কুতায়বা ইবনু সাঈদ (রহঃ) থেকে বর্ণিত হাদিস পাওয়া গেছে ১২ টি

পরিচ্ছেদঃ ১৩৪/ হায়যের পর গোসল করা প্রসঙ্গে

২০৮। কুতায়বা (রহঃ) থেকে অন্য হাদীস বর্ণিত হয়েছে। তাতে তিনি জাফরের* নাম উল্লেখ করেন নি।

أَخْبَرَنَا قُتَيْبَةُ، مَرَّةً أُخْرَى وَلَمْ يَذْكُرْ جَعْفَرًا ‏


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
বর্ণনাকারীঃ কুতায়বা ইবনু সাঈদ (রহঃ)
পুনঃনিরীক্ষণঃ

পরিচ্ছেদঃ ৪৫/৯. পড়ে থাকা জিনিসের মালিক এক বছর পরে ফিরে আসলে তার জিনিস তাকে ফিরিয়ে দিবে। কারণ সেটা তার কাছে আমানত ছিল।

২৪৩৬. কুতায়বা ইবনু সাঈদ (রহ.) যায়দ ইবনু খালিদ জুহানী (রাঃ) হতে বর্ণিত যে, এক ব্যক্তি পড়ে থাকা জিনিস সম্পর্কে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম -কে জিজ্ঞেস করল। তিনি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন, এক বছর যাবৎ ঘোষণা দিতে থাক। এরপর জিনিসটির পাত্র ও তার বাঁধন স্মরণ রাখ এবং সেটা খরচ কর। যদি তার মালিক এসে যায় তবে তাকে দিয়ে দাও। সে জিজ্ঞেস করল, হে আল্লাহর রাসূল! হারিয়ে যাওয়া বস্তু বকরী হলে কী করতে হবে? তিনি বললেন, তা তুমি নিয়ে নাও। কেননা, সেটা তোমার কিংবা তোমার ভাইয়ের আর তা না হলে নেকড়ে বাঘের। সে আবার বলল, হে আল্লাহর রাসূল! হারানো বস্তু উট হলে কী করতে হবে? এতে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম রাগান্বিত হলেন এমনকি তাঁর উভয় গাল লাল হয়ে গেল অথবা রাবী বলেন, তার মুখমন্ডল লাল হয়ে গেল। তারপর তিনি বললেন, এতে তোমার কী? তার সাথে তার ক্ষুর ও মশক রয়েছে। শেষ পর্যন্ত তার মালিক তার সন্ধান পেয়ে যাবে। (৯১) (আধুনিক প্রকাশনীঃ ২২৫৬, ইসলামিক ফাউন্ডেশনঃ  ২২৭৩)

بَاب إِذَا جَاءَ صَاحِبُ اللُّقَطَةِ بَعْدَ سَنَةٍ رَدَّهَا عَلَيْهِ لأَنَّهَا وَدِيعَةٌ عِنْدَهُ

حَدَّثَنَا قُتَيْبَةُ بْنُ سَعِيدٍ حَدَّثَنَا إِسْمَاعِيلُ بْنُ جَعْفَرٍ عَنْ رَبِيعَةَ بْنِ أَبِي عَبْدِ الرَّحْمٰنِ عَنْ يَزِيدَ مَوْلَى الْمُنْبَعِثِ عَنْ زَيْدِ بْنِ خَالِدٍ الْجُهَنِيِّ أَنَّ رَجُلاً سَأَلَ رَسُولَ اللهِ صلى الله عليه وسلم عَنْ اللُّقَطَةِ قَالَ عَرِّفْهَا سَنَةً ثُمَّ اعْرِفْ وِكَاءَهَا وَعِفَاصَهَا ثُمَّ اسْتَنْفِقْ بِهَا فَإِنْ جَاءَ رَبُّهَا فَأَدِّهَا إِلَيْهِ قَالُوا يَا رَسُولَ اللهِ صلى الله عليه وسلم فَضَالَّةُ الْغَنَمِ قَالَ خُذْهَا فَإِنَّمَا هِيَ لَكَ أَوْ لأَخِيكَ أَوْ لِلذِّئْبِ قَالَ يَا رَسُولَ اللهِ صلى الله عليه وسلم فَضَالَّةُ الإِبِلِ قَالَ فَغَضِبَ رَسُولُ اللهِ صلى الله عليه وسلم حَتَّى احْمَرَّتْ وَجْنَتَاهُ أَوْ احْمَرَّ وَجْهُهُ ثُمَّ قَالَ مَا لَكَ وَلَهَا مَعَهَا حِذَاؤُهَا وَسِقَاؤُهَا حَتَّى يَلْقَاهَا رَبُّهَا


