আল-আদাবুল মুফরাদ পরস্পর সালাম বিনিময়

পরিচ্ছেদঃ ৪৪৮- সালামের সূচনা।

৯৮৭। আবু হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত। নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ আল্লাহ তাআলা আদম (আঃ) কে সৃষ্টি করলেন। তাঁর উচ্চতা ছিল ষাট হাত। আল্লাহ তাআলা তাঁকে বলেন, যাও, উপবিষ্ট ঐ ফেরেশতার দলকে সালাম দাও এবং তারা তোমার সালামের কি জবাব দেয় তা মনোযোগ সহকারে শোনো। কেননা এটাই হবে তোমার ও তোমার সন্তানদের সালাম (সম্ভাষণ)। আদম (আঃ) গিয়ে বলেন, আসসালামু আলাইকুম (আপনাদের প্রতি শান্তি বর্ষিত হোক)। ফেরেশতাগণ জবাব দিলেন, আসসালামু আলাইকা ওয়া রহমাতুল্লাহ (আপনার উপরও শান্তি ও আল্লাহর রহমত বর্ষিত হোক)। ফেরেশতাগণ “ওয়া রহমাতুল্লাহি” বাড়িয়ে বলেন। যে ব্যক্তি বেহেশতে যাবে সেই হবে আদম (আঃ) এর আকৃতি বিশিষ্ট। তখন থেকে বর্তমান কাল পর্যন্ত মানুষের দেহাবয়ব (উচ্চতাবারানী) ক্রমাগত হ্রাস পেয়ে আসছে। (বুখারী, মুসলিম)

بَابُ بَدْءِ السَّلامِ

حَدَّثَنَا عَبْدُ اللهِ بْنُ مُحَمَّدٍ، قَالَ‏:‏ حَدَّثَنَا عَبْدُ الرَّزَّاقِ، قَالَ‏:‏ أَخْبَرَنَا مَعْمَرٌ، عَنْ هَمَّامٍ، عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ، عَنِ النَّبِيِّ صلى الله عليه وسلم قَالَ‏:‏ خَلَقَ اللَّهُ آدَمَ صلى الله عليه وسلم عَلَى صُورَتِهِ، وَطُولُهُ سِتُّونَ ذِرَاعًا، ثُمَّ قَالَ‏:‏ اذْهَبْ، فَسَلِّمْ عَلَى أُولَئِكَ، نَفَرٌ مِنَ الْمَلاَئِكَةِ جُلُوسٌ، فَاسْتَمِعْ مَا يُحَيُّونَكَ بِهِ فَإِنَّهَا تَحِيَّتُكَ وَتَحِيَّةُ ذُرِّيَّتِكَ، فَقَالَ‏:‏ السَّلاَمُ عَلَيْكُمْ، فَقَالُوا‏:‏ السَّلاَمُ عَلَيْكَ وَرَحْمَةُ اللهِ، فَزَادُوهُ‏:‏ وَرَحْمَةُ اللهِ، فَكُلُّ مَنْ يَدْخُلُ الْجَنَّةَ عَلَى صُورَتِهِ، فَلَمْ يَزَلْ يَنْقُصُ الْخَلْقُ حَتَّى الآنَ‏.‏

حدثنا عبد الله بن محمد، قال‏:‏ حدثنا عبد الرزاق، قال‏:‏ أخبرنا معمر، عن همام، عن أبي هريرة، عن النبي صلى الله عليه وسلم قال‏:‏ خلق الله آدم صلى الله عليه وسلم على صورته، وطوله ستون ذراعا، ثم قال‏:‏ اذهب، فسلم على أولئك، نفر من الملائكة جلوس، فاستمع ما يحيونك به فإنها تحيتك وتحية ذريتك، فقال‏:‏ السلام عليكم، فقالوا‏:‏ السلام عليك ورحمة الله، فزادوه‏:‏ ورحمة الله، فكل من يدخل الجنة على صورته، فلم يزل ينقص الخلق حتى الآن‏.‏


Abu Hurayra reported that the Prophet, may Allah bless him and grant him peace, said, "Allah created Adam, may Allah bless him and grant him peace, and his height was 60 spans. He said, 'Go and greet those (a group of angels who were sitting down) and listen to how they answer you. It is your greeting and the greeting of your descendants.' He said, 'Peace be upon you,' and they replied, 'Peace be upon you and the mercy of Allah.' They added, 'and the mercy of Allah'. All who enter the Garden will have his form, but creation has continued to decline until now.'"


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
আল-আদাবুল মুফরাদ
পরস্পর সালাম বিনিময়

পরিচ্ছেদঃ ৪৪৯- সালামের প্রসার।

৯৮৮। বারাআ (রাঃ) থেকে বর্ণিত। নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ তোমরা সালামের বহুল প্রসার করো, তাহলে শান্তি ও নিরাপত্তা লাভ করবে (মুসনাদ আহমাদ, ইবনে হিব্বান)।

بَابُ إِفْشَاءِ السَّلامِ

حَدَّثَنَا مُسَدَّدٌ، قَالَ‏:‏ حَدَّثَنَا عَبْدُ الْوَاحِدِ، عَنْ قِنَانَ بْنِ عَبْدِ اللهِ النَّهْمِيِّ، عَنْ عَبْدِ الرَّحْمَنِ بْنِ عَوْسَجَةَ، عَنِ الْبَرَاءِ، عَنِ النَّبِيِّ صلى الله عليه وسلم قَالَ‏:‏ أَفْشُوا السَّلامَ تَسْلَمُوا‏.‏

حدثنا مسدد، قال‏:‏ حدثنا عبد الواحد، عن قنان بن عبد الله النهمي، عن عبد الرحمن بن عوسجة، عن البراء، عن النبي صلى الله عليه وسلم قال‏:‏ أفشوا السلام تسلموا‏.‏


Al-Bara' reported that the Prophet, may Allah bless him and grant him peace, said, "Make the greeting common practice among you and you will be safe."


