সহীহ শামায়েলে তিরমিযী ৪৪. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) এর কিরাআত (باب ما جاء في قراءة رسول الله ﷺ)

পরিচ্ছেদঃ

রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম টেনে টেনে কিরাআত পাঠ করতেন:

২৪০. কাতাদা থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি আনাস ইবনে মালিক (রাঃ) কে জিজ্ঞেস করলাম, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর কিরাআত কিরূপ ছিল? তিনি বললেন, টেনে পড়তেন।[1]

حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ بَشَّارٍ ، قَالَ : حَدَّثَنَا وَهْبُ بْنُ جَرِيرِ بْنِ حَازِمٍ ، قَالَ : حَدَّثَنَا أَبِي ، عَنْ قَتَادَةَ ، قَالَ : قُلْتُ لأَنَسِ بْنِ مَالِكٍ : كَيْفَ كَانَتْ قِرَاءَةُ رَسُولِ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ ؟ فَقَالَ : " مَدًّا " .

حدثنا محمد بن بشار ، قال : حدثنا وهب بن جرير بن حازم ، قال : حدثنا أبي ، عن قتادة ، قال : قلت لأنس بن مالك : كيف كانت قراءة رسول الله صلى الله عليه وسلم ؟ فقال : " مدا " .


Qataadah reports: "I inquired from Anas Radiyallahu 'Anhu: 'How was the
recital of Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam ?' He replied: 'He recited (The words of madd) with a madd"'.

The words that are to be recited with madd were recited with a madd (long intonation). This can only be done if one recites steadily, and with care. It is difficult to pronounce the madd if one recites hastily. From this, both things are apparent. One should recite steadily, and recite the madds, where they appear. The commentators of hadith have written that there are laws governing the recital of the rnadd. These are described fully in the books of tajweed. It is necessary to implement them. In our times the Qurraa (Qaaris) stretch the madd so much, overdoing it. Only the things that are done according to its laws and fundamentals are correct. Excess or deficiency are both abhorred.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
৪৪. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) এর কিরাআত (باب ما جاء في قراءة رسول الله ﷺ) 44. The Recital Of Sayyidina Rasoolullah (pbuh)

পরিচ্ছেদঃ

রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম প্রতিটি আয়াত আলাদা আলাদা করে পাঠ করতেন:

২৪১. উম্মে সালামা (রাঃ) থেকে বর্ণিত। উম্মে সালামা বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম প্রতিটি আয়াত আলাদা আলাদা করে পড়তেন। যেমন, “আলহামদু লিল্লা-হি রব্বিল আ-লামীন” পাঠ করে একটু থামতেন। তারপর “আর রহমা-নির রহীম” পাঠ করে একটু থামতেন। তারপর “মা-লিকি ইয়াওমিদ্দীন” পাঠ করতেন।[1]

حَدَّثَنَا عَلِيُّ بْنُ حُجْرٍ ، قَالَ : حَدَّثَنَا يَحْيَى بْنُ سَعِيدٍ الأُمَوِيُّ ، عَنِ ابْنِ جُرَيْجٍ ، عَنِ ابْنِ أَبِي مُلَيْكَةَ ، عَنْ أُمِّ سَلَمَةَ ، قَالَتْ : " كَانَ النَّبِيُّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ , يَقْطَعُ قِرَاءَتَهُ , يَقُولُ : الْحَمْدُ لِلَّهِ رَبِّ الْعَالَمِينَ ثُمَّ يَقِفُ ، ثُمَّ يَقُولُ : الرَّحْمَنِ الرَّحِيمِ ثُمَّ يَقِفُ ، وَكَانَ يَقْرَأُ مَالِكِ يَوْمِ الدِّينِ

حدثنا علي بن حجر ، قال : حدثنا يحيى بن سعيد الأموي ، عن ابن جريج ، عن ابن أبي مليكة ، عن أم سلمة ، قالت : " كان النبي صلى الله عليه وسلم , يقطع قراءته , يقول : الحمد لله رب العالمين ثم يقف ، ثم يقول : الرحمن الرحيم ثم يقف ، وكان يقرأ مالك يوم الدين


Ummi Salamah Radiyallahu 'Anha reports: "Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam recited every aayah separately. He recited 'Alhamdulillaahi Rabbil 'Aa-lameen' and paused, then recited 'Ar Rahmaanir Raheem' and paused. Then paused after reciting 'Maaliki Yawmiddeen"'.