Narrated Zaid bin Khalid Al-Juhani: A man asked Allah's Messenger (ﷺ) about the Luqata. He said, "Make public announcement of it for one year, then remember the description of its container and the string it is tied with, utilize the money, and if its owner comes back after that, give it to him." The people asked, "O Allah's Messenger (ﷺ)! What about a lost sheep?" Allah's Messenger (ﷺ) said, "Take it, for it is for you, for your brother, or for the wolf." The man asked, "O Allah's Messenger (ﷺ)! What about a lost camel?" Allah's Messenger (ﷺ) got angry and his cheeks or face became red, and said, "You have no concern with it as it has its feet, and its watercontainer, till its owner finds it."


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
বর্ণনাকারীঃ কুতায়বা ইবনু সাঈদ (রহঃ)
পুনঃনিরীক্ষণঃ

পরিচ্ছেদঃ ৭০/২৩. নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ও তাঁর সাহাবীগণ যা খেতেন।

৫৪১৬. কুতাইবাহ (রহ.) ‘আয়িশাহ (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম মদিনায় আসার পর থেকে মৃত্যু পর্যন্ত তাঁর পরিবারের লোকেরা এক নাগাড়ে তিন রাত গমের রুটি পেট পুরে খাননি। [৬৪৫৪; মুসলিম পর্ব ৫৩/হাঃ ২৯৭০, আহমাদ ২৬৪২৭] (আধুনিক প্রকাশনী- ৫০১৩, ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯০৯)

بَاب مَا كَانَ النَّبِيُّ صلى الله عليه وسلم وَأَصْحَابُه“ يَأْكُلُونَ

حَدَّثَنَا قُتَيْبَةُ، حَدَّثَنَا جَرِيرٌ، عَنْ مَنْصُورٍ، عَنْ إِبْرَاهِيمَ، عَنِ الأَسْوَدِ، عَنْ عَائِشَةَ ـ رضى الله عنها ـ قَالَتْ مَا شَبِعَ آلُ مُحَمَّدٍ صلى الله عليه وسلم مُنْذُ قَدِمَ الْمَدِينَةَ مِنْ طَعَامِ الْبُرِّ ثَلاَثَ لَيَالٍ تِبَاعًا، حَتَّى قُبِضَ‏.‏


Narrated `Aisha: The family of Muhammad had not eaten wheat bread to their satisfaction for three consecutive days since his arrival at Medina till he died.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
বর্ণনাকারীঃ কুতায়বা ইবনু সাঈদ (রহঃ)
পুনঃনিরীক্ষণঃ

পরিচ্ছেদঃ ৩৪. যুহর ও আসর এর সালাতের কিরাআত

৯০৪-(.../...) কুতাইবাহ ইবনু সাঈদ ও ইসহাক ইবনু ইবরাহীম (রহঃ) আবদুল মালিক ইবনু উমায়র (রাযিঃ) এর সূত্রে এ সনদে উপরের হাদীসের অনুরূপ বর্ণিত হয়েছে। (ইসলামিক ফাউন্ডেশনঃ ৮৯৯, ইসলামিক সেন্টারঃ ৯১১)

باب الْقِرَاءَةِ فِي الظُّهْرِ وَالْعَصْرِ ‏

حَدَّثَنَا قُتَيْبَةُ بْنُ سَعِيدٍ، وَإِسْحَاقُ بْنُ إِبْرَاهِيمَ، عَنْ جَرِيرٍ، عَنْ عَبْدِ الْمَلِكِ بْنِ عُمَيْرٍ، بِهَذَا الإِسْنَادِ ‏.‏


This hadith his been narrated by 'Abu al-Malik with the same chain of transmitters.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
বর্ণনাকারীঃ কুতায়বা ইবনু সাঈদ (রহঃ)
পুনঃনিরীক্ষণঃ