হাদিসের মানঃ হাসান (Hasan)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
আল-আদাবুল মুফরাদ
পরস্পর সালাম বিনিময়

পরিচ্ছেদঃ ৪৪৯- সালামের প্রসার।

৯৮৯। আবু হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত। নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ তোমরা ঈমানদার না হওয়া পর্যন্ত বেহেশতে প্রবেশ করতে পারবে না। তোমরা পরস্পরকে মহব্বত না করা পর্যন্ত ঈমানদার হতে পারবে না। আমি কি তোমাদের এমন জিনিস জ্ঞাত করবো না, যাতে তোমাদের পরস্পরের মধ্যে মহব্বত সৃষ্টি হয়? সাহাবাগণ বলেন, নিশ্চয় ইয়া রাসূলাল্লাহ! তিনি বলেনঃ তোমাদের মধ্যে সালামের বহুল প্রসার ঘটাও। (মুসলিম)

بَابُ إِفْشَاءِ السَّلامِ

حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ عُبَيْدِ اللهِ، قَالَ‏:‏ حَدَّثَنَا ابْنُ أَبِي حَازِمٍ، وَالْقَعْنَبِيُّ، عَنْ عَبْدِ الْعَزِيزِ، عَنِ الْعَلاَءِ، عَنْ أَبِيهِ، عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ، عَنِ النَّبِيِّ صلى الله عليه وسلم قَالَ‏:‏ لاَ تَدْخُلُوا الْجَنَّةَ حَتَّى تُؤْمِنُوا، وَلاَ تُؤْمِنُوا حَتَّى تَحَابُّوا، أَلاَ أَدُلُّكُمْ عَلَى مَا تَحَابُّونَ بِهِ‏؟‏ قَالُوا‏:‏ بَلَى، يَا رَسُولَ اللهِ، قَالَ‏:‏ أَفْشُوا السَّلامَ بَيْنَكُمْ‏.‏

حدثنا محمد بن عبيد الله، قال‏:‏ حدثنا ابن أبي حازم، والقعنبي، عن عبد العزيز، عن العلاء، عن أبيه، عن أبي هريرة، عن النبي صلى الله عليه وسلم قال‏:‏ لا تدخلوا الجنة حتى تؤمنوا، ولا تؤمنوا حتى تحابوا، ألا أدلكم على ما تحابون به‏؟‏ قالوا‏:‏ بلى، يا رسول الله، قال‏:‏ أفشوا السلام بينكم‏.‏


Abu Hurayra reported that the Prophet, may Allah bless him and grant him peace, said, "You will not enter the Garden until you believe and you will not believe until you love one another. Shall I tell you something the doing of which will give you love of one another?" "Yes, Messenger of Allah," they replied. The Prophet said, "Make the greeting common practice among you."


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
আল-আদাবুল মুফরাদ
পরস্পর সালাম বিনিময়

পরিচ্ছেদঃ ৪৪৯- সালামের প্রসার।

৯৯০। আবদুল্লাহ ইবনে আমর (রাঃ) বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ তোমরা দয়াময় রহমানের ইবাদত করো, মানুষকে আহার করাও এবং সালামের বহুল প্রচলন করো, তাহলে জান্নাতসমূহে প্রবেশ করতে পারবে। (তিরমিযী, ইবনে মাজাহ, দারিমী, আহমাদ, ইবনে হিব্বান)

بَابُ إِفْشَاءِ السَّلامِ

حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ سَلاَمٍ، قَالَ‏:‏ حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ فُضَيْلِ بْنِ غَزْوَانَ، عَنْ عَطَاءِ بْنِ السَّائِبِ، عَنْ أَبِيهِ، عَنْ عَبْدِ اللهِ بْنِ عَمْرٍو قَالَ‏:‏ قَالَ رَسُولُ اللهِ صلى الله عليه وسلم‏:‏ اعْبُدُوا الرَّحْمَنَ، وَأَطْعِمُوا الطَّعَامَ، وَأَفْشُوا السَّلاَمَ، تَدْخُلُوا الْجِنَانَ‏.‏

حدثنا محمد بن سلام، قال‏:‏ حدثنا محمد بن فضيل بن غزوان، عن عطاء بن السائب، عن أبيه، عن عبد الله بن عمرو قال‏:‏ قال رسول الله صلى الله عليه وسلم‏:‏ اعبدوا الرحمن، وأطعموا الطعام، وأفشوا السلام، تدخلوا الجنان‏.‏


'Abdullah ibn 'Amr reported that the Messenger of Allah, may Allah bless him and grant him peace, said, "Worship the All-Merciful and feed people. Make the greeting common practice among you and you will enter the Garden."


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
আল-আদাবুল মুফরাদ
পরস্পর সালাম বিনিময়

পরিচ্ছেদঃ ৪৫০- যে ব্যক্তি আগে সালাম দেয়।

৯৯১। বশীর ইবনে ইয়াসার (রহঃ) বলেন, ইবনে উমার (রাঃ) কে তার আগে কেউ সালাম দিতে পারতো না। (আবু আওয়ানা, ইবনে হিব্বান)

بَابُ مَنْ بَدَأَ بِالسَّلامِ

حَدَّثَنَا أَبُو نُعَيْمٍ، عَنْ سَعِيدِ بْنِ عُبَيْدٍ، عَنْ بُشَيْرِ بْنِ يَسَارٍ قَالَ‏:‏ مَا كَانَ أَحَدٌ يَبْدَأُ، أَوْ يَبْدُرُ، ابْنَ عُمَرَ بِالسَّلامِ‏.‏

حدثنا أبو نعيم، عن سعيد بن عبيد، عن بشير بن يسار قال‏:‏ ما كان أحد يبدأ، أو يبدر، ابن عمر بالسلام‏.‏


Bashir ibn Yasar said, "No one preceded ? or got ahead of ? Ibn 'Umar when giving the greeting."