Briefly, he recited every aayah distinctly, and with ease. There is a difference of opinion among the Qurraa, that is it afdal (better) to take a breath after the recital of every aayah or not? Maulana Gangohi has written a special booklet 'Raddut Tughyaan fi Awqaafil Qur-aan' in Urdu, which is quite comprehensive. This book is beneficial for the rnasaa-il of this nature.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
৪৪. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) এর কিরাআত (باب ما جاء في قراءة رسول الله ﷺ) 44. The Recital Of Sayyidina Rasoolullah (pbuh)

পরিচ্ছেদঃ

রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কখনো আস্তে এবং কখনো উচ্চস্বরে কিরাআত পাঠ করতেন:

২৪২. আবদুল্লাহ ইবনে আবু কায়স থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি আয়েশা (রাঃ) কে জিজ্ঞেস করলাম, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কি আস্তে কিরাআত পড়তেন, না উচ্চস্বরে? তিনি বললেন, উভয়টিই করতেন। কখনো আস্তে পড়তেন, আবার কখনো উচ্চস্বরে পড়তেন। আমি বললাম, আল্লাহর প্রশংসা যে, তিনি এ ব্যাপারে দু’ধরনেরই সুযোগ রেখেছেন।

حَدَّثَنَا قُتَيْبَةُ ، قَالَ : حَدَّثَنَا اللَّيْثُ ، عَنْ مُعَاوِيَةَ بْنِ صَالِحٍ ، عَنْ عَبْدِ اللَّهِ بْنِ أَبِي قَيْسٍ ، قَالَ : سَأَلْتُ عَائِشَةَ ، عَنْ قِرَاءَةِ النَّبِيِّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ أَكَانَ يُسِرُّ بِالْقِرَاءَةِ أَمْ يَجْهَرُ ؟ قَالَتْ : " كُلُّ ذَلِكَ قَدْ كَانَ يَفْعَلُ قَدْ كَانَ رُبَّمَا أَسَرَّ وَرُبَّمَا جَهَرَ " . فَقُلْتُ : الْحَمْدُ لِلَّهِ , الَّذِي جَعَلَ فِي الأَمْرِ سَعَةً " .

حدثنا قتيبة ، قال : حدثنا الليث ، عن معاوية بن صالح ، عن عبد الله بن أبي قيس ، قال : سألت عائشة ، عن قراءة النبي صلى الله عليه وسلم أكان يسر بالقراءة أم يجهر ؟ قالت : " كل ذلك قد كان يفعل قد كان ربما أسر وربما جهر " . فقلت : الحمد لله , الذي جعل في الأمر سعة " .


'Abdullah bin Abi Qays reports: "I inquired from 'Aayeshah Radiyallahu 'Anha about the recital of Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam, did he 'recite softly or audibly? She replied: 'He recited in both ways'. I said: 'Alhamdulillaah, (Praise be to, Allah), who has accorded us easiness in the matter"'. (According to the situation whatever was proper, reciting softly or audibly was adopted).

রাসূলুল্লাহ (সাঃ) কোন রাতে আস্তে আর কোন রাতে উচ্চৈঃস্বরে কিরাআত পাঠ করতেন। এ উভয় নিয়মই জায়েয। তবে অবস্থার ভিন্নতায় কখনো উচ্চৈঃস্বরে কখনো আস্তে কিরাআত পড়া উত্তম। নিজের মাঝে প্রাণবন্ততা নিয়ে আসা বা অন্যকে উৎসাহিত করার জন্য উচ্চৈঃস্বরে পড়া উত্তম। অপরপক্ষে যদি কারো কষ্ট বা রিয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়, তাহলে আস্তে পড়া উত্তম।


This question, as has been mentioned in the jaami' Tirmidhi, is regarding the recital at the time of tahajjud. Sayyiditina 'Aayeshah Radiyallahu 'Anha replying that he recited both softly, and audibly, may also mean that he recited both tones in the same night.

