সহীহ শামায়েলে তিরমিযী ১. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) এর দৈহিক গঠন (باب ما جاء في خلق رسول الله ﷺ)

পরিচ্ছেদঃ

রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বেশী দীর্ঘ ছিলেন না, আবার বেশী খাটোও ছিলেন না:

১. আনাস ইবনে মালিক (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম খুব দীর্ঘ ছিলেন না আবার খাটোও ছিলেন না। তিনি ধবধবে সাদা কিংবা বাদামী বর্ণেরও ছিলেন না। তাঁর চুল একেবারে কোঁকড়ানো ছিল না, আবার একদম সোজাও ছিল না। ৪০ বছর বয়সে আল্লাহ তা’আলা তাকে নবুওয়াত দান করেন। এরপর মক্কায় ১০ বছর এবং মদিনায় ১০ বছর কাটান। আল্লাহ তা’আলা ৬০ বছর বয়সে তাঁকে ওফাত দান করেন। ওফাতকালে তাঁর মাথা ও দাড়ির ২০টি চুলও সাদা ছিল না।[1]

حَدَّثَنَا أَبُو رَجَاءٍ قُتَيْبَةُ بْنُ سَعِيدٍ ، عَنْ مَالِكِ بْنِ أَنَسٍ ، عَنْ رَبِيعَةَ بْنِ أَبِي عَبْدِ الرَّحْمَنِ ، عَنْ أَنَسِ بْنِ مَالِكٍ ، أَنَّهُ سَمِعَهُ , يَقُولُ : " كَانَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ , لَيْسَ بِالطَّوِيلِ الْبَائِنِ ، وَلَا بِالْقَصِيرِ ، وَلَا بِالأَبْيَضِ الأَمْهَقِ ، وَلَا بِالآدَمِ ، وَلَا بِالْجَعْدِ الْقَطَطِ ، وَلَا بِالسَّبْطِ ، بَعَثَهُ اللَّهُ تَعَالَى عَلَى رَأْسِ أَرْبَعِينَ سَنَةً ، فَأَقَامَ بِمَكَّةَ عَشْرَ سِنِينَ ، وَبِالْمَدِينَةِ عَشْرَ سِنِينَ ، وَتَوَفَّاهُ اللَّهُ تَعَالَى عَلَى رَأْسِ سِتِّينَ سَنَةً ، وَلَيْسَ فِي رَأْسِهِ وَلِحْيَتِهِ عِشْرُونَ شَعْرَةً بَيْضَاءَ " .

حدثنا أبو رجاء قتيبة بن سعيد ، عن مالك بن أنس ، عن ربيعة بن أبي عبد الرحمن ، عن أنس بن مالك ، أنه سمعه , يقول : " كان رسول الله صلى الله عليه وسلم , ليس بالطويل البائن ، ولا بالقصير ، ولا بالأبيض الأمهق ، ولا بالآدم ، ولا بالجعد القطط ، ولا بالسبط ، بعثه الله تعالى على رأس أربعين سنة ، فأقام بمكة عشر سنين ، وبالمدينة عشر سنين ، وتوفاه الله تعالى على رأس ستين سنة ، وليس في رأسه ولحيته عشرون شعرة بيضاء " .


Anas (Radiallahu Anhu) reports: "Rasulullah (Sallallahu alaihe wasallam) was neither tall nor was he short (like a dwarf--He was of medium stature). In complexion, he was he was neither very white like lime, nor very dark, nor brown which results in darkness (he was illuminant, more luminous than even the full-moon on the 14th night).
The hair of Rasullullah (Sallallahu alaihe wasallam) was neither very straight nor very curly (but slightly wavy). When he attained the age of forty, Allah the Almighty granted him nubuwwah (prophethood).He lived for ten years in Makkah (commentary) and in Madina for ten years. At that time there were not more than twenty white hair on his mubarak (blessed) head and beard." (This will be described in detail in the chapter on white hair of Rasulullah (Sallallahu alaihe wasallam).

রাসূলুল্লাহ (সাঃ) এর মাঝে যেমন উত্তম গুণাবলির সর্বাধিক সমাবেশ ঘটেছিল, তেমনি তাঁর দৈহিক সৌন্দর্যও ছিল অতুলনীয়। এ হাদীস থেকে বুঝা যায় যে, রাসূলুল্লাহ (সাঃ) বেমানান দীর্ঘকায় ছিলেন না। আবার অতি খাটোও ছিলেন না। বরং মাঝারি গড়নের চেয়ে একটু দীর্ঘ ছিলেন।

উল্লেখ্য যে, নবী (সাঃ) এর ইন্তেকাল হয়েছে ৬৩ বছর বয়সে। তিনি মক্কায় ১৩ বছর এবং মদিনায় ১০ বছর অতিবাহিত করেছেন। এ সংক্রান্ত হাদীসগুলো এ গ্রন্থের শেষের দিকে উল্লেখ করা হয়েছে। বর্ণিত হাদীসটিতে দশকের পরের সংখ্যা ৩ বাদ দিয়ে মক্কায় অবস্থানকাল ১০ বছর এবং নবী (সাঃ) এর মোট বয়স ৬০ উল্লেখ করা হয়েছে।


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
১. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) এর দৈহিক গঠন (باب ما جاء في خلق رسول الله ﷺ) 1. The Noble Features Of Rasoolullah (Sallallahu alaihe wasallam)