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
আল-আদাবুল মুফরাদ
পরস্পর সালাম বিনিময়

পরিচ্ছেদঃ ৪৫০- যে ব্যক্তি আগে সালাম দেয়।

৯৯২। জাবের (রাঃ) বলেন, আরোহী ব্যক্তি পদব্রজে গমনকারীকে সালাম দিবে এবং পদব্রজে গমনকারী বসা ব্যক্তিকে সালাম দিবে। আর দুই পথচারীর মধ্যে যে প্রথম সালাম দিবে সে অধিক উত্তম।

بَابُ مَنْ بَدَأَ بِالسَّلامِ

حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ سَلاَمٍ، قَالَ‏:‏ أَخْبَرَنَا مَخْلَدُ بْنُ يَزِيدَ، قَالَ‏:‏ أَخْبَرَنَا ابْنُ جُرَيْجٍ قَالَ‏:‏ أَخْبَرَنِي أَبُو الزُّبَيْرِ، أَنَّهُ سَمِعَ جَابِرًا يَقُولُ‏:‏ يُسَلِّمُ الرَّاكِبُ عَلَى الْمَاشِي، وَالْمَاشِي عَلَى الْقَاعِدِ، وَالْمَاشِيَانِ أَيُّهُمَا يَبْدَأُ بِالسَّلامِ فَهُوَ أَفْضَلُ‏.‏

حدثنا محمد بن سلام، قال‏:‏ أخبرنا مخلد بن يزيد، قال‏:‏ أخبرنا ابن جريج قال‏:‏ أخبرني أبو الزبير، أنه سمع جابرا يقول‏:‏ يسلم الراكب على الماشي، والماشي على القاعد، والماشيان أيهما يبدأ بالسلام فهو أفضل‏.‏


Jabir said, " "Someone riding should greet someone walking, and someone walking should greet someone sitting down. When there are two people walking, the better of them is the one who gives the greeting first."


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
আল-আদাবুল মুফরাদ
পরস্পর সালাম বিনিময়

পরিচ্ছেদঃ ৪৫০- যে ব্যক্তি আগে সালাম দেয়।

৯৯৩। নাফে (রহঃ) থেকে বর্ণিত। ইবনে উমার (রহঃ) তাকে অবহিত করেন যে, মুযায়না গোত্রের আল-আগারর (রাঃ) নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর সাহাবী ছিলেন। আমর ইবনে আওফ গোত্রের এক ব্যক্তির নিকট তার কয়েক ওয়াসাক খেজুর পাওনা ছিল। তিনি এজন্য বেশ কয়েক বার তাকে তাগাদাও দেন। তিনি বলেন, আমি নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর নিকট গেলে তিনি আমার সাথে আবু বাকর সিদ্দীক (রাঃ)-কে পাঠান। তিনি বলেন, (পথিমধ্যে যার সাথেই) আমাদের সাক্ষাত হয়েছে তারাই আগে আমাদের সালাম দিয়েছে। আবু বাকর (রাঃ) বলেন, তুমি কি লক্ষ্য করছে না যে, লোকজন তোমাকে আগে সালাম দিচ্ছে এবং তাদের সওয়াব হচ্ছে? তুমি আগে তাদেরকে সালাম দাও, তোমার সওয়াব হবে। ইবনে উমার (রাঃ) এটাকে নিজের ঘটনা বলেছেন। (তাবারানী)

بَابُ مَنْ بَدَأَ بِالسَّلامِ

حَدَّثَنَا إِسْمَاعِيلُ قَالَ‏:‏ حَدَّثَنِي أَخِي، عَنْ سُلَيْمَانَ، عَنْ عَبْدِ الرَّحْمَنِ بْنِ عَبْدِ اللهِ بْنِ أَبِي عَتِيقٍ، عَنْ نَافِعٍ، أَنَّ ابْنَ عُمَرَ أَخْبَرَهُ، أَنَّ الأَغَرَّ، وَهُوَ رَجُلٌ مِنْ مُزَيْنَةَ، وَكَانَتْ لَهُ صُحْبَةٌ مَعَ النَّبِيِّ صلى الله عليه وسلم، كَانَتْ لَهُ أَوْسُقٌ مِنْ تَمْرٍ عَلَى رَجُلٍ مِنْ بَنِي عَمْرِو بْنِ عَوْفٍ، اخْتَلَفَ إِلَيْهِ مِرَارًا، قَالَ‏:‏ فَجِئْتُ إِلَى النَّبِيِّ صلى الله عليه وسلم، فَأَرْسَلَ مَعِي أَبَا بَكْرٍ الصِّدِّيقَ، قَالَ‏:‏ فَكُلُّ مَنْ لَقِينَا سَلَّمُوا عَلَيْنَا، فَقَالَ أَبُو بَكْرٍ‏:‏ أَلاَ تَرَى النَّاسَ يَبْدَأُونَكَ بِالسَّلاَمِ فَيَكُونُ لَهُمُ الأَجْرُ‏؟‏ ابْدَأْهُمْ بِالسَّلاَمِ يَكُنْ لَكَ الأَجْرُ يُحَدِّثُ هَذَا ابْنُ عُمَرَ عَنْ نَفْسِهِ‏.‏

حدثنا إسماعيل قال‏:‏ حدثني أخي، عن سليمان، عن عبد الرحمن بن عبد الله بن أبي عتيق، عن نافع، أن ابن عمر أخبره، أن الأغر، وهو رجل من مزينة، وكانت له صحبة مع النبي صلى الله عليه وسلم، كانت له أوسق من تمر على رجل من بني عمرو بن عوف، اختلف إليه مرارا، قال‏:‏ فجئت إلى النبي صلى الله عليه وسلم، فأرسل معي أبا بكر الصديق، قال‏:‏ فكل من لقينا سلموا علينا، فقال أبو بكر‏:‏ ألا ترى الناس يبدأونك بالسلام فيكون لهم الأجر‏؟‏ ابدأهم بالسلام يكن لك الأجر يحدث هذا ابن عمر عن نفسه‏.‏


Ibn 'Umar said that al-Agharr (who was a man from Muzayna and had been a Companion of the Prophet) was owed some measures of dates by a man from the Banu 'Amr ibn 'Awf who came to him many times. He said, "I went to the Prophet, may Allah bless him and grant him peace, and he sent Abu Bakr as-Siddiq with me." He continues, "Everyone we met greeted us. Abu Bakr said, 'Don't you know that when people give the greeting before us, they have the reward? Give the greeting before them and you will have the reward.'"