পরিচ্ছেদঃ ৩৭. উহুদ যুদ্ধ

৪৫৩৫-(১০২/...) কুতাইবাহ ইবনু সাঈদ (রহঃ) হতে বর্ণিত। সাহল ইবনু সা'ঈদ (রাযিঃ) কে যখন রসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর আহত হওয়া সম্পর্কে জিজ্ঞেস করা হয়, তখন তিনি বললেন, আল্লাহর কসম! আমি অবশ্যই জানি, কে রসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর যখম ধুয়ে দিচ্ছিলেন, কে পানি ঢেলে দিচ্ছিলেন এবং কিসের দ্বারা তার চিকিৎসা করা হয়েছিল। তারপর তিনি আবদুল আযীযের মাধ্যমে বর্ণিত পূর্ববর্তী হাদীসের অনুরূপ বর্ণনা করেন। অবশ্য তার বর্ণনায় এ পার্থক্য রয়েছেঃ “তার মুখমণ্ডল যখম করা হয় এবংهُشِمَتْ এর স্থলেكُسِرَتْ শব্দ ব্যবহার করেছেন। রসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর আহত হওয়া সংক্রান্ত সাহল ইবনু সা'দ (রাযিঃ) এর এ বর্ণনাটি সামান্য শাব্দিক পরিবর্তনসহ অন্য সূত্রেও বর্ণিত হয়েছে। (ইসলামিক ফাউন্ডেশন ৪৪৯২, ইসলামিক সেন্টার ৪৪৯৪)

باب غَزْوَةِ أُحُدٍ ‏‏

حَدَّثَنَا قُتَيْبَةُ بْنُ سَعِيدٍ، حَدَّثَنَا يَعْقُوبُ، - يَعْنِي ابْنَ عَبْدِ الرَّحْمَنِ الْقَارِيَّ - عَنْ أَبِي حَازِمٍ، أَنَّهُ سَمِعَ سَهْلَ بْنَ سَعْدٍ، وَهُوَ يُسْأَلُ عَنْ جُرْحِ، رَسُولِ اللَّهِ صلى الله عليه وسلم فَقَالَ أَمَ وَاللَّهِ إِنِّي لأَعْرِفُ مَنْ كَانَ يَغْسِلُ جُرْحَ رَسُولِ اللَّهِ صلى الله عليه وسلم وَمَنْ كَانَ يَسْكُبُ الْمَاءَ ‏.‏ وَبِمَاذَا دُووِيَ جُرْحُهُ ‏.‏ ثُمَّ ذَكَرَ نَحْوَ حَدِيثِ عَبْدِ الْعَزِيزِ غَيْرَ أَنَّهُ زَادَ وَجُرِحَ وَجْهُهُ وَقَالَ مَكَانَ هُشِمَتْ كُسِرَتْ ‏.‏


It has been reported on the authority of Abu Hazim who heard from Sahl b. Sa'd. The latter was asked about the injury of the Messenger of Allah (ﷺ). He said: By God, I know the person who washed the wound of the Messenger of Allah (ﷺ), who poured water on it and with what the wound was treated. Then Sahl narrated the same tradition as has been narrated by 'Abd al-'Azlz except that he added the words:" And his face was injured" and replaced the word" Hushimat" by" Kusirat" (i. e. it was broken).


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
বর্ণনাকারীঃ কুতায়বা ইবনু সাঈদ (রহঃ)
পুনঃনিরীক্ষণঃ

পরিচ্ছেদঃ ৩৫৫. তারতীলের সাথে কুরআন তিলাওয়াত পছন্দনীয়

১৪৬৯। আবুল ওয়ালীদ, কুতাইবাহ ইবনু সাঈদ ও ইয়াযীদ ইবনু খালিদ হতে পুর্বোক্ত হাদীসের অনুরূপ অর্থবোধক হাদীস বর্ণিত আছে। সাঈদ ইবনু আবূ সাঈদ (রাঃ) বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ যে ব্যক্তি মধুর সূরে কুরআন পাঠ করে না, সে আমাদের দলভুক্ত নয়।[1]

সহীহ।

باب اسْتِحْبَابِ التَّرْتِيلِ فِي الْقِرَاءَةِ

حَدَّثَنَا أَبُو الْوَلِيدِ الطَّيَالِسِيُّ، وَقُتَيْبَةُ بْنُ سَعِيدٍ، وَيَزِيدُ بْنُ خَالِدِ بْنِ مَوْهَبٍ الرَّمْلِيُّ، بِمَعْنَاهُ أَنَّ اللَّيْثَ، حَدَّثَهُمْ عَنْ عَبْدِ اللهِ بْنِ أَبِي مُلَيْكَةَ، عَنْ عُبَيْدِ اللهِ بْنِ أَبِي نَهِيكٍ، عَنْ سَعْدِ بْنِ أَبِي وَقَّاصٍ، - وَقَالَ يَزِيدُ عَنِ ابْنِ أَبِي مُلَيْكَةَ، - عَنْ سَعِيدِ بْنِ أَبِي سَعِيدٍ، وَقَالَ، قُتَيْبَةُ هُوَ فِي كِتَابِي عَنْ سَعِيدِ بْنِ أَبِي سَعِيدٍ، - قَالَ : قَالَ رَسُولُ اللهِ صلى الله عليه وسلم ‏"‏ لَيْسَ مِنَّا مَنْ لَمْ يَتَغَنَّ بِالْقُرْآنِ ‏"‏ ‏.‏