This is also correct that in one night he recited the entire salaah audibly, and on another night he recited the entire salaah softly. Both are correct, and there is no harm in reciting in both manners. At times it is better to recite audibly, especially where it is intended to persuade others, or it will create strength to recite. Where there is a possibility that one will be troubled, or where it is doubted that this will create pride, it is better not to recite audibly as it is important to consider those present. When sometimes both are of the same nature, then it is advisable to recite in a slightly audible tone. It was the practice ol Sayyidina Abubakr Radiyallahu 'Anhu to recite softly in the tahajjud. Sayyidina 'Umar Radiyallahu 'Anhu used to recite audibly. Once Sayyidina Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam passed both at night and witnessed the practices of both. When they attended the noble gathering of Sayyidina Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam in the morning Sayyidina Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam discussed this. Sayyidina Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallarn said to Sayyidina Abubakr Radiyallahu 'Anhu. "When I passed you, you were reciting softly". He replied: "That great being with whom I was conversing was listening". Sayyidina Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam then said to Sayyidina 'Umar Radiyallahu 'Anhu: "When I passed you, you were reciting loudly". Sayyidina 'Umar Radiyallahu 'Anhu replied: "The intention was to awaken those who were carelessly sleeping, and to keep away the shaytaan". Sayyidina Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam approved the explanations of both, and said to Sayyidina Abubakr Radiyallahu 'Anhu "Raise your voice a little" and to Sayyidina 'Umar Radiyallahu 'Anhu: "Lower your voice a little".


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
৪৪. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) এর কিরাআত (باب ما جاء في قراءة رسول الله ﷺ) 44. The Recital Of Sayyidina Rasoolullah (pbuh)

পরিচ্ছেদঃ

রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর তিলাওয়াত প্রতিবেশীর ঘরের ছাদ থেকেও শুনা যেত:

২৪৩. উম্মু হানী (রাঃ) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি আমার গৃহে ছাদে অবস্থান করে রাত্রিবেলায় নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর কিরাআত শুনতে পেতাম।[1]

حَدَّثَنَا مَحْمُودُ بْنُ غَيْلانَ ، قَالَ : حَدَّثَنَا وَكِيعٌ ، قَالَ : حَدَّثَنَا مِسْعَرٌ ، عَنْ أَبِي الْعَلاءِ الْعَبْدِيِّ ، عَنْ يَحْيَى بْنِ جَعْدَةَ ، عَنْ أُمِّ هَانِئٍ ، قَالَتْ : " كُنْتُ أَسْمَعُ قِرَاءَةَ النَّبِيِّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ , بِاللَّيْلِ وَأَنَا عَلَى عَرِيشِي " .

حدثنا محمود بن غيلان ، قال : حدثنا وكيع ، قال : حدثنا مسعر ، عن أبي العلاء العبدي ، عن يحيى بن جعدة ، عن أم هانئ ، قالت : " كنت أسمع قراءة النبي صلى الله عليه وسلم , بالليل وأنا على عريشي " .


Ummi Haani Radiyallahu 'Anha reports: "I heard Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam reciting (the Qur-aan in the Masjidul Haraam) at night, while I was on the rooftop of my house".

This will mean that Sayyidina Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam recited very clearly and with an audible tone, that I could hear it on the rooftop of my house. Normally at night due to quietness the voice travels quite a distance. On the rooftop which is open it could be heard better, especially when the house is near.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
৪৪. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) এর কিরাআত (باب ما جاء في قراءة رسول الله ﷺ) 44. The Recital Of Sayyidina Rasoolullah (pbuh)

পরিচ্ছেদঃ

রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম উষ্ট্রের উপর বসেও তিলাওয়াত করতেন:

২৪৪. আবদুল্লাহ ইবনে মুগাফফাল (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, মক্কা বিজয়ের দিন আমি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কে উষ্ট্রের উপর বসা অবস্থায় পড়তে শুনেছিঃ

إِنَّا فَتَحْنَا لَكَ فَتْحًا مُبِينًا - لِيَغْفِرَ لَكَ اللَّهُ مَا تَقَدَّمَ مِنْ ذَنْبِكَ وَمَا تَأَخَّرَ

অর্থাৎ নিশ্চয় আমি আপনার জন্য এমন একটা ফায়সালা করে দিয়েছি, যা সুস্পষ্ট। যাতে আল্লাহ আপনার অতীত ও ভবিষ্যৎ ত্রুটিসমূহ মার্জনা করে দেন এবং আপনার প্রতি তাঁর নিয়ামত পূর্ণ করেন।[1] রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তা তারজী করে পড়ছিলেন।

মুআবিয়া ইবনে কুররা বলেন, আমি যদি আমার কাছে লোক জড়ো হওয়ার আশংকা না করতাম, তাহলে আমি সেরূপ স্বরে তোমাদেরকে শুনাতাম। বর্ণনাকারী الصَّوْتِ কিংবা اللَّحْنِ শব্দ ব্যবহার করেছেন।[2]