হাদিসের মানঃ হাসান (Hasan)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
আল-আদাবুল মুফরাদ
পরস্পর সালাম বিনিময়

পরিচ্ছেদঃ ৪৫০- যে ব্যক্তি আগে সালাম দেয়।

৯৯৪। আবু আইউব (রাঃ) থেকে বর্ণিত। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ কোন মুসলিমের জন্য তার অপর মুসলিম ভাইয়ের সাথে তিন দিনের বেশী সম্পর্ক ছিন্ন করে থাকা হালাল নয়। অবস্থা এই দাঁড়ায় যে, তাদের দু’জনের সাক্ষাত হলে একজন এদিকে এবং অপরজন ঐদিকে মুখ ঘুরিয়ে নেয়। তাদের মধ্যে উত্তম সেই ব্যক্তি যে আগে সালাম দেয়। (বুখারী, মুসলিম, দারিমী, তিরমিযী)

بَابُ مَنْ بَدَأَ بِالسَّلامِ

حَدَّثَنَا عَبْدُ اللهِ بْنُ يُوسُفَ، وَالْقَعْنَبِيُّ، قَالاَ‏:‏ أَخْبَرَنَا مَالِكٌ، عَنِ ابْنِ شِهَابٍ، عَنْ عَطَاءِ بْنِ يَزِيدَ، عَنْ أَبِي أَيُّوبَ، أَنَّ رَسُولَ اللهِ صلى الله عليه وسلم قَالَ‏:‏ لاَ يَحِلُّ لِامْرِئٍ مُسْلِمٍ أَنْ يَهْجُرَ أَخَاهُ فَوْقَ ثَلاَثٍ، فَيَلْتَقِيَانِ فَيُعْرِضُ هَذَا وَيُعْرِضُ هَذَا، وَخَيْرُهُمَا الَّذِي يَبْدَأُ بِالسَّلامِ‏.‏

حدثنا عبد الله بن يوسف، والقعنبي، قالا‏:‏ أخبرنا مالك، عن ابن شهاب، عن عطاء بن يزيد، عن أبي أيوب، أن رسول الله صلى الله عليه وسلم قال‏:‏ لا يحل لامرئ مسلم أن يهجر أخاه فوق ثلاث، فيلتقيان فيعرض هذا ويعرض هذا، وخيرهما الذي يبدأ بالسلام‏.‏


Abu Ayyub reported that the Messenger of Allah, may Allah bless him and grant him peace, said, "It is not lawful for a Muslim man to separate himself from his brother for more than three days. When they meet, and one turns away and the other turns away, the better of them is the one who gives the greeting first."


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
আল-আদাবুল মুফরাদ
পরস্পর সালাম বিনিময়

পরিচ্ছেদঃ ৪৫১- সালাম বিনিময়ের ফযীলাত।

৯৯৫। আবু হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত। এক ব্যক্তি নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর নিকট দিয়ে যাচ্ছিল। তিনি তখন এক মজলিসে ছিলেন। সে বললো, আসসালামু আলাইকুম। নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ দশটি নেকী। অতঃপর অপর এক ব্যক্তি ঐ পথে যেতে বললো, আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ। নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ বিশ নেকী। আরেক ব্যক্তি সেখান দিয়ে যেতে বললো, আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ ওয়া বারাকাতুহ। নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ তিরিশ নেকী। অতঃপর এক ব্যক্তি মজলিস থেকে উঠে চলে গেলো, কিন্তু সালাম দিলো না। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ হয়তো তোমাদের সাথী (সালামের মর্যাদা) বিস্তৃত হয়েছে। তোমাদের কেউ মজলিসে এসে পৌছলে যেন সালাম দেয়। তারপর মজলিসে বসার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করলে সে বসবে। আবার সে যখন চলে যাবে তখনও যেন সালাম দেয়। কেননা পরের সালাম পূর্বের সালামের চেয়ে কম মর্যাদাপূর্ণ নয়। (তিরমিযী, নাসাঈ, ইবনে হিব্বান, আহমাদ, আবু দাউদ)

بَابُ فَضْلِ السَّلامِ

حَدَّثَنَا عَبْدُ الْعَزِيزِ بْنُ عَبْدِ اللهِ قَالَ‏:‏ حَدَّثَنِي مُحَمَّدُ بْنُ جَعْفَرِ بْنِ أَبِي كَثِيرٍ، عَنْ يَعْقُوبَ بْنِ زَيْدٍ التَّيْمِيِّ، عَنْ سَعِيدٍ الْمَقْبُرِيِّ، عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ، أَنَّ رَجُلاً مَرَّ عَلَى رَسُولِ اللهِ صلى الله عليه وسلم وَهُوَ فِي مَجْلِسٍ فَقَالَ‏:‏ السَّلاَمُ عَلَيْكُمْ، فَقَالَ‏:‏ عَشْرُ حَسَنَاتٍ، فَمَرَّ رَجُلٌ آخَرُ فَقَالَ‏:‏ السَّلاَمُ عَلَيْكُمْ وَرَحْمَةُ اللهِ، فَقَالَ‏:‏ عِشْرُونَ حَسَنَةً، فَمَرَّ رَجُلٌ آخَرُ فَقَالَ‏:‏ السَّلاَمُ عَلَيْكُمْ وَرَحْمَةُ اللهِ وَبَرَكَاتُهُ، فَقَالَ‏:‏ ثَلاَثُونَ حَسَنَةً، فَقَامَ رَجُلٌ مِنَ الْمَجْلِسِ وَلَمْ يُسَلِّمْ، فَقَالَ رَسُولُ اللهِ صلى الله عليه وسلم‏:‏ مَا أَوْشَكَ مَا نَسِيَ صَاحِبُكُمْ، إِذَا جَاءَ أَحَدُكُمُ الْمَجْلِسَ فَلْيُسَلِّمْ، فَإِنْ بَدَا لَهُ أَنْ يَجْلِسَ فَلْيَجْلِسْ، وَإِذَا قَامَ فَلْيُسَلِّمْ، مَا الأُولَى بِأَحَقَّ مِنَ الآخِرَةِ‏.‏

حدثنا عبد العزيز بن عبد الله قال‏:‏ حدثني محمد بن جعفر بن أبي كثير، عن يعقوب بن زيد التيمي، عن سعيد المقبري، عن أبي هريرة، أن رجلا مر على رسول الله صلى الله عليه وسلم وهو في مجلس فقال‏:‏ السلام عليكم، فقال‏:‏ عشر حسنات، فمر رجل آخر فقال‏:‏ السلام عليكم ورحمة الله، فقال‏:‏ عشرون حسنة، فمر رجل آخر فقال‏:‏ السلام عليكم ورحمة الله وبركاته، فقال‏:‏ ثلاثون حسنة، فقام رجل من المجلس ولم يسلم، فقال رسول الله صلى الله عليه وسلم‏:‏ ما أوشك ما نسي صاحبكم، إذا جاء أحدكم المجلس فليسلم، فإن بدا له أن يجلس فليجلس، وإذا قام فليسلم، ما الأولى بأحق من الآخرة‏.‏


Abu Hurayra reported that a man passed by the Messenger of Allah, may Allah bless him and grant him peace, while hew as in an assembly and said, "Peace be upon you." "Ten good deeds," he said. Another man passed by and said, "Peace be upon you and the mercy of Allah." The Prophet said, "Twenty good deeds." Then yet another man passed by and said, "Peace be upon you and the mercy of Allah and His blessing," and the Prophet said, "Thirty good deeds." Then a man in the gathering got up and did not give the greeting. The Messenger of Allah, may Allah bless him and grant him peace, said, "How quickly your companion forgets! When one of you comes to an assembly, he should give the greeting. If he thinks he should sit down, he sits down. When he stands up, he gives the greeting. Neither is a greater duty than the other."


