আবদুল জাব্বার ইবনু ওয়ায়িল (রহ.) থেকে বর্ণিত হাদিস পাওয়া গেছে টি

পরিচ্ছেদঃ ৫/১৪. সশব্দে আমীন বলা।

৫/৮৫৫। আবদুল জাব্বার ইবনু ওয়াইল (রহঃ) থেকে তার পিতার সূত্রে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম -এর সাথে সালাত পড়লাম। তিনি ওয়ালায যআলীন বলার পর আমীন বলেছেন। আমরা তা তাঁকে বলতে শুনেছি।

. بَاب الْجَهْرِ بِآمِينَ

حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ الصَّبَّاحِ، وَعَمَّارُ بْنُ خَالِدٍ الْوَاسِطِيُّ، قَالاَ حَدَّثَنَا أَبُو بَكْرِ بْنُ عَيَّاشٍ، عَنْ أَبِي إِسْحَاقَ، عَنْ عَبْدِ الْجَبَّارِ بْنِ وَائِلٍ، عَنْ أَبِيهِ، قَالَ صَلَّيْتُ مَعَ النَّبِيِّ ـ صلى الله عليه وسلم ـ فَلَمَّا قَالَ ‏(وَلاَ الضَّالِّينَ)‏ ‏.‏ قَالَ ‏ "‏ آمِينَ ‏"‏ ‏.‏ فَسَمِعْنَاهَا ‏.‏


It was narrated from ‘Abdul-Jabbar bin Wa’il that his father said: “I performed prayer with the Prophet (ﷺ) and when he said: ‘Nor of those who went astray’,[1:7] he said Amin and we heard that from him.”


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
বর্ণনাকারীঃ আবদুল জাব্বার ইবনু ওয়ায়িল (রহ.)
পুনঃনিরীক্ষণঃ

পরিচ্ছেদঃ ১১৭. সালাত শুরু করা সম্পর্কে

৭৩৭। ‘আবদুল জাব্বার ইবনু ওয়ায়িল থেকে তাঁর পিতার সূত্রে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-কে তাকবীর বলার সময় তাঁর দু’ হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলি কানের নিম্নভাগ পর্যন্ত উঠাতে দেখেছি।[1]

দুর্বল।

باب افْتِتَاحِ الصَّلَاةِ

حَدَّثَنَا مُسَدَّدٌ، حَدَّثَنَا عَبْدُ اللهِ بْنُ دَاوُدَ، عَنْ فِطْرٍ، عَنْ عَبْدِ الْجَبَّارِ بْنِ وَائِلٍ، عَنْ أَبِيهِ، قَالَ رَأَيْتُ رَسُولُ اللهِ صلى الله عليه وسلم يَرْفَعُ إِبْهَامَيْهِ فِي الصَّلَاةِ إِلَى شَحْمَةِ أُذُنَيْهِ ‏.‏

- ضعيف


Narrated Wa'il ibn Hujr: I saw the Messenger of Allah (ﷺ) raising his thumbs in prayer up to the lobes of his ears.


হাদিসের মানঃ যঈফ (Dai'f)
বর্ণনাকারীঃ আবদুল জাব্বার ইবনু ওয়ায়িল (রহ.)
পুনঃনিরীক্ষণঃ

পরিচ্ছেদঃ ৪: কান পর্যন্ত উভয় হাত উঠানো

৮৭৯. কুতায়বাহ্ (রহ.) ..... ‘আবদুল জাব্বার ইবনু ওয়ায়িল (রহ.) সূত্রে তার পিতা ওয়ায়িল (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি রাসূলুল্লাহ (সা.) -এর পেছনে সালাত আদায় করেছি। যখন তিনি (সা.) সালাত শুরু করতেন তখন তাকবীর বলতেন এবং তার উভয় হাত দু’কান পর্যন্ত তুলতেন। এরপর সুরাহ ফাতিহা পাঠ করতেন। আর তা সমাপ্ত করে “আ-মীন" বলতেন এবং তা বলার সময় তার স্বর উচ্চ করতেন।

رفع اليدين حيال الأذنين

أَخْبَرَنَا قُتَيْبَةُ، ‏‏‏‏‏‏قال:‏‏‏‏ حَدَّثَنَا أَبُو الْأَحْوَصِ، ‏‏‏‏‏‏عَنْ أَبِي إِسْحَاقَ، ‏‏‏‏‏‏عَنْ عَبْدِ الْجَبَّارِ بْنِ وَائِلٍ، ‏‏‏‏‏‏عَنْ أَبِيهِ، ‏‏‏‏‏‏قال:‏‏‏‏ صَلَّيْتُ خَلْفَ رَسُولِ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ فَلَمَّا افْتَتَحَ الصَّلَاةَ كَبَّرَ وَرَفَعَ يَدَيْهِ حَتَّى حَاذَتَا أُذُنَيْهِ، ‏‏‏‏‏‏ثُمَّ يَقْرَأُ بِفَاتِحَةِ الْكِتَابِ فَلَمَّا فَرَغَ مِنْهَا قَالَ:‏‏‏‏ آمِينَ يَرْفَعُ بِهَا صَوْتَهُ .