- صحيح


Narrated Sa'd ibn AbuWaqqas: (The narrator Qutaibah said: This tradition has been narrated by Sa'id b. Abu Sa'id in my collection): The Messenger of Allah (ﷺ) said: He who does not chant the Qur'an is not one of us.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
বর্ণনাকারীঃ কুতায়বা ইবনু সাঈদ (রহঃ)
পুনঃনিরীক্ষণঃ

পরিচ্ছেদঃ ২: আযানের বাক্যগুলো দু'বার বলা

৬২৭. কুতায়বাহ্ ইবনু সাঈদ (রহ.) ..... আনাস (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (সা.) বিলাল (রাঃ)-কে আযান (এর বাক্যগুলো) দু'বার করে বলার এবং ইকামত (এর বাক্যগুলো) একবার করে বলার নির্দেশ দিলেন।

تثنية الأذان

أَخْبَرَنَا قُتَيْبَةُ بْنُ سَعِيدٍ، ‏‏‏‏‏‏قال:‏‏‏‏ حَدَّثَنَا عَبْدُ الْوَهَّابِ، ‏‏‏‏‏‏عَنْ أَيُّوبَ، ‏‏‏‏‏‏عَنْ أَبِي قِلَابَةَ، ‏‏‏‏‏‏عَنْ أَنَسٍ، ‏‏‏‏‏‏قال:‏‏‏‏ إِنَّ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ أَمَرَ بِلَالًا أَنْ يَشْفَعَ الْأَذَانَ وَأَنْ يُوتِرَ الْإِقَامَةَ .

تخریج دارالدعوہ: صحیح البخاری/الأذان ۱ (۶۰۳)، ۲ (۶۰۵)، ۳ (۶۰۷)، أحادیث الأنبیاء ۵۰ (۳۴۵۷)، صحیح مسلم/الصلاة ۲ (۳۷۸)، سنن ابی داود/الصلاة ۲۹ (۵۰۸، ۵۰۹)، سنن الترمذی/الصلاة ۲۷ (۱۹۳)، سنن ابن ماجہ/الأذان ۶ (۷۲۹، ۷۳۰)، (تحفة الأشراف: ۹۴۳)، مسند احمد ۳/۱۰۳، ۱۸۹، سنن الدارمی/الصلاة ۶ (۱۲۳۰، ۱۲۳۱) (صحیح)

صحيح وضعيف سنن النسائي الألباني: حديث نمبر 628 - صحيح

2. Saying The Phrases Of The Adhan Twice


It was narrated that Anas said: The Messenger of Allah (ﷺ) commanded Bilal to say the phrases of the Adhan twice and the phrasses of the Iqamah once.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
বর্ণনাকারীঃ কুতায়বা ইবনু সাঈদ (রহঃ)
পুনঃনিরীক্ষণঃ

পরিচ্ছেদঃ ২৪: সালাতের কোন রাকআত ভুলে গেলে ইকামত বলা প্রসঙ্গ

৬৬৪. কুতায়বাহ্ (রহ.) ..... মু'আবিয়াহ্ ইবনু খুদায়জ (রাঃ) হতে বর্ণিত। একদিন রাসূলুল্লাহ (সা.) সালাত আদায় করেন এবং সালাম ফিরান। কিন্তু এক রাক'আত সালাত তাঁর বাকী রয়ে গিয়েছিল। এক ব্যক্তি মনে করিয়ে দিলেন এবং বললেন, আপনি এক রাকআত সালাত ভুলে গেছেন। তারপর রাসূলুল্লাহ (সা.) মসজিদে প্রবেশ করেন এবং বিলাল (রাঃ)-কে ইকামত দিতে বললেন, বিলাল (রাঃ) ইকামত দিলেন। তিনি লোকেদেরকে নিয়ে এক রাক’আত সালাত আদায় করেন। আমি যখন এ ঘটনা লোকের কাছে বর্ণনা করি তখন তারা আমাকে বলল, আপনি কি লোকটিকে চিনেন? আমি বললাম, না, তাকে আমি চিনি না। তবে তাকে দেখলে চিনতে পারব। সে ব্যক্তি আমার সম্মুখে এলে আমি বললাম, ইনিই সে লোক। লোকেরা বলল, ইনি হলেন- ত্বলহাহ্ ইবনু উবায়দুল্লাহ (রাঃ)।