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
আল-আদাবুল মুফরাদ
পরস্পর সালাম বিনিময়

পরিচ্ছেদঃ ৪৫১- সালাম বিনিময়ের ফযীলাত।

৯৯৬। উমার (রাঃ) বলেন, আমি বাহনের পেছন দিকে আবু বাকর (রাঃ) এর সফরসংগী ছিলাম। তিনি যে কোন জনসমষ্টিকে অতিক্রম করেন তাদেরকে আসসালামু আলাইকুম বলেন। তারা বললো, ওয়া আলাইকুমুস সালাম ওয়া রহমাতুল্লাহ। আর তিনি আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ বললে তারা বলে, আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহু। আবু বাকর (রাঃ) বলেন, লোকজন আজ আমাদের চেয়ে অনেক বেশী সওয়াবের অধিকারী হলো।

بَابُ فَضْلِ السَّلامِ

حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ بَشَّارٍ، قَالَ‏:‏ حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ جَعْفَرٍ، قَالَ‏:‏ حَدَّثَنَا شُعْبَةُ، عَنْ عَبْدِ الْمَلِكِ بْنِ مَيْسَرَةَ، عَنْ زَيْدِ بْنِ وَهْبٍ، عَنْ عُمَرَ قَالَ‏:‏ كُنْتُ رَدِيفَ أَبِي بَكْرٍ، فَيَمُرُّ عَلَى الْقَوْمِ فَيَقُولُ‏:‏ السَّلاَمُ عَلَيْكُمْ، فَيَقُولُونَ‏:‏ السَّلاَمُ عَلَيْكُمْ وَرَحْمَةُ اللهِ، وَيَقُولُ‏:‏ السَّلاَمُ عَلَيْكُمْ وَرَحْمَةُ اللهِ، فَيَقُولُونَ‏:‏ السَّلاَمُ عَلَيْكُمْ وَرَحْمَةُ اللهِ وَبَرَكَاتُهُ، فَقَالَ أَبُو بَكْرٍ‏:‏ فَضَلَنَا النَّاسُ الْيَوْمَ بِزِيَادَةٍ كَثِيرَةٍ‏.‏

حدثنا محمد بن بشار، قال‏:‏ حدثنا محمد بن جعفر، قال‏:‏ حدثنا شعبة، عن عبد الملك بن ميسرة، عن زيد بن وهب، عن عمر قال‏:‏ كنت رديف أبي بكر، فيمر على القوم فيقول‏:‏ السلام عليكم، فيقولون‏:‏ السلام عليكم ورحمة الله، ويقول‏:‏ السلام عليكم ورحمة الله، فيقولون‏:‏ السلام عليكم ورحمة الله وبركاته، فقال أبو بكر‏:‏ فضلنا الناس اليوم بزيادة كثيرة‏.‏


'Umar said, "I was riding behind Abu Bakr and he passed by some people. He said, 'Peace be upon you.' They said, 'Peace be upon you and the mercy of Allah.' He said, 'Peace be upon you and the mercy of Allah.' They said, 'Peace be upon you and the mercy of Allah and His blessings.' Abu Bakr said, 'Today the people have been very much better than us.'"


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
আল-আদাবুল মুফরাদ
পরস্পর সালাম বিনিময়

পরিচ্ছেদঃ ৪৫১- সালাম বিনিময়ের ফযীলাত।

৯৯৭। আয়েশা (রাঃ) থেকে বর্ণিত। নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ ইহুদীরা তোমাদের কোন ব্যাপারে এতো বেশী ঈর্ষান্বিত নয় যতোটা তারা তোমাদের সালাম ও আমীনের ব্যাপারে ঈর্ষান্বিত। (ইবনে মাজাহ হাঃ ৮৫৬)

بَابُ فَضْلِ السَّلامِ

حَدَّثَنَا إِسْحَاقُ، قَالَ‏:‏ أَخْبَرَنَا عَبْدُ الصَّمَدِ، قَالَ‏:‏ حَدَّثَنَا حَمَّادُ بْنُ سَلَمَةَ، عَنْ سُهَيْلِ بْنِ أَبِي صَالِحٍ، عَنْ أَبِيهِ، عَنْ عَائِشَةَ، عَنْ رَسُولِ اللهِ صلى الله عليه وسلم قَالَ‏:‏ مَا حَسَدَكُمُ الْيَهُودُ عَلَى شَيْءٍ مَا حَسَدُوكُمْ عَلَى السَّلامِ وَالتَّأْمِينِ‏.‏

حدثنا إسحاق، قال‏:‏ أخبرنا عبد الصمد، قال‏:‏ حدثنا حماد بن سلمة، عن سهيل بن أبي صالح، عن أبيه، عن عائشة، عن رسول الله صلى الله عليه وسلم قال‏:‏ ما حسدكم اليهود على شيء ما حسدوكم على السلام والتأمين‏.‏


'A'isha reported that the Messenger of Allah, may Allah bless him and grant him peace, said, "The Jews do not envy you for anything the way that they envy you for the salam and the Amin."