পরিচ্ছেদঃ রাসূলুল্লাহ (সাঃ) বেশী দীর্ঘ ছিলেন না, আবার বেশী খাটোও ছিলেন না

তিনি ছিলেন গৌরবর্ণের:

২. আনাস ইবনে মালিক (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম মধ্যমাকৃতির ছিলেন। বেশি লম্বা কিংবা বেশি খাটোও ছিলেন না। তাঁর দেহ ছিল খুব আকর্ষণীয়। আর তাঁর চুল বেশি কোঁকড়ানো কিংবা একেবারে সোজাও ছিল না। তিনি ছিলেন গৌরবর্ণের। পথ চলতে তিনি সামনের দিকে কিছুটা ঝুঁকে চলতেন।[1]

حَدَّثَنَا حُمَيْدُ بْنُ مَسْعَدَةَ الْبَصْرِيُّ ، قَالَ : حَدَّثَنَا عَبْدُ الْوَهَّابِ الثَّقَفِيُّ ، عَنْ حُمَيْدٍ ، عَنْ أَنَسِ بْنِ مَالِكٍ ، قَالَ : " كَانَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ رَبْعَةً ، لَيْسَ بِالطَّوِيلِ وَلا بِالْقَصِيرِ ، حَسَنَ الْجِسْمِ ، وَكَانَ شَعْرُهُ لَيْسَ بِجَعْدٍ , وَلا سَبْطٍ أَسْمَرَ اللَّوْنِ ، إِذَا مَشَى يَتَكَفَّأُ "

حدثنا حميد بن مسعدة البصري ، قال : حدثنا عبد الوهاب الثقفي ، عن حميد ، عن أنس بن مالك ، قال : " كان رسول الله صلى الله عليه وسلم ربعة ، ليس بالطويل ولا بالقصير ، حسن الجسم ، وكان شعره ليس بجعد , ولا سبط أسمر اللون ، إذا مشى يتكفأ "

THE NOBLE FEATURES OF RASULULLAH (SALLALLAHU ALAIHE WASALLAM)


Anas bin Malik (Radiallhu Anhu) reports, "Rasullullah (Sallallahu alaihe wasallam) was of a medium stature, he was neither very tall nor very short. He was very handsome, of medium built and his hair was neither very curly nor very straight (but was slightly wavy). He had a wheat-coloured complexion. When he walked, he leaned forward slightly".

COMMENTARY. In this hadeeth Sayyidina Anas (Radiallhu Anhu) states that the complexion of Rasullullah (Sallallahu alaihe wasallam) was wheat coloured. In the previous hadith, also narrated by Sayyidina Anas (Radiallahu Anhu), he states that Sayyidina Rasullullah (Sallallahu alaihe wasallam) did not have a wheat-coloured complexion. This has been mentioned in the translation of the hadeeth. Actually, what is derived from the two hadeeth is that Sayyidina Rasullullah (Sallallahu alaihe wasallam) was not of such a dark complexion that decrease the lightness and beauty of a person, but had a radiant and light colour, which slightly wheat-coloured. In this hadeeth the word `Yata-kaf-fa-oo' is used regarding the walking of Sayyidina Rasullullah (Sallallahu alaihe wasallam). The scholars interpret this word in several ways. Some say it means to walk at a fast pace. Some are of the opinion that it means to lean a bit forward while walking. Some say it means to lift the leg with force. All three explanations are correct because the walk of Sayyidina Rasullullah (Sallallahu alaihe wasallam) fulfilled all three descriptions and the word also conveys these three meanings. Sayyidina Rasullullah (Sallallahu alaihe wasallam) walked quickly and not like the Romeos of this age who walk like women. It was also the noble habit of Sayyidina Rasullullah (Sallallahu alaihe wasallam) to walk with slight forward inclination of the head and shoulders. He did not walk with chest pushed out with pride. He lifted his legs as men do while walking and did not drag his legs on the ground.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
১. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) এর দৈহিক গঠন (باب ما جاء في خلق رسول الله ﷺ) 1. The Noble Features Of Rasoolullah (Sallallahu alaihe wasallam)

পরিচ্ছেদঃ

তিনি ছিলেন মধ্যমাকৃতির:

৩. বারা ইবনে আযিব (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম মধ্যমাকৃতির ছিলেন। তাঁর দুই কাঁধের মধ্যবর্তী অংশ ছিল তুলনামূলক প্রশস্ত। তাঁর ঘন চুলগুলো কানের লতি পর্যন্ত লম্বা ছিল। তাঁর দেহে লাল লুঙ্গি ও লাল চাদর শোভা পেত। আমি তাঁর তুলনায় সুদর্শন কাউকে কখনো দেখিনি।[1]

حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ بَشَّارٍ ، قَالَ : حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ جَعْفَرٍ ، قَالَ : حَدَّثَنَا شُعْبَةُ ، عَنْ أَبِي إِسْحَاقَ ، قَالَ : سَمِعْتُ الْبَرَاءَ بْنَ عَازِبٍ , يَقُولُ : " كَانَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ , رَجُلا مَرْبُوعًا , بَعِيدَ مَا بَيْنَ الْمَنْكِبَيْنِ ، عَظِيمَ الْجُمَّةِ إِلَى شَحْمَةِ أُذُنَيْهِ الْيُسْرَى ، عَلَيْهِ حُلَّةٌ حَمْرَاءُ ، مَا رَأَيْتُ شَيْئًا قَطُّ أَحْسَنَ مِنْهُ " .