الإقامة لمن نسي ركعة من صلاة

خْبَرَنَا قُتَيْبَةُ، ‏‏‏‏‏‏قال:‏‏‏‏ حَدَّثَنَا اللَّيْثُ، ‏‏‏‏‏‏عَنْ يَزِيدَ بْنِ أَبِي حَبِيبٍ، ‏‏‏‏‏‏أَنَّ سُوَيْدَ بْنَ قَيْسٍ حَدَّثَهُ، ‏‏‏‏‏‏عَنْ مُعَاوِيَةَ بْنِ حُدَيْجٍ، ‏‏‏‏‏‏أَنّ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ صَلَّى يَوْمًا فَسَلَّمَ وَقَدْ بَقِيَتْ مِنَ الصَّلَاةِ رَكْعَةٌ، ‏‏‏‏‏‏فَأَدْرَكَهُ رَجُلٌ، ‏‏‏‏‏‏فَقَالَ:‏‏‏‏ نَسِيتَ مِنَ الصَّلَاةِ رَكْعَةً، ‏‏‏‏‏‏فَدَخَلَ الْمَسْجِدَ وَأَمَرَ بِلَالًا، ‏‏‏‏‏‏فَأَقَامَ الصَّلَاةَ فَصَلَّى لِلنَّاسِ رَكْعَةً . فَأَخْبَرْتُ بِذَلِكَ النَّاسَ، ‏‏‏‏‏‏فَقَالُوا لِي:‏‏‏‏ أَتَعْرِفُ الرَّجُلَ ؟ قُلْتُ:‏‏‏‏ لَا، ‏‏‏‏‏‏إِلَّا أَنْ أَرَاهُ، ‏‏‏‏‏‏فَمَرَّ بِي، ‏‏‏‏‏‏فَقُلْتُ:‏‏‏‏ هَذَا هُوَ، ‏‏‏‏‏‏قَالُوا:‏‏‏‏ هَذَا طَلْحَةُ بْنُ عُبَيْدِ اللَّهِ.

تخریج دارالدعوہ: سنن ابی داود/الصلاة ۱۹۶ (۱۰۲۳)، (تحفة الأشراف: ۱۱۳۷۶)، مسند احمد ۶/۴۰۱ (صحیح)

صحيح وضعيف سنن النسائي الألباني: حديث نمبر 665 - صحيح

24. The Igamah For One Who Forgot A Rak'ah Of The Prayer


It was narrated that Mu'awiyah bin Hudaij that the Meseenger of Allah (ﷺ) prayed one day and said the Taslim when there was still a Rak'ah left of the prayer. A man caught up with him and said: 'You forgot a Rak'ah of the prayer!' So he came back into the Masjid and told Bilal to call the Iqamah for prayer, then he led the people in praying one Rak'ah. I told the people about that and they said to me: 'Do you know who that man was?' I said: 'No, not unless I see him.'. Then he paased by me and I said: 'This is he.' They said: 'This is Talha bin 'Ubaidullah.'


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
বর্ণনাকারীঃ কুতায়বা ইবনু সাঈদ (রহঃ)
পুনঃনিরীক্ষণঃ

পরিচ্ছেদঃ ১৯: শিশুদের নিয়ে মসজিদে প্রবেশ করা

৭১১. কুতায়বাহ্ (রহ.) ..... ‘আমর ইবনু সুলায়ম আয যুরাকী (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি আবূ কতাদাহ্ (রাঃ)-কে বলতে শুনেছেন, আমরা মসজিদে বসা ছিলাম, হঠাৎ রাসূলুল্লাহ (সা.) বের হয়ে আমাদের নিকট আসলেন। আবুল আস ইবনু রবী'-এর কন্যা উমামাকে কোলে নিয়ে আমাদের কাছে আসলেন তার মা হলো রাসূলুল্লাহ (সা.)-এর কন্যা যায়নাব (রাঃ)। তিনি ছোট শিশু রাসূলুল্লাহ (সা.) তাঁকে বহন করেই বেড়াতেন। অতঃপর রাসূলুল্লাহ (সা.) সালাত আদায় করলেন তাঁকে কাঁধে রেখেই। তিনি রুকু করার সময় তাঁকে নামিয়ে রেখে দিতেন। দাঁড়ালে আবার কাঁধে তুলে নিতেন। এমনিভাবে তিনি তাঁর সালাত আদায় করলেন।