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
আল-আদাবুল মুফরাদ
পরস্পর সালাম বিনিময়

পরিচ্ছেদঃ ৪৫২- সালাম হলো মহামহিম আল্লাহর নামসমূহের অন্তর্ভুক্ত একটি নাম।

৯৯৮। আনাস (রাঃ) বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ সালাম হলো আল্লাহ তাআলার নামসমূহের একটি। তিনি দুনিয়াবাসীদের জন্য তা দান করেছেন। অতএব তোমরা নিজেদের মধ্যে সালামের বহুল প্রচলন করো। (তাবারানী, বাযযার)

بَابُ السَّلامُ اسْمٌ مِنْ أَسْمَاءِ اللهِ عَزَّ وَجَلَّ

حَدَّثَنَا شِهَابٌ، قَالَ‏:‏ حَدَّثَنَا حَمَّادُ بْنُ سَلَمَةَ، عَنْ حُمَيْدٍ، عَنْ أَنَسٍ قَالَ‏:‏ قَالَ رَسُولُ اللهِ صلى الله عليه وسلم‏:‏ إِنَّ السَّلامَ اسْمٌ مِنْ أَسْمَاءِ اللهِ تَعَالَى، وَضَعَهُ اللَّهُ فِي الأَرْضِ، فَأَفْشُوا السَّلامَ بَيْنَكُمْ‏.‏

حدثنا شهاب، قال‏:‏ حدثنا حماد بن سلمة، عن حميد، عن أنس قال‏:‏ قال رسول الله صلى الله عليه وسلم‏:‏ إن السلام اسم من أسماء الله تعالى، وضعه الله في الأرض، فأفشوا السلام بينكم‏.‏


Anas reported that the Messenger of Allah, may Allah bless him and grant him peace, said, "As-Salam (peace) is one of the Names of Allah Almighty which Allah has placed in the earth. Therefore give the greeting among yourselves."


হাদিসের মানঃ হাসান (Hasan)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
আল-আদাবুল মুফরাদ
পরস্পর সালাম বিনিময়

পরিচ্ছেদঃ ৪৫২- সালাম হলো মহামহিম আল্লাহর নামসমূহের অন্তর্ভুক্ত একটি নাম।

৯৯৯। ইবনে মাসউদ (রাঃ) বলেন, লোকজন নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর পেছনে নামায পড়ছিলো। এক ব্যক্তি বললো, আসসালামু আলাল্লাহ (আল্লাহর প্রতি সালাম)। নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম নামায শেষে জিজ্ঞেস করেনঃ আসসালামু আলাল্লাহ কে বলেছে? নিশ্চয় আল্লাহ হলেন সালাম (শান্তিদাতাবারানী)। বরং তোমরা বলো, ‘আত্তাহিয়্যাতু লিল্লাহি....... আবদুহু ওয়া রাসূলুল্লাহু’। “সমস্ত সম্মান, ইবাদত, উপাসনা এবং পবিত্রতা আল্লাহর জন্য। হে নবী! আপনার উপর শান্তি বর্ষিত হোক, আল্লাহর রহমত এবং প্রাচুর্যও। আমাদের উপর এবং আল্লাহর নেক বান্দাদের উপর শান্তি বর্ষিত হোক। আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি, আল্লাহ ছাড়া কোন ইলাহ নাই। আমি আরো সাক্ষ্য দিচ্ছি, মুহাম্মাদ তার বান্দাহ ও রাসূল”। রাবী বলেন, সাহাবীগণ তা এতো গুরুত্ব সহকারে শিক্ষা করতেন, যেমন তোমাদের কেউ কুরআনের সূরা শিক্ষা করে। (বুখারী, মুসলিম, আবু দাউদ, তিরমিযী, নাসাঈ, ইবনে মাজাহ)

بَابُ السَّلامُ اسْمٌ مِنْ أَسْمَاءِ اللهِ عَزَّ وَجَلَّ

حَدَّثَنَا أَبُو نُعَيْمٍ، قَالَ‏:‏ حَدَّثَنَا مُحِلٌّ قَالَ‏:‏ سَمِعْتُ شَقِيقَ بْنَ سَلَمَةَ أَبَا وَائِلٍ يَذْكُرُ، عَنِ ابْنِ مَسْعُودٍ قَالَ‏:‏ كَانُوا يُصَلُّونَ خَلْفَ النَّبِيِّ صلى الله عليه وسلم قَالَ الْقَائِلُ‏:‏ السَّلاَمُ عَلَى اللهِ، فَلَمَّا قَضَى النَّبِيُّ صلى الله عليه وسلم صَلاَتَهُ قَالَ‏:‏ مَنِ الْقَائِلُ‏:‏ السَّلاَمُ عَلَى اللهِ‏؟‏ إِنَّ اللَّهَ هُوَ السَّلاَمُ، وَلَكِنْ قُولُوا‏:‏ التَّحِيَّاتُ لِلَّهِ وَالصَّلَوَاتُ وَالطَّيِّبَاتُ، السَّلاَمُ عَلَيْكَ أَيُّهَا النَّبِيُّ وَرَحْمَةُ اللهِ وَبَرَكَاتُهُ، السَّلاَمُ عَلَيْنَا وَعَلَى عِبَادِ اللهِ الصَّالِحِينَ، أَشْهَدُ أَنْ لاَ إِلَهَ إِلاَّ اللَّهُ، وَأَشْهَدُ أَنَّ مُحَمَّدًا عَبْدُهُ وَرَسُولُهُ قَالَ‏:‏ وَقَدْ كَانُوا يَتَعَلَّمُونَهَا كَمَا يَتَعَلَّمُ أَحَدُكُمُ السُّورَةَ مِنَ الْقُرْآنِ‏.‏

حدثنا أبو نعيم، قال‏:‏ حدثنا محل قال‏:‏ سمعت شقيق بن سلمة أبا وائل يذكر، عن ابن مسعود قال‏:‏ كانوا يصلون خلف النبي صلى الله عليه وسلم قال القائل‏:‏ السلام على الله، فلما قضى النبي صلى الله عليه وسلم صلاته قال‏:‏ من القائل‏:‏ السلام على الله‏؟‏ إن الله هو السلام، ولكن قولوا‏:‏ التحيات لله والصلوات والطيبات، السلام عليك أيها النبي ورحمة الله وبركاته، السلام علينا وعلى عباد الله الصالحين، أشهد أن لا إله إلا الله، وأشهد أن محمدا عبده ورسوله قال‏:‏ وقد كانوا يتعلمونها كما يتعلم أحدكم السورة من القرآن‏.‏


Ibn Mas'ud said, " They were doing the prayer with the Prophet, may Allah bless him and grant him peace, and someone said, 'Peace be upon Allah.' When the Prophet, may Allah bless him and grant him peace, finished the prayer, he said, 'Who said "Peace be upon Allah"? Allah is Peace. Rather say, "Greetings belong to Allah and good words and prayers. Peace be upon you, O Prophet and the mercy of Allah and His blessings. Peace be upon us and upon all the right-acting slaves of Allah. I testify that there is no god but Allah and I testify that Muhammad is His slave and Messenger."