حدثنا محمد بن بشار ، قال : حدثنا محمد بن جعفر ، قال : حدثنا شعبة ، عن أبي إسحاق ، قال : سمعت البراء بن عازب , يقول : " كان رسول الله صلى الله عليه وسلم , رجلا مربوعا , بعيد ما بين المنكبين ، عظيم الجمة إلى شحمة أذنيه اليسرى ، عليه حلة حمراء ، ما رأيت شيئا قط أحسن منه " .


Baraa bin Aazib (Radiallahu anhu) relates that: "Rasullullah (Sallallahu alaihe wasallam) was a man of a medium build, (slightly tall, as explained before); he had broad shoulders (from which we may gather that he had a wide chest); he had dense hair which reached his ear-lobes; he wore a red striped lungi (a cloth worn around the legs) and shawl. I never saw anybody or anything more handsome than him".

এ হাদীসে লাল চাদর ও লুঙ্গি পরিধান করার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। অথচ রাসূলুল্লাহ (সাঃ) পুরুষের জন্যে লাল রংয়ের কাপড় পরিধান করতে নিষেধ করেছেন। এ বিরোধ সমাধানে কেউ কেউ বলেন, উজ্জ্বল লাল পরিধান করতে নিষেধ করা হয়েছে। এখানে যে কাপড়দ্বয়ের কথা বলা হয়েছে, সেটা লাল ডোরাকাটা ছিল, উজ্জ্বল লাল বর্ণের ছিল না।


In this hadeeth the word `Rajulun Marbu'un' is used, which if the letter `Jeem' has a dammah (pesh), means a man. This could be correct. This type of word is used in the Arabic language for connecting words, but because no special quality or attribute is derived, some Muhadditheen (scholars of hadeeth) are of the opinion that if the letter `Jeem' has a fatah (zabar) on it, it means something that is between straight and bent. It may also be possible that in this case it refers to the description of the hair of Sayyidina Rasullullah (Sallallahu alaihe wasallam), and as described before, his mubarak (blessed) hair had a slight curl in it. From this hadeeth, some scholars are of the opinion that it is permissible for men to wear red coloured clothing. According to the Hanafis there is a detailed explanation on this subject. Before selecting red clothing, the scholars should be consulted regarding its permissibility. The scholars have written that in this hadeeth the Sahabi did not see `anything' more handsome and beautiful than Sayyidina Rasullullah (Sallallahu alaihe wasallam). This is said because besides human beings, the moon, sun, etc. are also included.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
১. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) এর দৈহিক গঠন (باب ما جاء في خلق رسول الله ﷺ) 1. The Noble Features Of Rasoolullah (Sallallahu alaihe wasallam)

পরিচ্ছেদঃ রাসূলুল্লাহ (সাঃ) বেশী দীর্ঘ ছিলেন না, আবার বেশী খাটোও ছিলেন না

তাঁর দু’কাঁধের মধ্যবর্তী স্থান প্রশস্ত ছিল

৪. বারা ইবনে আযিব (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি কাঁধ পর্যন্ত লম্বা চুলবিশিষ্ট লাল চাদর ও লাল লুঙ্গি পরিহিত অবস্থায় রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর চেয়ে সুদর্শন কাউকে দেখিনি। তাঁর কেশগুচ্ছ ছিল কাঁধ বরাবর। তাঁর দু’কাঁধের মধ্যবর্তী স্থান অন্যদের তুলনায় কিছুটা প্রশস্ত ছিল। তিনি অধিক খাটো বা অধিক দীর্ঘাকৃতির ছিলেন না।[1]

حَدَّثَنَا مَحْمُودُ بْنُ غَيْلانَ ، قَالَ : حَدَّثَنَا وَكِيعٌ ، قَالَ : حَدَّثَنَا سُفْيَانُ ، عَنْ أَبِي إِسْحَاقَ ، عَنِ الْبَرَاءِ بْنِ عَازِبٍ ، قَالَ : " مَا رَأَيْتُ مِنْ ذِي لِمَّةٍ فِي حُلَّةٍ حَمْرَاءَ أَحْسَنَ مِنْ رَسُولِ اللَّهِ ، لَهُ شَعْرٌ يَضْرِبُ مَنْكِبَيْهِ ، بَعِيدُ مَا بَيْنَ الْمَنْكِبَيْنِ ، لَمْ يَكُنْ بِالْقَصِيرِ , وَلا بِالطَّوِيلِ " .

حدثنا محمود بن غيلان ، قال : حدثنا وكيع ، قال : حدثنا سفيان ، عن أبي إسحاق ، عن البراء بن عازب ، قال : " ما رأيت من ذي لمة في حلة حمراء أحسن من رسول الله ، له شعر يضرب منكبيه ، بعيد ما بين المنكبين ، لم يكن بالقصير , ولا بالطويل " .

THE NOBLE FEATURES OF RASULULLAH (SALLALLAHU ALAIHE WASALLAM)


Baraa bin Aazib (Radiallahu Anhu) reports: "I never seen someone with long hair and red clothing more handsome than Rasullullah (Sallallahu alaihe wasallam). His hair reached his shoulders. The portion between his two shoulders was wide. He was neither very tall nor very short".

