সহীহ শামায়েলে তিরমিযী ৫৬. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) কে স্বপ্নযোগে দর্শন (باب ما جاء فى رؤية رسول الله ﷺ)

পরিচ্ছেদঃ

স্বপ্ন এমন কিছু কল্পনা, যা আল্লাহ তা’আলা ঘুমন্ত অবস্থায় মানুষের অন্তরে সৃষ্টি করে দেন। অথবা ফেরেশতার মাধ্যমে কল্পনার উদ্রেক করান। আবার কখনো শয়তানের মাধ্যমে কল্পনার উদ্রেক হয় তাকে স্বপ্ন বলে। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, স্বপ্ন তিন প্রকার- ১. ভালো স্বপ্ন তা আল্লাহর পক্ষ থেকে শুভ সংবাদ। ২. ভীতিকর স্বপ্ন যা শয়তানের প্রভাবে মানুষ দেখে। ৩. ঐ সমস্ত ধারণা, যা মানুষ জাগ্রত অবস্থায় করে থাকে ঘুমের ঘোরে তার পুনরাবৃত্তি ঘটে।


যে নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কে স্বপ্নে দেখল যে বাস্তবেই নবীকে দেখল:

৩১৩. আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ (রাঃ) থেকে বর্ণিত। রাসূলুল্লাহ বলেন, যে ব্যক্তি আমাকে স্বপ্নে দেখল, সে যেন আমাকেই দেখল। কারণ, শয়তান আমার আকৃতি ধারণ করতে পারে না।[1]

حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ بَشَّارٍ ، قَالَ : حَدَّثَنَا عَبْدُ الرَّحْمَنِ بْنُ مَهْدِيٍّ ، قَالَ : حَدَّثَنَا سُفْيَانُ ، عَنْ أَبِي إِسْحَاقَ ، عَنْ أَبِي الأَحْوَصِ ، عَنْ عَبْدِ اللَّهِ بْنِ مَسْعُودٍ ، عَنِ النَّبِيِّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ ، قَالَ : " مَنْ رَآنِي فِي الْمَنَامِ فَقَدْ رَآنِي فَإِنَّ الشَّيْطَانَ لا يَتَمَثَّلُ بِي " .

حدثنا محمد بن بشار ، قال : حدثنا عبد الرحمن بن مهدي ، قال : حدثنا سفيان ، عن أبي إسحاق ، عن أبي الأحوص ، عن عبد الله بن مسعود ، عن النبي صلى الله عليه وسلم ، قال : " من رآني في المنام فقد رآني فإن الشيطان لا يتمثل بي " .


'Abdullah bin Mas'ud Radiyallahu 'Anhu reports that Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam said: "The one that has seen me in one's dream, has really seen me, as the shaytaan cannot impersonate me".

রাসূলুল্লাহ (সাঃ) জাগ্রত অবস্থায় যেমন শয়তানের প্রভাব থেকে মুক্ত, তেমনিভাবে ঘুমন্ত অবস্থাতেও তিনি শয়তানের প্রভাব থেকে মুক্ত। এমনকি তাঁর সুরতও শয়তানের প্রভাব থেকে সংরক্ষিত।


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
৫৬. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) কে স্বপ্নযোগে দর্শন (باب ما جاء فى رؤية رسول الله ﷺ) 56. The Seeing Of Rasoolullah In a Dream

পরিচ্ছেদঃ

শয়তান রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর রূপ ধারণ করতে পারে না:

৩১৪. আবু হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, যে ব্যক্তি আমাকে স্বপ্নে দেখল, সে যেন আমাকেই দেখল। কারণ, শয়তান আমার স্বরূপ ধারণ করতে পারে না।[1]

دَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ بَشَّارٍ ، وَمُحَمَّدُ بْنُ الْمُثَنَّى ، قَالا : حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ جَعْفَرٍ ، قَالَ : حَدَّثَنَا شُعْبَةُ ، عَنْ أَبِي حُصَينٍ ، عَنْ أَبِي صَالِحٍ ، عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ ، قَالَ : قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ : " مَنْ رَآنِي فِي الْمَنَامِ فَقَدْ رَآنِي , فَإِنَّ الشَّيْطَانَ لا يَتَصَوَّرُ " أَوْ قَالَ : " لا يَتَشَبَّهُ بِي " .