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
আল-আদাবুল মুফরাদ
পরস্পর সালাম বিনিময়

পরিচ্ছেদঃ ৪৫৩- দুই মুসলিমের সাক্ষাতকালে সালাম প্রদানকারী মুসলিমের অধিকার।

১০০০। আবু হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত। নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ এক মুসলিমের উপর অপর মুসলিমের পাঁচটি কর্তব্য রয়েছে। জিজ্ঞেস করা হলো, ইয়া রাসূলাল্লাহ! তা কি কি? তিনি বলেনঃ (১) তুমি তার সাথে সাক্ষাত করলে তাকে সালাম দিবে। (২) সে তোমাকে দাওয়াত দিলে তুমি তার দাওয়াত কবুল করবে। (৩) সে তোমার কাছে পরামর্শ বা উপদেশ চাইলে তুমি তাকে সৎ পরামর্শ বা সদুপদেশ দিবে। (৪) সে হাঁচি দিয়ে আলহামদু লিল্লাহ বললে তুমি তার হাঁচির জবাব দিবে। (৫) সে মারা গেলে তুমি তার সংগী হবে (জানাযা পড়বে ও দাফন করবে)। (বুখারী, মুসলিম)

بَابُ حَقُّ الْمُسْلِمِ عَلَى الْمُسْلِمِ أَنْ يُسَلِّمَ عَلَيْهِ إِذَا لَقِيَهُ

حَدَّثَنَا إِسْمَاعِيلُ، قَالَ‏:‏ حَدَّثَنَا مَالِكٌ، عَنِ الْعَلاَءِ بْنِ عَبْدِ الرَّحْمَنِ، عَنْ أَبِيهِ، عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ، عَنِ النَّبِيِّ صلى الله عليه وسلم قَالَ‏:‏ حَقُّ الْمُسْلِمِ عَلَى الْمُسْلِمِ سِتٌّ، قِيلَ‏:‏ وَمَا هِيَ‏؟‏ قَالَ‏:‏ إِذَا لَقِيتُهُ فَسَلِّمْ عَلَيْهِ، وَإِذَا دَعَاكَ فَأَجِبْهُ، وَإِذَا اسْتَنْصَحَكَ فَانْصَحْ لَهُ، وَإِذَا عَطَسَ فَحَمِدَ اللَّهَ فَشَمِّتْهُ، وَإِذَا مَرِضَ فَعُدْهُ، وَإِذَا مَاتَ فَاصْحَبْهُ‏.‏

حدثنا إسماعيل، قال‏:‏ حدثنا مالك، عن العلاء بن عبد الرحمن، عن أبيه، عن أبي هريرة، عن النبي صلى الله عليه وسلم قال‏:‏ حق المسلم على المسلم ست، قيل‏:‏ وما هي‏؟‏ قال‏:‏ إذا لقيته فسلم عليه، وإذا دعاك فأجبه، وإذا استنصحك فانصح له، وإذا عطس فحمد الله فشمته، وإذا مرض فعده، وإذا مات فاصحبه‏.‏


Abu Hurayra said, "I heard the Messenger of Allah, may Allah bless him and grant him peace, say, 'The rights a Muslim has over another Muslim are six." He was asked, "What are they?" He replied, "When he meets him, he should greet him, When he gives him an invitation, he should accept. When he asks him for advice, he should give him good counsel. When he sneezes and praises Allah, he should wish him mercy. when he is ill, he should visit him. When he dies, he should accompany him."


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
আল-আদাবুল মুফরাদ
পরস্পর সালাম বিনিময়

পরিচ্ছেদঃ ৪৫৪- পথচারী উপবিষ্ট ব্যক্তিকে সালাম দিবে।

১০০১। আবদুর রহমান ইবনে শিবল (রাঃ) বলেন, আমি নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-কে বলতে শুনেছিঃ আরোহী যেন পদচারীকে সালাম দেয়। পদচারী যেন উপবিষ্ট ব্যক্তিকে সালাম দেয়, অল্প সংখ্যক যেন বেশি সংখ্যককে সালাম দেয়। যে ব্যক্তি সালামের জবাব দিলো তার সওয়াব তাদের জন্য আর যে ব্যক্তি সালামের জবাব দিলো না তার জন্য কিছুই নাই। (আহমাদ)

بَابُ يُسَلِّمُ الْمَاشِي عَلَى الْقَاعِدِ

حَدَّثَنَا سَعِيدُ بْنُ الرَّبِيعِ، قَالَ‏:‏ حَدَّثَنَا عَلِيُّ بْنُ الْمُبَارَكِ، عَنْ يَحْيَى، قَالَ‏:‏ حَدَّثَنَا زَيْدُ بْنُ سَلاَّمٍ، عَنْ جَدِّهِ أَبِي سَلاَّمٍ، عَنْ أَبِي رَاشِدٍ الْحُبْرَانِيِّ، عَنْ عَبْدِ الرَّحْمَنِ بْنِ شِبْلٍ قَالَ‏:‏ سَمِعْتُ النَّبِيَّ صلى الله عليه وسلم يَقُولُ‏:‏ لِيُسَلِّمِ الرَّاكِبُ عَلَى الرَّاجِلِ، وَلْيُسَلِّمِ الرَّاجِلُ عَلَى الْقَاعِدِ، وَلْيُسَلِّمِ الأَقَلُّ عَلَى الأَكْثَرِ، فَمَنْ أَجَابَ السَّلاَمَ فَهُوَ لَهُ، وَمَنْ لَمْ يُجِبْ فَلا شَيْءَ لَهُ‏.‏

حدثنا سعيد بن الربيع، قال‏:‏ حدثنا علي بن المبارك، عن يحيى، قال‏:‏ حدثنا زيد بن سلام، عن جده أبي سلام، عن أبي راشد الحبراني، عن عبد الرحمن بن شبل قال‏:‏ سمعت النبي صلى الله عليه وسلم يقول‏:‏ ليسلم الراكب على الراجل، وليسلم الراجل على القاعد، وليسلم الأقل على الأكثر، فمن أجاب السلام فهو له، ومن لم يجب فلا شيء له‏.‏


'Abdu'r-Rahman ibn Shibl said that he heard the Prophet, may Allah bless him and grant him peace, said, "The person riding should greet the person on foot. The person on foot should greet the person who is seated. The smaller group should greet the large. Whoever answers the greeting, that is for him. Whoever does not answer it, has nothing."