৩ নং হাদীসে বর্ণিত হয়েছে যে, রাসূলুল্লাহ (সাঃ) এর মাথার চুল কানের লতি পর্যন্ত দীর্ঘ ছিল। আর এ হাদীসে বলা হয়েছে, কাঁধ পর্যন্ত দীর্ঘ ছিল। উভয় বক্তব্যই ঠিক। কেননা, চুল সব সময় এক অবস্থায় থাকে না। কখনো কম হয়, কখনো বেশি হয়। আবার ইচ্ছাকৃতভাবেও বড় ছোট রাখা হয়। চুলের ভিন্ন ভিন্ন অবস্থার ব্যাখ্যা এভাবে করা যায় যে, তিনি সর্বোচ্চ কাঁধ পর্যন্ত লম্বা করেছেন, যাকে ‘জিম্মা’ বলা হয়। আর সর্বাধিক ছোট করার পরিমান ছিল কানের লতি, যাকে ‘ওয়াফরা’ বলে। আর এর মাঝামাঝি অবস্থানকে ‘লিম্মা’ বলা হয়।


The description of the hair of Sayyidina Rasullullah (Sallallahu alaihe wasallam) in this hadeeth is different one mentioned before. There it is stated that his hair reached his ear-lobes. In reality there is no difference between the two hadeeth, as the hair does not remain the same length but grows. Sometimes the hair was shortened, sometimes longer hair was kept.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
১. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) এর দৈহিক গঠন (باب ما جاء في خلق رسول الله ﷺ) 1. The Noble Features Of Rasoolullah (Sallallahu alaihe wasallam)

পরিচ্ছেদঃ রাসূলুল্লাহ (সাঃ) বেশী দীর্ঘ ছিলেন না, আবার বেশী খাটোও ছিলেন না

তাঁর হস্তদ্বয় ও পদদ্বয়ের তালু এবং আঙ্গুলসমূহ ছিল মাংসল :

৫. আলী ইবনে আবু তালিব (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বেশি দীর্ঘ কিংবা বেশি খাটো ছিলেন না। তাঁর হস্তদ্বয় ও পদদ্বয়ের তালু এবং আঙ্গুলসমূহ ছিল মাংসল। তাঁর মাথা ছিল কিছুটা বড় এবং হাত-পায়ের জোড়াগুলো ছিল মোটা। বুক হতে নাভি পর্যন্ত পশমের একটি সরু রেখা প্রলম্বিত ছিল। যখন পথ চলতেন মনে হতো যেন কোন উঁচু স্থান হতে নিচে অবতরণ করছেন। বর্ণনাকারী বলেন, তাঁর পূর্বে কিংবা পরে আমি তাঁর মতো (অনুপম আকর্ষণীয়) আর কাউকে দেখিনি।[1]

دَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ إِسْمَاعِيلَ ، قَالَ : حَدَّثَنَا أَبُو نُعَيْمٍ ، قَالَ : حَدَّثَنَا الْمَسْعُودِيُّ ، عَنْ عُثْمَانَ بْنِ مُسْلِمِ بْنِ هُرْمُزَ ، عَنْ نَافِعِ بْنِ جُبَيْرِ بْنِ مُطْعِمٍ ، عَنْ عَلِيِّ بْنِ أَبِي طَالِبٍ ، قَالَ : " لَمْ يَكُنِ النَّبِيُّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ بِالطَّوِيلِ , وَلا بِالْقَصِيرِ ، شَثْنُ الْكَفَّيْنِ وَالْقَدَمَيْنِ ، ضَخْمُ الرَّأْسِ ، ضَخْمُ الْكَرَادِيسِ ، طَوِيلُ الْمَسْرُبَةِ ، إِذَا مَشَى تَكَفَّأَ تَكَفُّؤًا , كَأَنَّمَا يَنْحَطُّ مِنْ صَبَبٍ ، لَمْ أَرَ قَبْلَهُ , وَلا بَعْدَهُ مِثْلَهُ

دثنا محمد بن إسماعيل ، قال : حدثنا أبو نعيم ، قال : حدثنا المسعودي ، عن عثمان بن مسلم بن هرمز ، عن نافع بن جبير بن مطعم ، عن علي بن أبي طالب ، قال : " لم يكن النبي صلى الله عليه وسلم بالطويل , ولا بالقصير ، شثن الكفين والقدمين ، ضخم الرأس ، ضخم الكراديس ، طويل المسربة ، إذا مشى تكفأ تكفؤا , كأنما ينحط من صبب ، لم أر قبله , ولا بعده مثله

THE NOBLE FEATURES OF RASULULLAH (SALLALLAHU ALAIHE WASALLAM)


It is reported from Ali (Radiallahu Anhu): "Rasullullah (Sallallahu alaihe wasallam was neither very tall nor very short. The soles of both feet were very fleshed. (This quality is praiseworthy in a man as it denotes strength and courage but is not praiseworthy for a woman). He had a large head. The joints of the bones was also large. The was a thin line of hair from the chest to the navel. When Rasulullah (Sallallahu alaihe wasallam) walked, it appeared that he was descending from a high place". Ali (Radiallahu Anhu) says: "I did not see anyone like him neither before him, nor after him".