دثنا محمد بن بشار ، ومحمد بن المثنى ، قالا : حدثنا محمد بن جعفر ، قال : حدثنا شعبة ، عن أبي حصين ، عن أبي صالح ، عن أبي هريرة ، قال : قال رسول الله صلى الله عليه وسلم : " من رآني في المنام فقد رآني , فإن الشيطان لا يتصور " أو قال : " لا يتشبه بي " .


Abu Hurayrah Radiyallahu 'Anhu reports that Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam said: "The one who sees me in one's dream, has actually seen me, because the shaytaan cannot imitate my person".

The manner in which Allah Ta'aala has protected Sayyidina Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam from the shaytaan during his life time, in the same manner, after his death the shaytaan has not been.given the power to impersonate Sayyidina Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam. This is a decided fact. Now the question may arise that is the original form of Sayyidina Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam seen?, that is, does the one who sees him obtain such strength that one will see him in his actual form, or does one see only his image. For example, if a person is sitting a little away from a mirror, another person who is also at a distance can see the image of the person in the mirror, but due to some obstruction cannot see the actual person. The sufis opine that Sayyidina Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam is seen both ways. Some people actually see Sayyidina Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam and some see his image, like the one described of the mirror. For this reason at times Sayyidina Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam is seen in the form of others, as if that person is a mirror of Sayyidina Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
৫৬. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) কে স্বপ্নযোগে দর্শন (باب ما جاء فى رؤية رسول الله ﷺ) 56. The Seeing Of Rasoolullah In a Dream

পরিচ্ছেদঃ

৩১৫. আবু হুরায়রা (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, যে ব্যক্তি আমাকে স্বপ্নে দেখল, সে যেন আমাকেই দেখল। কারণ শয়তান আমার আকৃতি ধারণ করতে পারে না।

(আসিম বর্ণনা করেন) আমার পিতা কুলায়ব বলেন, আমি এ হাদীস ইবনে আব্বাস (রাঃ)-এর নিকট বর্ণনা করলাম এবং বললাম, আমি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-কে স্বপ্নে দেখেছি। তখন হাসান ইবনে আলী (রাঃ) এর কথা আমার স্মরণ হলে আমি বললাম, স্বপ্নের আকৃতিকে হাসানের আকৃতির সাথে অধিক সাদৃশ্যপূর্ণ পেলাম। ইবনে আব্বাস (রাঃ) বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তাঁর সাদৃশই ছিলেন।[1]

حَدَّثَنَا قُتَيْبَةُ هُوَ ابْنُ سَعِيدٍ ، قَالَ : حَدَّثَنَا عَبْدُ الْوَاحِدِ بْنُ زِيَادٍ ، عَنْ عَاصِمِ بْنِ كُلَيْبٍ ، قَالَ : حَدَّثَنِي أَبِي ، أَنَّهُ سَمِعَ أَبَا هُرَيْرَةَ , يَقُولُ : قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ : " مَنْ رَآنِي فِي الْمَنَامِ فَقَدْ رَآنِي , فَإِنَّ الشَّيْطَانَ لا يَتَمَثَّلُنِي " ، قَالَ أَبِي : فَحَدَّثْتُ بِهِ ابْنَ عَبَّاسٍ ، فَقُلْتُ : قَدْ رَأَيْتُهُ ، فَذَكَرْتُ الْحَسَنَ بْنَ عَلِيٍّ , فَقُلْتُ : شَبَّهْتُهُ بِهِ ، فَقَالَ ابْنُ عَبَّاسٍ : " إِنَّهُ كَانَ يُشْبِهُهُ " .