تخریج دارالدعوہ: تفرد بہ النسائي، (تحفة الأشراف: ۱۱۷۶۳)، مسند احمد ۴/۳۱۸، سنن الدارمی/الصلاة ۳۵ (۱۲۷۷)، وقد أخرجہ: سنن ابی داود/الصلاة ۱۱۶ (۷۲۴) (بدون ذکر آمین)، سنن ابن ماجہ/إقامة ۱۴ (۸۵۵)، (بدون ذکر رفع الیدین)، مسند احمد ۴/۳۱۵ (بدون ذکر رفع الیدین)،۳۱۶ (بدون ذکر آمین) ۳۱۸ (بتمامہ)، وانظر حدیث وائل من غیر طریق عبدالجبار عن أبیہ عند: صحیح مسلم/الصلاة ۱۵ (۴۰۱)، سنن ابی داود/الصلاة ۱۱۶ (۷۲۳)، سنن ابن ماجہ/إقامة ۱۵ (۸۶۷)، مسند احمد ۴/۳۱۶، ۳۱۷، ۳۱۸، ۳۱۹ (صحیح)

صحيح وضعيف سنن النسائي الألباني: حديث نمبر 880 - صحيح

4. Raising The Hands Parallel To The Ears


It was narrated from Abdul-Jabbar bin Wa'il that his father said: I prayed behind the Messenger of Allah (ﷺ) and when he started to pray he said the Takbir and raised his hands until they were in level with his ears. Then he recited the Opening of the Book, and when he had finished he said 'Amin' and raised his voice with it.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
বর্ণনাকারীঃ আবদুল জাব্বার ইবনু ওয়ায়িল (রহ.)
পুনঃনিরীক্ষণঃ

পরিচ্ছেদঃ ৫: হাত উঠানোর সময় বৃদ্ধাঙ্গুলির অবস্থান

৮৮২. মুহাম্মাদ ইবনু রাফি (রহ.) ..... ‘আবদুল জাব্বার ইবনু ওয়ায়িল (রহ.) সূত্রে তার পিতা ওয়ায়িল (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি নবী (সা.)-কে দেখেছেন, যখন তিনি সালাত শুরু করতেন তখন তিনি তাঁর উভয় হাত উঠাতেন। তখন বৃদ্ধাঙ্গুলিদ্বয় তাঁর দু'কানের লতি বরাবর হতো।

باب موضع الإبهامين عند الرفع

أَخْبَرَنَا مُحَمَّدُ بْنُ رَافِعٍ، ‏‏‏‏‏‏قال:‏‏‏‏ حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ بِشْرٍ، ‏‏‏‏‏‏قال:‏‏‏‏ حَدَّثَنَا فِطْرُ بْنُ خَلِيفَةَ، ‏‏‏‏‏‏عَنْ عَبْدِ الْجَبَّارِ بْنِ وَائِلٍ، ‏‏‏‏‏‏عَنْ أَبِيهِ، ‏‏‏‏‏‏أَنَّهُ رَأَى النَّبِيَّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ إِذَا افْتَتَحَ الصَّلَاةَ رَفَعَ يَدَيْهِ حَتَّى تَكَادَ إِبْهَامَاهُ تُحَاذِي شَحْمَةَ أُذُنَيْهِ .

تخریج دارالدعوہ: سنن ابی داود/الصلاة ۱۱۷ (۷۳۷)، (تحفة الأشراف: ۱۱۷۵۹)، مسند احمد ۴/۳۱۶ (ضعیف الإسناد) (لیکن شواہد اور متابعات سے تقویت پاکر روایت صحیح ہے، دیکھئے رقم: ۸۸۰ کی تخریج)

صحيح وضعيف سنن النسائي الألباني: حديث نمبر 883 - ضعيف

5. Location Of The Thumbs When Raising The Hands


It was narrated from Abdul-Jabbar bin Wa'il, from his father, that: He saw the Prophet (ﷺ), when he started to pray, raise his hands until his thumbs were almost level with his earlobes.


হাদিসের মানঃ যঈফ (Dai'f)
বর্ণনাকারীঃ আবদুল জাব্বার ইবনু ওয়ায়িল (রহ.)
পুনঃনিরীক্ষণঃ