The use of a sentence like: "I have not seen anyone like him", is primarily for emphasis. By describing Sayyidina Rasulullah (Sallallahu alaihe wasallam) in this manner, there is however no exaggeration because the complete beauty of appearance of Sayyidina Rasulullah (Sallallahu alaihe wasallam) cannot be fully described. Munaawi wrote that every person is required to believe that with whatever physical qualities and attributes of Sayyidina Rasulullah (Sallallahu alaihe wasallam) is described, no other person can compare with it. This is not merely a belief. Books on Seerah (History of the Prophet peace be upon him) and ahaadeeth are replete with descriptions of his beautiful qualities. Therein it is stated that Allah Ta'aala bestowed fully on the Prophet (peace be upon him) all the inner kamaalat (perfection) and Zaahiri (apparent) beauty. Two verses (couplets) are narrated from Sayyiditina Aa'ishah (Radiallahu Anha), the meaning of which is: "that if the friends of Zulaikha could see the blessed face of Rasulullah (Sallallahu alaihe wasallam), they would have cut their hearts instead of their hands". How true! If you wish to read more about the love of the Sahabah (Radiallahu Anhum---male and female---for Sayyidina Rasulullah (Sallallahu alaihe wasallam) read Chapter Eight of my book `Stories of the Sahabah' (Radiallahu Anhum).


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
১. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) এর দৈহিক গঠন (باب ما جاء في خلق رسول الله ﷺ) 1. The Noble Features Of Rasoolullah (Sallallahu alaihe wasallam)

পরিচ্ছেদঃ রাসূলুল্লাহ (সাঃ) বেশী দীর্ঘ ছিলেন না, আবার বেশী খাটোও ছিলেন না

তিনি ছিলেন প্রশস্ত মুখ, ডাগর চক্ষু এবং সরু গোড়ালি বিশিষ্ট :

৬. জাবির ইবনে সামুরা (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর মুখ প্রশস্ত ছিল। চোখের শুভ্রতার মাঝে কিছুটা লালিমা ছিল। পায়ের গোড়ালি স্বল্প মাংসল ছিল। শু’বা (রহঃ) বলেন, আমি সিমাক (রহঃ) কে বললাম, ضَلِيعُ الْفَمِ (যলী’উল ফাম) কী? তিনি বললেন, বড় মুখগহ্বর বিশিষ্ট। আমি আবার বললাম, أَشْكَلُ الْعَيْنِ (আশকালুল ‘আইন) কী? তিনি বললেন, ডাগর চক্ষুবিশিষ্ট। আমি বললাম, مَنْهُوسُ الْعَقِبِ (মানুহূসুল আক্বিব) কী? তিনি বললেন, সরু গোড়ালি বিশিষ্ট।[1]

حَدَّثَنَا أَبُو مُوسَى مُحَمَّدُ بْنُ الْمُثَنَّى ، حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ جَعْفَرٍ ، حَدَّثَنَا شُعْبَةُ ، عَنْ سِمَاكِ بْنِ حَرْبٍ ، قَالَ : سَمِعْتُ جَابِرَ بْنَ سَمُرَةَ , يَقُولُ : " كَانَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ ضَلِيعَ الْفَمِ ، أَشْكَلَ الْعَيْنِ ، مَنْهُوسَ الْعَقِبِ " . قَالَ شُعْبَةُ : قُلْتُ لِسِمَاكٍ : مَا ضَلِيعُ الْفَمِ ؟ قَالَ : عَظِيمُ الْفَمِ ، قُلْتُ : مَا أَشْكَلُ الْعَيْنِ ؟ قَالَ : طَوِيلُ شِقِّ الْعَيْنِ ، قُلْتُ : مَا مَنْهُوسُ الْعَقِبِ ؟ قَالَ : قَلِيلُ لَحْمِ الْعَقِبِ .

حدثنا أبو موسى محمد بن المثنى ، حدثنا محمد بن جعفر ، حدثنا شعبة ، عن سماك بن حرب ، قال : سمعت جابر بن سمرة , يقول : " كان رسول الله صلى الله عليه وسلم ضليع الفم ، أشكل العين ، منهوس العقب " . قال شعبة : قلت لسماك : ما ضليع الفم ؟ قال : عظيم الفم ، قلت : ما أشكل العين ؟ قال : طويل شق العين ، قلت : ما منهوس العقب ؟ قال : قليل لحم العقب .

THE NOBLE FEATURES OF RASULULLAH (SALLALLAHU ALAIHE WASALLAM)


Jaabir bin Samurah (Radiallahu anhu) says: "Rasulullah (Sallallahu alaihe wasallam) had a wide
mouth. There were red lines in the whiteness of his eyes. He had little flesh on his heels."

It is desirable for Arab men to have wide mouths. According to some a wide mouth means eloquence (fluency of language). The translation adopted in the description of the eyes has been taken from accepted sayings. However in this Hadith, Imam Tirmidi has translated this to mean wide eyes, as a narrator of this hadith has done, which according to the linguists is not correct.


"These intoxicated eyes on which thousands of my kindred be sacrificed.
That endless destroyer remains intoxicated day and night."