حدثنا قتيبة هو ابن سعيد ، قال : حدثنا عبد الواحد بن زياد ، عن عاصم بن كليب ، قال : حدثني أبي ، أنه سمع أبا هريرة , يقول : قال رسول الله صلى الله عليه وسلم : " من رآني في المنام فقد رآني , فإن الشيطان لا يتمثلني " ، قال أبي : فحدثت به ابن عباس ، فقلت : قد رأيته ، فذكرت الحسن بن علي , فقلت : شبهته به ، فقال ابن عباس : " إنه كان يشبهه " .


Kulayb bin Shihaab Al-Kufi says that Abu Hurayrah Radiyallahu 'Anhu narrated to me the mubaarak saying of Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam, that whomsoever sees me in a dream, has really seen me, because the shaytaan cannot impersonate me. Kulayb says, I mentioned this hadith to Ibn 'Abbaas Radiyallahu 'Anhu and also told him that I was blessed with the seeing of Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam in my dream. At that moment I thought of Hasan bin 'Ali Radiyallahu 'Anhu. I said to Ibn 'Abbaas Radiyallahu 'Anhu that I found the image in my dream very similar to that of Hasan Radiyallahu 'Anhu. Ibn 'Abbaas Radiyallahu 'Anhu verified my statement, that truly Hasan Radiyallahu 'Anhu was very similar to Rasulullah
Sallallahu 'Alayhi Wasallam in appearance.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
৫৬. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) কে স্বপ্নযোগে দর্শন (باب ما جاء فى رؤية رسول الله ﷺ) 56. The Seeing Of Rasoolullah In a Dream

পরিচ্ছেদঃ

৩১৬. ইয়াযীদ আল ফারিসী থেকে বর্ণিত। ইয়াযী, যিনি কুরআন লিখতেন। তিনি বলেন, আমি একবার রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কে স্বপ্নে দেখলাম। ইবনে আব্বাস (রাঃ) তখনও জীবিত ছিলেন। আমি ইবনে আব্বাস (রাঃ)-কে বললাম, আমি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কে স্বপ্নে দেখেছি। ইবনে আব্বাস (রাঃ) বললেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলতেন, শয়তান আমার আকৃতি ধারণ করতে সক্ষম নয়। যে আমাকে স্বপ্নে দেখে, সে প্রকৃতপক্ষেই আমাকেই দেখে। [ইবনে আব্বাস (রাঃ) বললেন], তুমি যাকে স্বপ্নে দেখছ তাঁর কিছু বিবরণ দিতে পার? আমি বললা, হ্যাঁ। তাঁর দেহাকৃতি মধ্যম আকারের, গায়ের রং গৌর, তাতে সাদা অংশ বেশী। সুরমা মাখা চোখ, প্রফুল্ল মুখ, হাস্যোজ্জল চেহারা, মুখভর্তি দাড়ি যা বুক পর্যন্ত পরিপূর্ণ ছিল। ইবনে আব্বাস (রাঃ) বললেন, তুমি যদি জাগ্রত অবস্থায় তাঁকে দেখতে, তাহলেও এর চেয়ে বেশী বলতে সক্ষম হতে না।[1]

حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ بَشَّارٍ ، قَالَ : حَدَّثَنَا ابْنُ أَبِي عَدِيٍّ ، وَمُحَمَّدُ بْنُ جَعْفَرٍ ، قَالا : حَدَّثَنَا عَوْفُ بْنُ أَبِي جَمِيلَةَ ، عَنْ يَزِيدَ الْفَارِسِيِّ وَكَانَ يَكْتُبُ الْمَصَاحِفَ ، قَالَ : رَأَيْتُ النَّبِيَّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ فِي الْمَنَامِ زَمَنَ ابْنِ عَبَّاسٍ ، قَالَ : فَقُلْتُ لابْنِ عَبَّاسٍ : إِنِّي رَأَيْتُ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ فِي النَّوْمِ ، فَقَالَ ابْنُ عَبَّاسٍ : إِنَّ رَسُولَ اللَّهِ كَانَ , يَقُولُ : " إِنَّ الشَّيْطَانَ لا يَسْتَطِيعُ أَنْ يَتَشَبَّهَ بِي ، فَمَنْ رَآنِي فِي النَّوْمِ فَقَدْ رَآنِي " ، هَلْ تَسْتَطِيعُ أَنْ تَنْعَتَ هَذَا الرَّجُلَ الَّذِي رَأَيْتَهُ فِي النَّوْمِ ؟ قَالَ : نَعَمْ ، أَنْعَتُ لَكَ رَجُلا بَيْنَ الرَّجُلَيْنِ ، جِسْمُهُ وَلَحْمُهُ أَسْمَرُ إِلَى الْبَيَاضِ ، أَكْحَلُ الْعَيْنَيْنِ ، حَسَنُ الضَّحِكِ ، جَمِيلُ دَوَائِرِ الْوَجْهِ ، مَلأَتْ لِحْيَتُهُ مَا بَيْنَ هَذِهِ إِلَى هَذِهِ ، قَدْ مَلأَتْ نَحْرَهُ ، قَالَ عَوْفٌ : وَلا أَدْرِي مَا كَانَ مَعَ هَذَا النَّعْتِ , فَقَالَ ابْنُ عَبَّاسٍ : لَوْ رَأَيْتَهُ فِي الْيَقَظَةِ مَا اسْتَطَعْتَ أَنْ تَنْعَتَهُ فَوْقَ هَذَا