حَدَّثَنَا مَحْمُودُ بْنُ غَيْلانَ ، قَالَ : حَدَّثَنَا أَبُو دَاوُدَ ، قَالَ : حَدَّثَنَا شُعْبَةُ ، عَنْ مُعَاوِيَةَ بْنِ قُرَّةَ ، قَالَ : سَمِعْتُ عَبْدَ اللَّهِ بْنَ مُغَفَّلٍ , يَقُولُ : " رَأَيْتُ النَّبِيَّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ , عَلَى نَاقَتِهِ يَوْمَ الْفَتْحِ , وَهُوَ يَقْرَأُ : إِنَّا فَتَحْنَا لَكَ فَتْحًا مُبِينًا - لِيَغْفِرَ لَكَ اللَّهُ مَا تَقَدَّمَ مِنْ ذَنْبِكَ وَمَا تَأَخَّرَ ، قَالَ : " فَقَرَأَ وَرَجَّعَ " ، قَالَ : وَقَالَ مُعَاوِيَةُ بْنُ قُرَّةَ : لَوْلا أَنْ يَجْتَمِعَ النَّاسُ عَلَيَّ لأَخَذْتُ لَكُمْ فِي ذَلِكَ الصَّوْتِ " أَوْ قَالَ : اللَّحْنِ .

حدثنا محمود بن غيلان ، قال : حدثنا أبو داود ، قال : حدثنا شعبة ، عن معاوية بن قرة ، قال : سمعت عبد الله بن مغفل , يقول : " رأيت النبي صلى الله عليه وسلم , على ناقته يوم الفتح , وهو يقرأ : إنا فتحنا لك فتحا مبينا - ليغفر لك الله ما تقدم من ذنبك وما تأخر ، قال : " فقرأ ورجع " ، قال : وقال معاوية بن قرة : لولا أن يجتمع الناس علي لأخذت لكم في ذلك الصوت " أو قال : اللحن .


'Abdullah bin Mughaffal Radiyallahu 'Anhu says: "I saw Rasulullah Sallallahu'Alayhi Wasallam riding his camel on the day when Makkah was conquered, he was reciting:

"Lo! We have given thee (O Muhammad) a signal victory, That Allah may forgive thee of thy sin that which is past and that which is to come, .. ."-Surah Fath: 1-2

He says: "He read it and repeated it". Mu'aawiyah bin Qurrah Radiyallahu 'Anhu (who is a narrator in the chain of this hadith) says: ''If I did not fear the people would surround me, I should have recited it in the same tone''.

According to the 'Arabic language tar-jee' means to return or repeat. It means that the sound is repeated. The tafseer (commentary) of it is related by Sayyidina 'Abdullah bin Mughaffal Radiyallahu 'Anhu himself as Aa-Aa. Some of the 'ulama state this means to clear the voice and recite. Sayyidina Rasulullah Sallallhu 'Alayhi Wasallam was very happy on the conquest of Makkah, and it becoming Darrul Islaam, therefore he was reciting with enjoyment. The research of my late father -May Allah fill his grave with nur-is that since Sayyidina Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam was sitting on a camel, its walking and moving made it seem that the sound was being repeated. For this reason Sayyidina 'Abdullah bin Mughaffal Radiyallahu 'Anhu explained is as Aa-Aa and Sayyidina Mu'aawiyah Radiyallahu 'Anhu did not attempt to demonstrate it, because he feared people would begin gathering around him. According to this explanation it will not contradict the following hadith. This humble servant prefers this explanation, because according to the first explanation it will mean to recite clearly and with a good melodious voice, then what fear shall there be of people gathering around. It is necessary to recite the Qur-aan correctly, wherein there is no singing tune. In many ahaadith under diffrent headings it has been stressed that the Qur-aan must be recited with tarteel and a good intonation. I have compiled some of these ahaadith in my kitaab 'Chehl Hadith;. Those who are interested may read it.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
৪৪. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) এর কিরাআত (باب ما جاء في قراءة رسول الله ﷺ) 44. The Recital Of Sayyidina Rasoolullah (pbuh)

পরিচ্ছেদঃ

রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম গানের সূরে তিলাওয়াত করতেন না:

২৪৫. কাতাদা থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, আল্লাহ তা’আলা প্রত্যেক নবীকেই সুন্দর চেহারা ও সুন্দর কণ্ঠস্বর দিয়ে প্রেরণ করেছেন। তোমাদের নবী মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-ও সুন্দর চেহারা ও সুন্দর স্বরের অধিকারী ছিলেন। তবে তিনি গানের সুরে তিলাওয়াত করতেন না।