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
১. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) এর দৈহিক গঠন (باب ما جاء في خلق رسول الله ﷺ) 1. The Noble Features Of Rasoolullah (Sallallahu alaihe wasallam)

পরিচ্ছেদঃ

তিনি ছিলেন পূর্ণিমার চাঁদের চেয়েও চমৎকার :

৭. জাবির ইবনে সামুরা (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি একবার পূর্ণিমা রাত্রির স্নিগ্ধ আলোতে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কে লাল চাদর ও লুঙ্গি পরিহিত অবস্থায় দেখলাম। তখন আমি একবার তাঁর দিকে ও একবার চাদের দিকে তাকাতে থাকলাম। মনে হলো তিনি আমার কাছে পূর্ণিমার চাদের চেয়ে অধিকতর চমৎকার।[1]

حَدَّثَنَا هَنَّادُ بْنُ السَّرِيِّ ، قَالَ : حَدَّثَنَا عَبْثَرُ بْنُ الْقَاسِمِ ، عَنْ أَشْعَثَ يَعْنِي ابْنَ سَوَّارٍ ، عَنْ أَبِي إِسْحَاقَ ، عَنْ جَابِرِ بْنِ سَمُرَةَ ، قَالَ : " رَأَيْتُ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ , فِي لَيْلَةٍ إِضْحِيَانٍ ، وَعَلَيْهِ حُلَّةٌ حَمْرَاءُ ، فَجَعَلْتُ أَنْظُرُ إِلَيْهِ وَإِلَى الْقَمَرِ ، فَلَهُوَ عِنْدِي أَحْسَنُ مِنَ الْقَمَرِ " .

حدثنا هناد بن السري ، قال : حدثنا عبثر بن القاسم ، عن أشعث يعني ابن سوار ، عن أبي إسحاق ، عن جابر بن سمرة ، قال : " رأيت رسول الله صلى الله عليه وسلم , في ليلة إضحيان ، وعليه حلة حمراء ، فجعلت أنظر إليه وإلى القمر ، فلهو عندي أحسن من القمر " .


It is related from Jaabir (Radiallahu anhu) that he said: " I once saw Rasulullah (Sallallahu alaihe wasallam) on the night of a full moon. On that night he wore red clothing. At times I looked at the full moon and at times at Rasulullah (Sallallahu alaihe wasallam) . Ultimately I came to the conclusion that Rasulullah (Sallallahu alaihe wasallam) was more handsome, beautiful and more radiant than the full moon."


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
১. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) এর দৈহিক গঠন (باب ما جاء في خلق رسول الله ﷺ) 1. The Noble Features Of Rasoolullah (Sallallahu alaihe wasallam)

পরিচ্ছেদঃ

৮. আবু ইসহাক হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, একবার বারা ইবনে আযিব (রাঃ) কে এক ব্যক্তি জিজ্ঞেস করল, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর চেহারা কি তরবারির ন্যায় ছিল? তিনি বললেন, না; বরং তা ছিল চাঁদের মতো।[1]

حَدَّثَنَا سُفْيَانُ بْنُ وَكِيعٍ ، حَدَّثَنَا حُمَيْدُ بْنُ عَبْدِ الرَّحْمَنِ الرُّؤَاسِيُّ ، عَنْ زُهَيْرٍ ، عَنْ أَبِي إِسْحَاقَ ، قَالَ : سَأَلَ رَجُلٌ الْبَرَاءَ بْنَ عَازِبٍ : أَكَانَ وَجْهُ رَسُولِ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ مثل السَّيْفِ ؟ قَالَ : " لا ، بَلْ مثل الْقَمَرِ " .

حدثنا سفيان بن وكيع ، حدثنا حميد بن عبد الرحمن الرؤاسي ، عن زهير ، عن أبي إسحاق ، قال : سأل رجل البراء بن عازب : أكان وجه رسول الله صلى الله عليه وسلم مثل السيف ؟ قال : " لا ، بل مثل القمر " .


Abu-Ishaaq says: "A person once asked Baraa bin Aazib (Radiallahu anhu),
"Was the face of Rasulullah (Sallallahu alaihe wasallam) shining like a sword?" He replied: "No but like a full-moon with its roundness."

তরবারির সাথে সাদৃশ্য করা এ জন্য ত্রুটিযুক্ত ছিল যে, এতে চেহারা অধিক লম্বা হওয়ার ধারণা সৃষ্টি হতে পারে। তাছাড়া তরবারির চমকে শুভ্রতা বেশি থাকে, কিন্তু উজ্জ্বলতা থাকে না। তাই বারা ইবনে আযিব (রাঃ) তরবারির কথা অস্বীকার করে চাদের সাথে তুলনা করেছেন।


In making a comparison with a sword, it may have meant that Sayyidina Rasulullah (Sallallahu alaihe wasallam) had a long face. However the glitter of a sword has more whiteness than being luminous. For this reason Sayyidina Baraa (Radiallahu anhu) gave the similarity of the full moon, and not that of a sword. All these similarities are approximate descriptions, otherwise even a thousand moons cannot give the brightness of Sayyidina Rasulullah (Sallallahu alaihe wasallam). An Arab poet says: "If you want to describe a shortcoming of a beloved, then give the beloved a similitude of a full moon. This is enough to insult him."