حدثنا محمد بن بشار ، قال : حدثنا ابن أبي عدي ، ومحمد بن جعفر ، قالا : حدثنا عوف بن أبي جميلة ، عن يزيد الفارسي وكان يكتب المصاحف ، قال : رأيت النبي صلى الله عليه وسلم في المنام زمن ابن عباس ، قال : فقلت لابن عباس : إني رأيت رسول الله صلى الله عليه وسلم في النوم ، فقال ابن عباس : إن رسول الله كان , يقول : " إن الشيطان لا يستطيع أن يتشبه بي ، فمن رآني في النوم فقد رآني " ، هل تستطيع أن تنعت هذا الرجل الذي رأيته في النوم ؟ قال : نعم ، أنعت لك رجلا بين الرجلين ، جسمه ولحمه أسمر إلى البياض ، أكحل العينين ، حسن الضحك ، جميل دوائر الوجه ، ملأت لحيته ما بين هذه إلى هذه ، قد ملأت نحره ، قال عوف : ولا أدري ما كان مع هذا النعت , فقال ابن عباس : لو رأيته في اليقظة ما استطعت أن تنعته فوق هذا


Yazeed Al Faarisi bin Hurmuz, who was a calligrapher of the Qur-aan, once saw Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam in his dream during the time of Ibn 'Abbaas Radiyallahu 'Anhu. He related his dream to Ibn 'Abbaas. Ibn 'Abbaas said: "Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam used to say that the shaytaan cannot imitate him. That person who has seen him in a dream has really seen him'. After mentioning this he asked: 'Can you describe this person whom you have seen in your dream?'. I replied: 'Yes, I can, I will describe to you a man whose body and height were of a medium stature. He had a wheat-coloured complexion with a bit of whiteness in it. Eyes like
those that had kuhl on them. A smiling face. Beautiful and round face. A compact beard which surrounded his mubaarak face, and spread on the foreportion of the chest". 'Awf ibn Abl Jamilah, a narrator of this hadith says: "I do not remember what other feature besides these, my ustaadh
Yazeed, who is a narrator of this hadith, described". Ibn 'Abbaas Radiyallahu 'Anhu said.. "If you had seen him while being awake, you would not have been able to describe him any further".

As this has been mentioned at the beginning of the book, here too the noble features of Sayyidina Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam have been described in the same manner.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
৫৬. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) কে স্বপ্নযোগে দর্শন (باب ما جاء فى رؤية رسول الله ﷺ) 56. The Seeing Of Rasoolullah In a Dream

পরিচ্ছেদঃ

৩১৭. আবু কাতাদা (রাঃ) বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, যে ব্যক্তি ঘুমের মধ্যে আমাকে দেখল, সে সত্যকেই দেখল। অর্থ্যাৎ সে আমাকেই দেখল।[1]

حَدَّثَنَا عَبْدُ اللَّهِ بْنُ أَبِي زِيَادٍ ، قَالَ : حَدَّثَنَا يَعْقُوبُ بْنُ إِبْرَاهِيمَ بْنِ سَعْدٍ ، قَالَ : حَدَّثَنَا ابْنُ أَخِي ابْنِ شِهَابٍ الزُّهْرِيُّ ، عَنْ عَمِّهِ ، قَالَ : قَالَ أَبُو سَلَمَةَ : قَالَ أَبُو قَتَادَةَ : قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ : " مَنْ رَآنِي , يَعْنِي فِي النَّوْمِ , فَقَدْ رَأَى الْحَقَّ " .