পরিচ্ছেদঃ ৩৬: মুক্তাদীর ইমামের পেছনে হাঁচি দিয়ে ‘আলহামদু লিল্লা-হ’ বলা

৯৩২. আবদুল হামীদ ইবনু মুহাম্মাদ (রহ.) ..... ‘আবদুল জাব্বার ইবনু ওয়ায়িল (রহ.) সূত্রে তার পিতা ওয়ায়িল (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি রাসূলুল্লাহ (সা.)-এর পিছনে সালাত আদায় করেছি। যখন তিনি তাকবীর বললেন, তাঁর কর্ণদ্বয়ের নিম্ন পর্যন্ত দু'হাত তুললেন যখন তিনি “গয়রিল মাগযূবি ‘আলায়হিম ওয়ালায যো-ল্লীন” বললেন, তখন ‘আ-মীন' বললেন। রাবী বলেন, আমি তার পিছনে থেকে তা শ্রবণ করলাম। তখন রাসূলুল্লাহ (সা.) শুনলেন, এক ব্যক্তি বলছে- “আলহামদু লিল্লা-হি হামদান কাসীরন ত্বইয়িবাম্ মুবা-রকান ফীহি।” যখন নবী (সা.) সালাম ফিরালেন তখন বললেন, সালাতে বাক্যটি কে বলেছে? তখন ঐ ব্যক্তি বলল, হে আল্লাহর রসূল! আমি বলেছি। আর আমি এ দ্বারা খারাপ কিছু ইচ্ছা করিনি। নবী (সা.) বললেন, বারোজন মালাক তা তাড়াতাড়ি আরশে তুলে নিয়ে গেল এবং তাতে কোন বাধা সৃষ্টি হয়নি।

সহীহ: বুখারী ৮৫৫, মুসনাদে আহমাদ ১৮৮৮০; فَمَانَهْنَهَهَا... অংশ বাদে হাদীসটি পূর্বের হাদীসের সহায়তায় সহীহ।

قول المأموم إذا عطس خلف الإمام

أَخْبَرَنَا عَبْدُ الْحَمِيدِ بْنُ مُحَمَّدٍ قال:‏‏‏‏ حَدَّثَنَا مَخْلَدٌ قال:‏‏‏‏ حَدَّثَنَا يُونُسُ بْنُ أَبِي إِسْحَاقَ، ‏‏‏‏‏‏عَنْ أَبِيهِ، ‏‏‏‏‏‏عَنْ عَبْدِ الْجَبَّارِ بْنِ وَائِلٍ، ‏‏‏‏‏‏عَنْ أَبِيهِ، ‏‏‏‏‏‏قال:‏‏‏‏ صَلَّيْتُ خَلْفَ رَسُولِ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ فَلَمَّا كَبَّرَ رَفَعَ يَدَيْهِ أَسْفَلَ مِنْ أُذُنَيْهِ فَلَمَّا قَرَأَ غَيْرِ الْمَغْضُوبِ عَلَيْهِمْ وَلا الضَّالِّينَ سورة الفاتحة آية 7، ‏‏‏‏‏‏قَالَ:‏‏‏‏ آمِينَ فَسَمِعْتُهُ وَأَنَا خَلْفَهُ قَالَ:‏‏‏‏ فَسَمِعَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ رَجُلًا يَقُولُ:‏‏‏‏ الْحَمْدُ لِلَّهِ حَمْدًا كَثِيرًا طَيِّبًا مُبَارَكًا فِيهِ فَلَمَّا سَلَّمَ النَّبِيُّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ مِنْ صَلَاتِهِ قَالَ:‏‏‏‏ مَنْ صَاحِبُ الْكَلِمَةِ فِي الصَّلَاةِ فَقَالَ الرَّجُلُ أَنَا يَا رَسُولَ اللَّهِ وَمَا أَرَدْتُ بِهَا بَأْسًا قَالَ:‏‏‏‏ النَّبِيُّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ:‏‏‏‏ لَقَدِ ابْتَدَرَهَا اثْنَا عَشَرَ مَلَكًا فَمَا نَهْنَهَهَا شَيْءٌ دُونَ الْعَرْشِ .

تخریج دارالدعوہ: تفرد بہ النسائي، تحفة الأشراف: ۱۱۷۶۴)، مسند احمد ۴/۳۱۵، ۳۱۷ (صحیح) (اس سند میں عبدالجبار اور ان کے باپ وائل بن حجر رضی اللہ عنہ کے درمیان انقطاع ہے، لیکن’’فما نھنھھا۔۔۔ ‘‘کے جملے کے علاوہ اوپر کی حدیث سے تقویت پاکر بقیہ حدیث صحیح لغیرہ ہے)

صحيح وضعيف سنن النسائي الألباني: حديث نمبر 933 - صحيح لغيره دون قوله فما نهنهها

36. What A Person Should Say If He Sneezes Behind The Imam


It was narrated from Abdul-Jabbar bin Wa'il that : His father said: I prayed behind the Messenger of Allah (ﷺ) and when he said the takbir, he raised his hands to the bottom of his ears. When he recited: Not (the way) of those who earned Your anger, nor of those who went astray), he said: 'Amin,' and I could hear him although I was behind him. The Messenger of Allah (ﷺ) heard a man saying: 'Al-hamdu lillahi, hamdan kathiran tayiban mubarakan fih, (Praise be to Allah, much good and blessed praise.)' When the Prophet (ﷺ) said the salam and finished his prayer, he said: 'Who spoke those words during the prayer?' The man said: 'I did, O Messenger of Allah, but I did not mean anything bad thereby.' The Prophet (ﷺ) said: Twelve angels hastened (to take it) and nothing is stopping it going all the way to the Throne.'


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
বর্ণনাকারীঃ আবদুল জাব্বার ইবনু ওয়ায়িল (রহ.)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
দেখানো হচ্ছেঃ থেকে ৫ পর্যন্ত, সর্বমোট ৫ টি রেকর্ডের মধ্য থেকে