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
১. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) এর দৈহিক গঠন (باب ما جاء في خلق رسول الله ﷺ) 1. The Noble Features Of Rasoolullah (Sallallahu alaihe wasallam)

পরিচ্ছেদঃ

তাঁর শুভ্রতা ছিল রৌপ্যের ন্যায় :

৯. আবু হুরায়রা (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম শুভ্রতায় ছিলেন রৌপ্যের ন্যায় এবং তাঁর চুলগুলো ছিল কিছুটা কোঁকড়ানো।[1]

حَدَّثَنَا أَبُو دَاوُدَ الْمَصَاحِفِيُّ سُلَيْمَانُ بْنُ سَلْمٍ ، قَالَ : حَدَّثَنَا النَّضْرُ بْنُ شُمَيْلٍ ، عَنْ صَالِحِ بْنِ أَبِي الأَخْضَرِ ، عَنِ ابْنِ شِهَابٍ ، عَنْ أَبِي سَلَمَةَ ، عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ ، قَالَ : " كَانَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ أَبْيَضَ كَأَنَّمَا صِيغَ مِنْ فِضَّةٍ ، رَجِلَ الشَّعْرِ " .

حدثنا أبو داود المصاحفي سليمان بن سلم ، قال : حدثنا النضر بن شميل ، عن صالح بن أبي الأخضر ، عن ابن شهاب ، عن أبي سلمة ، عن أبي هريرة ، قال : " كان رسول الله صلى الله عليه وسلم أبيض كأنما صيغ من فضة ، رجل الشعر " .


Abu Hurayrah (Radiallahu anhu) says: "Rasulullah (Sallallahu alaihe wasallam) was so clean, clear, beautiful and handsome, as though his body was covered and moulded in silver. His hair was slightly curled."

আনাস (রাঃ) হতে বর্ণিত এ অধ্যায়ের সর্বপ্রথম হাদীসে উল্লেখিত হয়েছে যে, রাসূলুল্লাহ (সাঃ) এর গায়ের রং নিরেট সাদা ছিল না। তাই এ হাদীসে তাকে রূপার সাথে তুলনা করা হয়েছে। তিনি লাল মিশ্রিত সাদা ছিলেন এবং উজ্জ্বল সুন্দর ছিলেন।


In the first narration mentioned by Sayyidina Anas (Radiallahu anhu), it is denied that Sayyidina Rasulullah (Sallallahu alaihe wasallam) was very white. From the above hadith, it does not mean that he had white complexion like silver; rather he had a white and reddish complexion, in which the beauty and brightness was overwhelming.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
১. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) এর দৈহিক গঠন (باب ما جاء في خلق رسول الله ﷺ) 1. The Noble Features Of Rasoolullah (Sallallahu alaihe wasallam)

পরিচ্ছেদঃ রাসূলুল্লাহ (সাঃ) বেশী দীর্ঘ ছিলেন না, আবার বেশী খাটোও ছিলেন না

তিনি ছিলেন ইবরাহীম (আঃ) এর সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ:

১০. জাবির ইবনে আবদুল্লাহ (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, আমার কাছে নবীগণকে পেশ করা হয়। মূসা (আঃ) এর মধ্যে বিভিন্ন লোকের সাদৃশ্য বিদ্ধমান ছিল। তিনি যেন শানুয়াহ গোত্রের লোক। আমি ঈসা ইবনে মারইয়াম (আঃ) কে উরওয়া ইবনে মাসঊদের সাদৃশ্যপূর্ণ দেখতে পাই। তারপর আমি ইবরাহীম (আঃ) কে দেখতে পাই এবং তাকে পাই ‘তোমাদের সঙ্গীর’ সাথে সর্বাধিক সাদৃশ্যপূর্ণ। তোমাদের সঙ্গী বলে তিনি নিজেকে বুঝিয়েছেন। আর আমি জিবরীল (আঃ) কে দিহইয়া (কালবী) এর সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ দেখতে পাই।[1]

حَدَّثَنَا قُتَيْبَةُ بْنُ سَعِيدٍ ، قَالَ : أَخْبَرَنِي اللَّيْثُ بْنُ سَعْدٍ ، عَنْ أَبِي الزُّبَيْرِ ، عَنْ جَابِرِ بْنِ عَبْدِ اللَّهِ ، أَنّ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ ، قَالَ : " عُرِضَ عَلَيَّ الأَنْبِيَاءُ ، فَإِذَا مُوسَى عَلَيْهِ السَّلامُ , ضَرْبٌ مِنَ الرِّجَالِ ، كَأَنَّهُ مِنْ رِجَالِ شَنُوءَةَ ، وَرَأَيْتُ عِيسَى بْنَ مَرْيَمَ عَلَيْهِ السَّلامُ ، فَإِذَا أَقْرَبُ مَنْ رَأَيْتُ بِهِ شَبَهًا عُرْوَةُ بْنُ مَسْعُودٍ ، وَرَأَيْتُ إِبْرَاهِيمَ عَلَيْهِ السَّلامُ ، فَإِذَا أَقْرَبُ مَنْ رَأَيْتُ بِهِ شَبَهًا صَاحِبُكُمْ ، يَعْنِي نَفْسَهُ ، وَرَأَيْتُ جِبْرِيلَ عَلَيْهِ السَّلامُ , فَإِذَا أَقْرَبُ مَنْ رَأَيْتُ بِهِ شَبَهًا دِحْيَةُ " .

حدثنا قتيبة بن سعيد ، قال : أخبرني الليث بن سعد ، عن أبي الزبير ، عن جابر بن عبد الله ، أن رسول الله صلى الله عليه وسلم ، قال : " عرض علي الأنبياء ، فإذا موسى عليه السلام , ضرب من الرجال ، كأنه من رجال شنوءة ، ورأيت عيسى بن مريم عليه السلام ، فإذا أقرب من رأيت به شبها عروة بن مسعود ، ورأيت إبراهيم عليه السلام ، فإذا أقرب من رأيت به شبها صاحبكم ، يعني نفسه ، ورأيت جبريل عليه السلام , فإذا أقرب من رأيت به شبها دحية " .