حدثنا عبد الله بن أبي زياد ، قال : حدثنا يعقوب بن إبراهيم بن سعد ، قال : حدثنا ابن أخي ابن شهاب الزهري ، عن عمه ، قال : قال أبو سلمة : قال أبو قتادة : قال رسول الله صلى الله عليه وسلم : " من رآني , يعني في النوم , فقد رأى الحق " .


Abu Qataadah Radiyallahu 'Anhu reports that Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam said: "Whomsoever sees me, that is, in a dream, has seen that which is a fact".

Meaning one has really seen me. It cannot be so that the shaytaan shows something else and says that it is Sayyidina Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam. Some of the 'ulama have written that it means, it is a true dream and not a collection of thoughts.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
৫৬. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) কে স্বপ্নযোগে দর্শন (باب ما جاء فى رؤية رسول الله ﷺ) 56. The Seeing Of Rasoolullah In a Dream

পরিচ্ছেদঃ

মুমিনের সত্য স্বপ্ন নবুওয়াতের ৪৬ ভাগের ১ ভাগ:

৩১৮. আনাস (রাঃ) থেকে বর্ণিত। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, যে ব্যক্তি ঘুমের অবস্থায় আমাকে দেখল, সে আমাকেই দেখল। কারণ শয়তান আমার আকৃতি ধারণ করতে পারে না। তিনি আরো বলেন, মুমিনের সত্য স্বপ্ন নবুওয়াতে ৪৬ ভাগের এক ভাগ।[1]

عَنْ أَنَسٍ : أَنَّ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ ، قَالَ : " مَنْ رَآنِي فِي الْمَنَامِ فَقَدْ رَآنِي ، فَإِنَّ الشَّيْطَانَ لا يَتَخَيَّلُ بِي " .
وَقَالَ : " وَرُؤْيَا الْمُؤْمِنِ جُزْءٌ مِنْ سِتَّةٍ وَأَرْبَعِينَ جُزْءًا مِنَ النُّبُوَّةِ " .

عن أنس : أن رسول الله صلى الله عليه وسلم ، قال : " من رآني في المنام فقد رآني ، فإن الشيطان لا يتخيل بي " . وقال : " ورؤيا المؤمن جزء من ستة وأربعين جزءا من النبوة " .


Anas Radiyallahu 'Anhu reports that Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam said: "The one who sees me in a dream has really seen me, because the shaytaan cannot impersonate me". He also said: "A dream of a Muslim (conveyed through an angel) is a portion from the forty six portions of nubuwwah".

এখানে স্বপ্ন দ্বারা উদ্দেশ্য হলো নেককার মুমিন-মুমিনার স্বপ্ন। সুতরাং কাফির ও ফাসিকের স্বপ্ন নবুওয়াতের অংশ নয়। নবুওয়াতের অংশ বলতে ইলমে নবুওয়াতের অংশ বুঝানো হয়েছে।


The 'ulama have adopted different headings to its meaning. Haafizul Hadith Ibn Hajar has written a very lengthy treatise in his commentary on Bukhaari, wherein he has mentioned the sayings of many 'ulama. The author of Tabreez has also written in detail on this subject. Mulla 'Ali Qaari and others have written that this is the best, because it is said to be part of the 'ilmi nubuwwah (knowledge of prophethood), and the 'ulum of nubuwwah is particular only to the ambiyaa, therefore, it should be regarded as something special only to them. In brief, it is sufficient to know that a good and blessed dream is a great glad tiding and a portion from the portions of nubuwwah. This is enough for his nobility, greatness and blessedness. Only a nabi can know correctly if it is a forty sixth part of nubuwwah, and he is the only one who can correctly understand how and what this forty sixth portion is.

