক ব্যাবহার করে বা অংশিক পরিবর্তন করে নিজ নামে ব্লগ, ওয়েবসাইট, মোবাইল এপ বা বই ইত্যাদি তৈরি করতে চায়, সে ক্ষেত্রে আমাদের সাথে আলোচনা করে অনুমতি নেয়া আবশ্যক, নতুবা অনুমতি বিহীন ভাবে সেগুলি করা হলে সেগুলির বিষয়ে আমাদের আপত্তি থাকবে।

আমরা ইতিমধ্যে লক্ষ্য করেছি অনেকেই আমাদের কন্টেন্ট ব্যবহার করে হুবুহু বা অংশিক পরিবর্তন করে বিভিন্ন মোবাইল এপ/ওয়েব তৈরি করেছেন এবং সেগুলির অধিকাংশে বিভিন্ন ধরনের হারাম এডও সংযুক্ত করা হয়েছে অর্থ আয়ের জন্য। আমরা আহবান জানাই সকলকে এই ধরনের মোবাইল এপ বা ওয়েব সাইট ব্যাবহার না করার জন্য।

প্রতিদিনের হাদিস/মাস'আলা

Hadith Email


নিজের ইমেইল ব্যাতিত বা অনুমতি বিহীন ভাবে অন্য কারো ইমেইল ঠিকানা অনুগ্রহ করে যুক্ত করবেন না।


এই মুহূর্তের হাদিস - hadithbd.com

পাবলিশারঃ তাওহীদ পাবলিকেশন/ গ্রন্থঃ যঈফ ও জাল হাদিস / অধায়ঃ ১/ বিবিধ

১৫৬৬। তিনি দু'আ করা শুরু করতেন "সুবহানা রাব্বিইয়াল আ'লাল অহহাব" দ্বারা।

হাদীসটি দুর্বল।

হাদীসটিকে হাকিম (১/৪৯৮), ইবনু আবী শাইবাহ "আলমুসান্নাফ" গ্রন্থে (১২/১৭/১) ও আহমাদ (৩/৫৪) উমার ইবনু রাশেদ ইয়ামানী সূত্রে ইয়াস ইবনু সালামাহ ইবনুল আকঅ' আসলামী হতে, তিনি তার পিতা হতে বর্ণনা করেছেন। তিনি বলেনঃ আমি রসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-কে সর্বদায় দুআ শুরু করতে শুনেছি ....।

তাদের সবার নিকট হাদীসটি এরূপই এসেছে। আর আমি এখানে হাদীসটিকে উল্লেখিত ভাষায় এনেছি সুয়ূতীর "আলজামে" গ্রন্থের অনুসরণ করে।

হাকিম বলেনঃ সনদটি সহীহ। হাফিয যাহাবীও তার অনুসরণ করেছেন।

আমি (আলবানী) বলছিঃ যাহাবীর এ সিদ্ধান্ত তার নিম্নোক্ত কথার দ্বারা প্রত্যাখ্যাতঃ তিনি "আযযুয়াফা অলমাতরূকীন" গ্রন্থে বর্ণনাকারী এ উমার সম্পর্কে বলেছেনঃ “তারা তাকে দুর্বল আখ্যা দিয়েছেন”।

তিনি “আলমীযান” গ্রন্থেও অনুরূপ কথা বলেছেন এবং তার কতিপয় মুনকার হাদীস উল্লেখ করেছেন এটি সেগুলোর একটি।

আর হাফিয ইবনু হাজার “আত-তাকরীব” গ্রন্থে বলেনঃ তিনি দুর্বল।

আর হাইসামী "আলমাজমা" গ্রন্থে (১০/১৫৬) বলেনঃ এটিকে আহমাদ ও ত্ববারানী বর্ণনা করেছেন। যার মধ্যে উমার ইবনু রাশেদ ইয়ামানী রয়েছেন, তাকে একধিক ব্যক্তি নির্ভরযোগ্য আখ্যা দিয়েছেন। এছাড়া অন্যান্য বর্ণনাকারীগণ সহীহ বর্ণনাকারী।

এ কথাকে মানাবী “আলফায়েয” গ্রন্থে উল্লেখ করেছেন। আর “আততায়সীর” গ্রন্থে সংক্ষেপে হাকিম কর্তৃক সহীহ আখ্যা দেয়ার কথা উল্লেখ করে সমালোচনা করেছেন। তার ভাষা থেকে বুঝা যায় তিনি সহীহ আখ্যাদানে সন্তুষ্ট হননি। কিন্তু তার অন্ধ অনুসরণকারী গুমারী এবারে তার বিরোধিতা করে হাদীসটিকে তার “কানয” গ্রন্থে (২৮৪৪) সহীহ আখ্যা দিয়েছেন।