THE NOBLE FEATURES OF RASULULLAH (SALLALLAHU ALAIHE WASALLAM)


Jaabir bin Abdullah (Radiallahu anhu) narrates from Rasulullah (Sallallahu alaihe wasallam) that he said: "The Ambiyaa (Prophets) were shown to me. I saw Musa (Alaihis salaam), he had a thin body, like one from among the tribe of Shanu'ah. I saw Esa (Alaihis salaam). From among all those whom I have seen, he somewhat resembled Urwah bin Masud. I saw Ebrahim (Alaihis
salaam). From among all those that I have seen,I, more or less, look like him. In the same manner I saw Jibra-eel (Alaihis salaam). From among all those I had seen, he more or less looked like Dihyah Kalbi."

This was on the night of mi'raaj or in a dream. Imaam Bukhaari (Rahmatullahi alaihe) has narrated both, on the night of mi'raaj and also in a dream. There is no confusion or difficulty in these differences, because he may have seen them on both occasions. The translation of the description of Sayyidina Musa (Alaihis salaam) as having a light body, in my opinion, is made from more accurate sayings. Some Ulama in the translation of this sentence, have expressed other opinions. These three Ambiyaa (Prophets) were described because Sayyidina Musa (Alaihis salaam) and Sayyidina Esa (Alaihis salaam) are the nabis of the Bani Israel and Sayyidina Ebrahim (Alaihis salaam), besides being the great grandfather of Sayyidina Rsulullah (Sallallahu alaihe wasallam), was also accepted by all Arabs.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
১. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) এর দৈহিক গঠন (باب ما جاء في خلق رسول الله ﷺ) 1. The Noble Features Of Rasoolullah (Sallallahu alaihe wasallam)

পরিচ্ছেদঃ রাসূলুল্লাহ (সাঃ) বেশী দীর্ঘ ছিলেন না, আবার বেশী খাটোও ছিলেন না

তিনি ছিলেন শুভ্রকায় ও লাবণ্যময়:

১১. আবু তুফায়েল (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কে দেখেছি তবে তাকে যারা দেখেছেন তাঁদের মধ্যে আমি ছাড়া কেউ ভূপৃষ্ঠে বেঁচে নেই। (বর্ণনাকারী বললেন) আমি বললাম আপনি আমার কাছে তাঁর বিবরণ পেশ করুন। তিনি বললেন, তিনি ছিলেন শুভ্রকায় ও লাবণ্যময় সুসামঞ্জস্যপূর্ণ।[1]

حَدَّثَنَا سُفْيَانُ بْنُ وَكِيعٍ ، وَمُحَمَّدُ بْنُ بَشَّارٍ ، الْمَعْنَى وَاحِدٌ ، قَالا : أَخْبَرَنَا يَزِيدُ بْنُ هَارُونَ ، عَنْ سَعِيدٍ الْجُرَيْرِيِّ ، قَالَ : سَمِعْتُ أَبَا الطُّفَيْلِ , يَقُولُ : " رَأَيْتُ النَّبِيَّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ وَمَا بَقِيَ عَلَى وَجْهِ الأَرْضِ أَحَدٌ رَآهُ غَيْرِي " ، قُلْتُ : صِفْهُ لِي ، قَالَ : " كَانَ أَبْيَضَ , مَلِيحًا , مُقَصَّدًا " .

حدثنا سفيان بن وكيع ، ومحمد بن بشار ، المعنى واحد ، قالا : أخبرنا يزيد بن هارون ، عن سعيد الجريري ، قال : سمعت أبا الطفيل , يقول : " رأيت النبي صلى الله عليه وسلم وما بقي على وجه الأرض أحد رآه غيري " ، قلت : صفه لي ، قال : " كان أبيض , مليحا , مقصدا " .

THE NOBLE FEATURES OF RASULULLAH (SALLALLAHU ALAIHE WASALLAM)


Sa'eed Jariri says: "I heard Abu Tufayl (Radiallahu anhu) say: "There is no one left on the face of this Earth, besides me who had seen Rasulullah (Sallallahu alaihe wasallam)." I asked him to describe to me the noble features of Rasulullah (Sallallahu alaihe wasallam). He said: "Rasulullah (Sallallahu alaihe wasallam) had a white complexion, which
was slightly reddish, and had a medium sized body."

Sayyidina Abu Tufayl (Radiallahu anhu) was the last one among the Sahabah (Radiallahu anhum) to pass away. He died in the year 110 Hijri. That is why he said, that there was no one left besides him who had seen Rasulullah (Sallallahu alaihe wasallam). The ulama say that he used the phrase `face of the earth' because Sayyidina Esa (Alaihis salaam) is also from the ones who had seen Sayyidina Rasulullah (Sallallahu alaihe wasallam), and is present in the skies (heavens).


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
১. রাসূলুল্লাহ (ﷺ) এর দৈহিক গঠন (باب ما جاء في خلق رسول الله ﷺ) 1. The Noble Features Of Rasoolullah (Sallallahu alaihe wasallam)
দেখানো হচ্ছেঃ থেকে ১১ পর্যন্ত, সর্বমোট ১১ টি রেকর্ডের মধ্য থেকে