The discussion of seeing Sayyidina Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam in a dream ends here. Imaam Tirmidhi ends his kitaab by including two athars, which in reality are advices and also an important warning. The first is that one should not guess and give a ruling. The basis of the deen should be in following Sayyidina Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam, and therefore in every verdict, Sayyidina Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam should be obeyed and followed. The second is that the verdict of any ordinary person should not be accepted, the irreligious are not worthy of being followed. In reality both advices are very important.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
৫৬. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) কে স্বপ্নযোগে দর্শন (باب ما جاء فى رؤية رسول الله ﷺ) 56. The Seeing Of Rasoolullah In a Dream

পরিচ্ছেদঃ

৩১৯. মুহাম্মদ ইবনে আলী বলেন, আমি আমার আব্বাকে বলতে শুনেছি,আব্দুল্লাহ ইবনুল মুবারক বলেছেনঃ তোমাকে যখন বিচারকের পদে অভিষিক্ত করা হয়, তখন রিওয়ায়াতের অনুসরণ করার চেষ্টা করো।[1]

حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ عَلِيٍّ ، قَالَ : سَمِعْتُ أَبِي ، يَقُولُ : قَالَ عَبْدُ اللَّهِ بْنُ الْمُبَارَكِ : " إِذَا ابْتُلِيتَ بِالْقَضَاءِ فَعَلَيْكَ بِالأَثَرِ " .

حدثنا محمد بن علي ، قال : سمعت أبي ، يقول : قال عبد الله بن المبارك : " إذا ابتليت بالقضاء فعليك بالأثر " .


'Abdullah bin Mubaarak said: ''If every one becomes a judge or arbirtrator, then always follow that which has been narrated''.

যেকোন বিষয়ের সমাধানের জন্য য়থাসম্ভব কুরআন হাদীস থেকে শুরু করে পর্যায়ক্রমে সাহাবা, তাবেঈন ও তাবে তাবেঈনদের বাণী ও জীবনাদর্শ থেকে সমাধান খুঁজতে হবে এবং তার অনুসরণ করতে হবে।


The object here is that one should not follow one's own view and completely rely on one's own way of thinking, but should follow the sayings of the pious predecessors and the Sahaabah Radiyallahu

'Anhum. This is the general advice of 'Abdullah bin Mubaarak. In respect of all verdicts, whether it refers to the verdicts of justice or otherwise, as has been mentioned. Imaam Tirmidhi has mentioned this as a general advice, this is the view of all the commentators of the Shamaa-il. According to this humble servant, this may have a special relation to this chapter, that the interpretation of a dream is also a verdict, therefore in this too one should not confuse others by giving one's own judgments, but should refer to the interpretation of the learned ones of the past.

Many interpretations of dreams have been related from Sayyidina Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam. The Sahaabah Radiyallahu 'Anhum and the Taabi'een. The 'ulama of the sciences of interpreting dreams have written, it is necessary for one who interprets dreams to be understanding, pious, cautious and have knowledge of the Qur-aan and Sunnah of Sayyidina Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam. One should also possess knowledge of the 'Arabic language and its related sciences. Many other conditions and aadaab have been stipulated in books on interpretations of dreams.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
৫৬. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) কে স্বপ্নযোগে দর্শন (باب ما جاء فى رؤية رسول الله ﷺ) 56. The Seeing Of Rasoolullah In a Dream

পরিচ্ছেদঃ

৩২০. ইবনে সীরীন (রাঃ) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, হাদীস শিক্ষা করা দীনের অন্তর্ভুক্ত। অতএব তা শিক্ষার আগে একটি বিচার্য বিষয় হলো, তুমি দেখে নাও যে, কার কাছ থেকে এ দীন শিক্ষা করছ।[1]