حَدَّثَنَا قُتَيْبَةُ بْنُ سَعِيدٍ ، قَالَ : حَدَّثَنَا نُوحُ بْنُ قَيْسٍ الْحُدَّانِيُّ ، عَنْ حُسَامِ بْنِ مِصَكٍّ ، عَنْ قَتَادَةَ ، قَالَ : " مَا بَعَثَ اللَّهُ نَبِيًّا إِلا حَسَنَ الْوَجْهِ ، حَسَنَ الصَّوْتِ ، وَكَانَ نَبِيُّكُمْ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ حَسَنَ الْوَجْهِ ، حَسَنَ الصَّوْتِ ، وَكَانَ لا يُرَجِّعُ " .

حدثنا قتيبة بن سعيد ، قال : حدثنا نوح بن قيس الحداني ، عن حسام بن مصك ، عن قتادة ، قال : " ما بعث الله نبيا إلا حسن الوجه ، حسن الصوت ، وكان نبيكم صلى الله عليه وسلم حسن الوجه ، حسن الصوت ، وكان لا يرجع " .


Qataadah narrates that Allah gave to every Nabi that He had sent a beautiful feature and beautiful voice. Your Nabi Sallallahu 'Alayhi Wasallam also had a beautiful feature and a beautiful voice. Rasulullah Sallallhu 'Alayhi Wasallam did not recite in a melodious tone as singers do.

Apparently this hadith seems to contradict the previous one, explained in the commentary of the previous hadith. It means that he did not repeat the sound whilst reciting. Some of the 'ulama take this to mean as singing and reciting, and that it has been prohibited in many ahaadith to recite with a singing tone.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
৪৪. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) এর কিরাআত (باب ما جاء في قراءة رسول الله ﷺ) 44. The Recital Of Sayyidina Rasoolullah (pbuh)

পরিচ্ছেদঃ

রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর তিলাওয়াত বারান্দা থেকে শুনা যেত:

২৪৬. ইবনে আব্বাস (রাঃ) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর কিরাআত এমন হতো যে, তিনি যখন তাঁর ঘরে বসে পড়তেন, তখন বারান্দা থেকে তা শুনা যেত।[1]

حَدَّثَنَا عَبْدُ اللَّهِ بْنُ عَبْدِ الرَّحْمَنِ ، قَالَ : حَدَّثَنَا يَحْيَى بْنُ حَسَّانَ ، قَالَ : حَدَّثَنَا عَبْدُ الرَّحْمَنِ بْنُ أَبِي الزِّنَادِ ، عَنْ عَمْرِو بْنِ أَبِي عَمْرٍو ، عَنْ عِكْرِمَةَ ، عَنِ ابْنِ عَبَّاسٍ ، قَالَ : " كَانَتْ قِرَاءَةُ النَّبِيِّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ , رُبَّمَا يَسْمَعُهَا مَنْ فِي الْحُجْرَةِ وَهُوَ فِي الْبَيْتِ " .

حدثنا عبد الله بن عبد الرحمن ، قال : حدثنا يحيى بن حسان ، قال : حدثنا عبد الرحمن بن أبي الزناد ، عن عمرو بن أبي عمرو ، عن عكرمة ، عن ابن عباس ، قال : " كانت قراءة النبي صلى الله عليه وسلم , ربما يسمعها من في الحجرة وهو في البيت " .


Ibn 'Abbaas Radiyallahu 'Anhu says: "Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam raised his voice only to the extent, that it might have been possible that if he recited in the house, those in the courtyard might be able to listen".

The voice did not reach beyond the courtyard. The reciting of the Qur-aan softly and audibly are both better according to the circumstances. On a correct and suitable occasion, or where for a reason it is desirable to recite audibly, there one should recite audibly. If there exists a fear that it will create show etc., there one should recite softly. The object is that according to circumstances it keeps changing, therefore, Sayyidina Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam has said the one that recites the Qur-aan audibly is like the one that openly gives sadaqah, and the one who recites softly is like the one who gives sadaqah secretly. Concerning sadaqah, at times it is better to openly reveal the giving of it and at times it is better to conceal it. Circumstances should be taken into consideration, which change from time to time. This rule applies to the reciting of the Quraan also.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
৪৪. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) এর কিরাআত (باب ما جاء في قراءة رسول الله ﷺ) 44. The Recital Of Sayyidina Rasoolullah (pbuh)
দেখানো হচ্ছেঃ থেকে ৭ পর্যন্ত, সর্বমোট ৭ টি রেকর্ডের মধ্য থেকে