إدخال الصبيان المساجد

أَخْبَرَنَا قُتَيْبَةُ، ‏‏‏‏‏‏قال:‏‏‏‏ حَدَّثَنَا اللَّيْثُ، ‏‏‏‏‏‏عَنْ سَعِيدِ بْنِ أَبِي سَعِيدٍ، ‏‏‏‏‏‏عَنْ عَمْرِو بْنِ سُلَيْمٍ الزُّرَقِيِّ، ‏‏‏‏‏‏أَنَّهُ سَمِعَ أَبَا قَتَادَةَ، ‏‏‏‏‏‏يَقُولُ:‏‏‏‏ بَيْنَا نَحْنُ جُلُوسٌ فِي الْمَسْجِدِ إِذْ خَرَجَ عَلَيْنَا رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ يَحْمِلُ أُمَامَةَ بِنْتَ أَبِي الْعَاصِ بْنِ الرَّبِيعِ وَأُمُّهَا زَيْنَبُ بِنْتُ رَسُولِ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ وَهِيَ صَبِيَّةٌ يَحْمِلُهَا فَصَلَّى رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ وَهِيَ عَلَى عَاتِقِهِ يَضَعُهَا إِذَا رَكَعَ وَيُعِيدُهَا إِذَا قَامَ حَتَّى قَضَى صَلَاتَهُ يَفْعَلُ ذَلِكَ بِهَا .

تخریج دارالدعوہ: صحیح البخاری/الصلاة ۱۰۶ (۵۱۶)، الأدب ۱۸ (۵۹۹۶) مختصراً، صحیح مسلم/المساجد ۹ (۵۴۳)، سنن ابی داود/الصلاة ۱۶۹ (۹۱۷، ۹۱۸، ۹۱۹، ۹۲۰)، موطا امام مالک/السفر ۲۴ (۸۱)، (تحفة الأشراف: ۱۲۱۲۴)، مسند احمد ۵/۲۹۵، ۲۹۶، ۳۰۳، ۳۰۴، ۳۱۰، ۳۱۱، سنن الدارمی/الصلاة ۹۳ (۱۳۹۹، ۱۴۰۰)، ویأتی عند المؤلف بأرقام: ۸۲۸، ۱۲۰۵، ۱۲۰۶ (صحیح)

صحيح وضعيف سنن النسائي الألباني: حديث نمبر 712 - صحيح

19. Bringing Children Into The Masjid


It was narrated from 'Amr bin Sulaim Az-Zuraqi that he heard Abu Qatadah say: While we were sitting in the Masjid. The Messenger of Allah (ﷺ) came out to us carrying Umamah bint Abi Al-'As bin Ar-Rabi', whose mother was Zainab, the daughter of the Messenger of Allah (ﷺ). She was a little girl and he was carrying her. The Messenger of Allah (ﷺ) prayed with her on his shoulder, putting her down when he bowed and picking her up again when he stood up, until he completed his prayer.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
বর্ণনাকারীঃ কুতায়বা ইবনু সাঈদ (রহঃ)
পুনঃনিরীক্ষণঃ

পরিচ্ছেদঃ ২৩: মসজিদে কবিতা পাঠের নিষেধাজ্ঞা

৭১৫. কুতায়বাহ (রহ.)… আমর ইবনু শু’আয়ব (রহ.) সূত্রে তারা বাবার বরাতে তার দাদা (রাঃ) হতে বর্ণিত রাসূলুল্লাহ (সা.) মসজিদে কবিতা পাঠ করতে নিষেধ করেছেন।

النهي عن تناشد الأشعار في المسجد

أَخْبَرَنَا قُتَيْبَةُ، ‏‏‏‏‏‏قال:‏‏‏‏ حَدَّثَنَا اللَّيْثُ بْنُ سَعْدٍ، ‏‏‏‏‏‏عَنْ ابْنِ عَجْلَانَ، ‏‏‏‏‏‏عَنْ عَمْرِو بْنِ شُعَيْبٍ، ‏‏‏‏‏‏عَنْ أَبِيهِ، ‏‏‏‏‏‏عَنْ جَدِّهِ، ‏‏‏‏‏‏أَنّ النَّبِيَّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ نَهَى عَنْ تَنَاشُدِ الْأَشْعَارِ فِي الْمَسْجِدِ .