উপসংহার

রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর একটি উদাহরণ

জাবির ইবনে আবদুল্লাহ (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম নিদ্রিত ছিলেন, এমতাবস্থায় তাঁর নিকট কয়েকজন ফেরেশতা আগমন করলেন। তারা পরস্পরে বলাবলি করতে লাগলেন। কেউ বলল, তিনি নিদ্রিত, আর কেউ বলল, তাঁর চক্ষু নিদ্রিত, কিন্তু হৃদয় জাগ্রত। অতঃপর কয়েকজন বলল, তোমাদের এ সাথীর (নবী সা. এর) একটি উদাহরণ আছে। কেউ বলল, তাহলে সে উদাহরণটি বর্ণনা করুন। তাদের কেউ বলল, তিনি তো নিদ্রিত, আবার কেউ বলল, তার চক্ষু নিদ্রিত কিন্তু অন্তর জাগ্রত। অতঃপর তারা বলল, তার উদাহরণ হচ্ছে ঐ ব্যক্তির ন্যায়, যে একটি গৃহ নিৰ্মাণ করল। অতঃপর সেখানে যিয়াফাতের আয়োজন করল। আর একজন আহবানকারী প্রেরণ করল, অতঃপর যে সে আহবানকারীর দাওয়াত গ্রহণ করে উপস্থিত হলো, সে গৃহে প্রবেশ করে যিয়াফাতের খানা খেয়ে নিল। আর যে দাওয়াত গ্রহণ করল না সে গৃহেও প্রবেশ করতে পারল না, খেতেও পারল না। তারা বলল, এ উদাহরণের ব্যাখ্যা খুলে বলুন, যেন তিনি বুঝতে পারেন। কেউ বলল, তিনি তো নিদ্রায় মগ্ন আছেন (কীভাবে বুঝবেন)। আবার কেউ বলল, তার শুধুমাত্র চক্ষুই নিদ্রিত, অন্তর জাগ্রত আছে। তারপর তারা ব্যাখ্যা করে বলল, গৃহ মানে জান্নাত, আর আহবানকারী হলেন মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম। তাই যে ব্যক্তি মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর অনুসরণ করল সে যেন আল্লাহর আনুগত্য করল। আর যে ব্যক্তি মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-কে অমান্য করল, বস্তুত সে আল্লাহকেই অমান্য করল। (সহীহ বুখারী, হা/৭২৮১)

حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ عَلِيٍّ ، قَالَ : حَدَّثَنَا النَّضْرُ بْنُ شُمَيْلٍ ، قَالَ : أَنْبَأَنَا ابْنُ عَوْنٍ ، عَنِ ابْنِ سِيرِينَ ، قَالَ : " هَذَا الْحَدِيثُ دِينٌ ، فَانْظُرُوا عَمَّنْ تَأَخُذُونَ دِينَكُمْ " .

حدثنا محمد بن علي ، قال : حدثنا النضر بن شميل ، قال : أنبأنا ابن عون ، عن ابن سيرين ، قال : " هذا الحديث دين ، فانظروا عمن تأخذون دينكم " .


Ibn Seereen says: "The knowledge of hadith (in the same manner all other religious subjects) are included in the deen. Therefore before acquiring knowledge, be aware from whom knowledge is acquired".

দ্বীনের কোন কিছু গ্রহণ করার ক্ষেত্রে অবশ্যই লক্ষ্য রাখতে হবে যে, কার থেকে এই দীনী বিষয় গ্রহণ করা হচ্ছে। ফাসেক ফুজ্জার বা বিদআতীর কাছ থেকে দ্বীনের নামে বদ দ্বীনী যেন গ্রহণ করা না হয়।

ইমাম তিরমিয়ী (রহঃ) বিখ্যাত দু’জন মুহাদ্দিসের দুটি গুরুত্বপূর্ণ উক্তির দ্বারা কিতাব সমাপ্ত করেছেন।