تخریج دارالدعوہ: سنن ابی داود/الصلاة ۲۲۰ (۱۰۷۹)، سنن الترمذی/الصلاة ۱۲۴ (۳۲۲)، سنن ابن ماجہ/المساجد ۵ (۷۴۹)، مسند احمد ۲/۱۷۹، والمؤلف في عمل الیوم واللیلة ۶۶ (برقم: ۱۷۳)، (تحفة الأشراف: ۸۷۹۶) (حسن)

صحيح وضعيف سنن النسائي الألباني: حديث نمبر 716 - حسن

23. The Prohibition Of Reciting Poetry In The Masjid


It was narrated from 'Amr bin Shu'aib, from his father, from his grandfather, that the Prophet (ﷺ) forbade reciting poetry in the Masjid.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
বর্ণনাকারীঃ কুতায়বা ইবনু সাঈদ (রহঃ)
পুনঃনিরীক্ষণঃ

পরিচ্ছেদঃ ২৪: মসজিদে উত্তম কবিতা পাঠের অনুমতি প্রদান

৭১৬. কুতায়বাহ্ (রহ.) ..... সা'ঈদ ইবনু মুসাইয়্যাব (রহ.) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন একদিন উমার (রাঃ) হাসসান ইবনু সাবিত (রাঃ) এর নিকট দিয়ে যাওয়ার সময় তাকে মসজিদে কবিতা পাঠ করতে দেখলেন। তিনি তার দিকে তীক্ষ দৃষ্টি নিক্ষেপ করলে তিনি বললেন, আমি তো মসজিদে ঐ সময় কবিতা আবৃত্তি করেছি, যখন তাতে আপনার চেয়ে উত্তম ব্যক্তি [রাসূলুল্লাহ (সা.)] হাজির ছিলেন। তারপর তিনি আবূ হুরায়রাহ্ (রাঃ)-এর দিকে লক্ষ্য করে বললেন, আপনি কি রাসূলুল্লাহ (সা.)-কে বলতে শুনেননি? আমার পক্ষ থেকে (কবিতার মাধ্যমে মুশরিকদের কবিতার) উত্তর দাও। [তিনি (সা.) এ দু'আও করেছিলেন] হে আল্লাহ! তাকে রূহুল কুদুস দ্বারা সাহায্য করুন।” তিনি বললেন, হে আল্লাহ! হ্যাঁ।

الرخصة في إنشاد الشعر الحسن في المسجد

أَخْبَرَنَا قُتَيْبَةُ، ‏‏‏‏‏‏قال:‏‏‏‏ حَدَّثَنَا سُفْيَانُ، ‏‏‏‏‏‏عَنْ الزُّهْرِيِّ، ‏‏‏‏‏‏عَنْ سَعِيدِ بْنِ الْمُسَيِّبِ، ‏‏‏‏‏‏قال:‏‏‏‏ مَرَّ عُمَرُ، ‏‏‏‏‏‏بِحَسَّانَ بْنِ ثَابِتٍ وَهُوَ يُنْشِدُ فِي الْمَسْجِدِ فَلَحَظَ إِلَيْهِ، ‏‏‏‏‏‏فَقَالَ:‏‏‏‏ قَدْ أَنْشَدْتُ وَفِيهِ مَنْ هُوَ خَيْرٌ مِنْكَ، ‏‏‏‏‏‏ثُمَّ الْتَفَتَ إِلَى أَبِي هُرَيْرَةَ، ‏‏‏‏‏‏فَقَالَ:‏‏‏‏ أَسَمِعْتَ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ، ‏‏‏‏‏‏يَقُولُ:‏‏‏‏ أَجِبْ عَنِّي، ‏‏‏‏‏‏اللَّهُمَّ أَيِّدْهُ بِرُوحِ الْقُدُسِ ؟ قَالَ:‏‏‏‏ اللَّهُمَّ نَعَمْ.

تخریج دارالدعوہ: صحیح البخاری/الصلاة ۶۸ (۴۵۳)، بدء الخلق ۶ (۳۲۱۲)، الأدب ۹۱ (۶۱۵۲)، صحیح مسلم/فضائل الصحابة ۳۴ (۲۴۸۵)، سنن ابی داود/الأدب ۹۵ (۵۰۱۳، ۵۰۱۴) مختصراً، (تحفة الأشراف: ۳۴۰۲)، مسند احمد ۵/۲۲۲، وفی الیوم واللیلة (۱۷۱) (صحیح)

صحيح وضعيف سنن النسائي الألباني: حديث نمبر 717 - صحيح

24. The Concession Allowing The Recitation Of Good Poetry In The Masjid


It was narrated that Sa'eed bin Al-Musayyab said: Umar passed by Hassan bin Thabit while he was reciting poetry in the Masjid, and glared at him. He said: 'I recited poetry when there was someone better than you in the Masjid.' Then he turned to Abu Hurairah and said: 'Did you not hear the Messenger of Allah (ﷺ) when he said: Answer back on my behalf. O Allah, help him with the Holy Spirit!' He said: 'Yes, by Allah.'


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
বর্ণনাকারীঃ কুতায়বা ইবনু সাঈদ (রহঃ)
পুনঃনিরীক্ষণঃ

পরিচ্ছেদঃ ৫৩: একাকী সালাত আদায় করলে পুনরায় জামাআতে সালাত আদায় করা

৮৫৭. কুতায়বাহ্ (রহ.) ..... মিহজান (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি এক সময় রাসূলুল্লাহ (সা.) -এর সঙ্গে এক মজলিসে ছিলেন, তখন সালাতের আযান হলে রাসূলুল্লাহ (সা.) দাঁড়ালেন, তারপর সালাত আদায় করে এসে দেখলেন মিহজান (রাঃ) সে মাজলিসেই রয়েছেন। রাসূলুল্লাহ (সা.) তাকে বললেন, তোমাকে সালাত আদায় করা থেকে কোন জিনিস বাধা দিল? তুমি কি মুসলিম নও? তিনি বললেন, হ্যা! কিন্তু আমি আমার ঘরে সালাত আদায় করেছি। রাসূলুল্লাহ (সা.) তাঁকে বললেন, যখন মসজিদে আসবে তখন লোকেদের সঙ্গে সালাত আদায় করে নিবে যদিও আগে সালাত আদায় করে থাক।

إعادة الصلاة مع الجماعة بعد صلاة الرجل لنفسه

أَخْبَرَنَا قُتَيْبَةُ، ‏‏‏‏‏‏عَنْ مَالِكٍ، ‏‏‏‏‏‏عَنْ زَيْدِ بْنِ أَسْلَمَ، ‏‏‏‏‏‏عَنْ رَجُلٍ مِنْ بَنِي الدِّيلِ يُقَالُ لَهُ بُسْرُ بْنُ مِحْجَنٍ، ‏‏‏‏‏‏عَنْ مِحْجَنٍ أَنَّهُ كَانَ فِي مَجْلِسٍ مَعَ رَسُولِ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ فَأَذَّنَ بِالصَّلَاةِ فَقَامَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ، ‏‏‏‏‏‏ثُمَّ رَجَعَ وَمِحْجَنٌ فِي مَجْلِسِهِ فَقَالَ لَهُ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ:‏‏‏‏ مَا مَنَعَكَ أَنْ تُصَلِّيَ أَلَسْتَ بِرَجُلٍ مُسْلِمٍ قَالَ:‏‏‏‏ بَلَى وَلَكِنِّي كُنْتُ قَدْ صَلَّيْتُ فِي أَهْلِي، ‏‏‏‏‏‏فَقَالَ لَهُ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ:‏‏‏‏ إِذَا جِئْتَ فَصَلِّ مَعَ النَّاسِ وَإِنْ كُنْتَ قَدْ صَلَّيْتَ .

تخریج دارالدعوہ: تفرد بہ النسائي، موطا امام مالک/الجماعة ۳ (۸)، (تحفة الأشراف: ۱۱۲۱۹)، مسند احمد ۴/۳۴، ۳۳۸ (صحیح)

صحيح وضعيف سنن النسائي الألباني: حديث نمبر 858 - صحيح

53. Repeating A Prayer With The Congregation When A Man Has Already Prayed By Himself


It was narrated from Mihjan that he was in a gathering with the Messenger of Allah (ﷺ) when the Adhan was called for prayer. The A Messenger of Allah (ﷺ) got up, then he came back and Mihjan was still sitting there. The Messenger of Allah (ﷺ) said to him: What kept you from praying? Are you not a Muslim man? He said: Yes, but I had already prayed with my family. The Messenger of Allah (ﷺ)said to him: When you come you should pray with the people even if you have already prayed.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
বর্ণনাকারীঃ কুতায়বা ইবনু সাঈদ (রহঃ)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
দেখানো হচ্ছেঃ থেকে ১২ পর্যন্ত, সর্বমোট ১২ টি রেকর্ডের মধ্য থেকে