প্রথম উক্তি আবদুল্লাহ ইবনে মুবারক (রহঃ) এর। ইবনুল মুবারাক বলেন, বিচার ও ফায়সালার ক্ষেত্রে নিজের রায় ও মতের উপর নির্ভর করবে না; হাদীস, সাহাবী বরং তাবিয়ীদের উক্তির অনুসরণ করবে। এটি একটি সাধারণ উপদেশ হিসেবে গণ্য করা যেতে পারে। আবার স্বপ্নের অনুচ্ছেদের সাথেও একে সম্পৃক্ততাও করা যেতে পারে। অর্থাৎ স্বপ্নের ব্যাখ্যাও এক ধরনের বিচার। তাই স্বপ্নের ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে যা মন চায়, তা বলে দেয়া ঠিক হবে না; বরং পূর্বসূরীদের ব্যাখ্যার আলোকে ব্যাখ্যা করা উচিত।

মুহাম্মাদ ইবনে সীরীন (রহঃ) ছিলেন একজন বিখ্যাত তাবিয়ী এবং তা’বীর শাস্ত্র তথা স্বপ্নের ব্যাখ্যায় তিনি ছিলেন প্রসিদ্ধ। তার এ উক্তির উদ্দেশ্য হলো, ইলমে হাদীস দ্বীনের অন্তর্ভুক্ত বিষয়। আর দ্বীন অতি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

কেননা এর উপর মানুষের নীতি-আদর্শ নির্ভর করে। কারো দীন সঠিক না হলে তার পরকালে ক্ষতিগ্রস্ত হবে। অতএব, দীন গ্রহণ করার পূর্বে লক্ষ্য করতে হবে, যার নিকট থেকে দীন গ্রহণ করা হচ্ছে, তিনি মুত্তাকী এবং হক্বপন্থী কি না? যে কারো থেকে দীন গ্রহণ করা ঝুঁকিপূর্ণ। কারণ উস্তাদের আকীদা, আমল ও আখলাকের প্রভাব ছাত্রের উপর পড়াটা স্বাভাবিক।


Ibn Seereen was also an Imaam of his time and is a famous Taabi-ee. He acquired 'ilm from many of the Sahaabah Radiyallahu 'Anhum, and is regarded as the imaam in the art of interpreting dreams. His interpretations of dreams are a hujjah (testimony). The object of his advice is that prior to acquiring knowledge from a person, one should first thoroughly investigate the state of the person's piety, honesty religion and maslak (rule of conduct). One should not follow the sayings of every person, because the following of the sayings of an irreligious person has its effects. This has also been commanded by Sayyidina Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam in a few narrations. This is a general advice as mentioned in athar number one. This athar may also be relevant to the subject of interpreting dreams, as this subject is also important. When a good dream is a portion from the portions of nubuwwah, its importance can be understood. Therefore one should always be careful from whom one is seeking an interpretation of a dream. Is that person capable of interpreting a dream or not. It is for this reason that Imaam Tirmidhi has mentioned this athar here. This advice of Ibn Seereen is not particular or confined to the subject of dreams, but includes all other sciences. The more important the signs are, the more it becomes necessary to seek a competent and knowledgeable person. In our times which is close to the time of qiyaamah, a very dangerous and detrimental element has appeared. That every person, however unlearned or irreligious, after delivering a short inspiring lecture, or writing an article on a aspect of the deen, begins to be considered an 'allaamah or an 'aalim, and by donning coloured clothing begins to be regarded as a sufi, hence people ignorantly begin to follow such a person. In the beginning the general public due to some misunderstanding begin following such a person, and because of their ignorance they are caught in their web. This is because of a general misunderstanding, which has entered the hearts of the public, that 'See what is said and not who has said it'. Although this saying is true, it is for those who understand and differentiate, that which is being said, is it a fact or is it false? Those who cannot differentiate should not follow the sayings of every person they come across, as this will result in a bad and detrimental ending. It is for this reason that in these times, if one claims to be a saint, imaam, or prophet, and Allah forbid, also that of being a God, one group always immediately begins to follow that person. And to Allah is our complaint, and He is the One that grants assistance.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
৫৬. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) কে স্বপ্নযোগে দর্শন (باب ما جاء فى رؤية رسول الله ﷺ) 56. The Seeing Of Rasoolullah In a Dream
দেখানো হচ্ছেঃ থেকে ৮ পর্যন্ত, সর্বমোট ৮ টি রেকর্ডের মধ্য থেকে