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
আল-আদাবুল মুফরাদ
পরস্পর সালাম বিনিময়

পরিচ্ছেদঃ ৪৫৪- পথচারী উপবিষ্ট ব্যক্তিকে সালাম দিবে।

১০০২। আবু হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ আরোহী পদচারীকে সালাম দিবে, পদচারী উপবিষ্ট ব্যক্তিকে সালাম দিবে এবং কম সংখ্যক বেশী সংখ্যককে সালাম দিবে। (বুখারী, মুসলিম)

بَابُ يُسَلِّمُ الْمَاشِي عَلَى الْقَاعِدِ

حَدَّثَنَا إِسْحَاقُ، قَالَ‏:‏ أَخْبَرَنَا رَوْحُ بْنُ عُبَادَةَ قَالَ‏:‏ أَخْبَرَنِي ابْنُ جُرَيْجٍ قَالَ‏:‏ أَخْبَرَنِي زِيَادٌ، أَنَّ ثَابِتًا أَخْبَرَهُ، وَهُوَ مَوْلَى عَبْدِ الرَّحْمَنِ، يَرْوِيهِ عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ، عَنْ رَسُولِ اللهِ صلى الله عليه وسلم قَالَ‏:‏ يُسَلِّمُ الرَّاكِبُ عَلَى الْمَاشِي، وَالْمَاشِي عَلَى الْقَاعِدِ، وَالْقَلِيلُ عَلَى الْكَثِيرِ‏.‏

حدثنا إسحاق، قال‏:‏ أخبرنا روح بن عبادة قال‏:‏ أخبرني ابن جريج قال‏:‏ أخبرني زياد، أن ثابتا أخبره، وهو مولى عبد الرحمن، يرويه عن أبي هريرة، عن رسول الله صلى الله عليه وسلم قال‏:‏ يسلم الراكب على الماشي، والماشي على القاعد، والقليل على الكثير‏.‏


Abu Hurayra reported that the Messenger of Allah, may Allah bless him and grant him peace, said, "The person riding greets the person walking. The person walking greets the person sitting. The small group greets the large group."


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
আল-আদাবুল মুফরাদ
পরস্পর সালাম বিনিময়

পরিচ্ছেদঃ ৪৫৪- পথচারী উপবিষ্ট ব্যক্তিকে সালাম দিবে।

১০০৩। জাবের (রাঃ) বলেন, দুইজন পদচারী একত্র হলে তাদের মধ্যে যে আগে সালাম দেয় সে অধিক উত্তম।

بَابُ يُسَلِّمُ الْمَاشِي عَلَى الْقَاعِدِ

قَالَ ابْنُ جُرَيْجٍ‏:‏ فَأَخْبَرَنِي أَبُو الزُّبَيْرِ، أَنَّهُ سَمِعَ جَابِرًا يَقُولُ‏:‏ الْمَاشِيَانِ إِذَا اجْتَمَعَا فَأَيُّهُمَا بَدَأَ بِالسَّلاَمِ فَهُوَ أَفْضَلُ‏.‏

قال ابن جريج‏:‏ فأخبرني أبو الزبير، أنه سمع جابرا يقول‏:‏ الماشيان إذا اجتمعا فأيهما بدأ بالسلام فهو أفضل‏.‏


Jabir said, "When two people walking meet, then the one who gives the greeting first is the better of them."


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
আল-আদাবুল মুফরাদ
পরস্পর সালাম বিনিময়

পরিচ্ছেদঃ ৪৫৫- আরোহী উপবিষ্ট ব্যক্তিকে সালাম দিবে।

১০০৪। আবু হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ আরোহী পদচারীকে সালাম দিবে, পদচারী উপবিষ্ট ব্যক্তিকে সালাম দিবে এবং কম সংখ্যক বেশী সংখ্যককে সালাম দিবে। (বুখারী, মুসলিম)

بَابُ تَسْلِيمِ الرَّاكِبِ عَلَى الْقَاعِدِ

حَدَّثَنَا نُعَيْمُ بْنُ حَمَّادٍ، قَالَ‏:‏ أَخْبَرَنَا ابْنُ الْمُبَارَكِ، قَالَ‏:‏ أَخْبَرَنَا مَعْمَرٌ، عَنْ هَمَّامٍ، عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ، عَنِ النَّبِيِّ صلى الله عليه وسلم قَالَ‏:‏ يُسَلِّمُ الرَّاكِبُ عَلَى الْمَاشِي، وَالْمَاشِي عَلَى الْقَاعِدِ، وَالْقَلِيلُ عَلَى الْكَثِيرِ‏.‏

حدثنا نعيم بن حماد، قال‏:‏ أخبرنا ابن المبارك، قال‏:‏ أخبرنا معمر، عن همام، عن أبي هريرة، عن النبي صلى الله عليه وسلم قال‏:‏ يسلم الراكب على الماشي، والماشي على القاعد، والقليل على الكثير‏.‏

হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
আল-আদাবুল মুফরাদ
পরস্পর সালাম বিনিময়

পরিচ্ছেদঃ ৪৫৫- আরোহী উপবিষ্ট ব্যক্তিকে সালাম দিবে।

১০০৫। ফাদালা (রাঃ) থেকে বর্ণিত। নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ অশ্বারোহী উপবিষ্ট ব্যক্তিকে সালাম দিবে এবং কম সংখ্যক বেশী সংখ্যককে সালাম দিবে। (তিরমিযী, নাসাঈ, দারিমী, ইবনে হিব্বান)

بَابُ تَسْلِيمِ الرَّاكِبِ عَلَى الْقَاعِدِ

حَدَّثَنَا أَصْبَغُ قَالَ‏:‏ أَخْبَرَنِي ابْنُ وَهْبٍ قَالَ‏:‏ أَخْبَرَنِي ابْنُ هَانِئٍ، عَنْ عَمْرِو بْنِ مَالِكٍ، عَنْ فَضَالَةَ، عَنِ النَّبِيِّ صلى الله عليه وسلم قَالَ‏:‏ يُسَلِّمُ الْفَارِسُ عَلَى الْقَاعِدِ، وَالْقَلِيلُ عَلَى الْكَثِيرِ‏.‏

حدثنا أصبغ قال‏:‏ أخبرني ابن وهب قال‏:‏ أخبرني ابن هانئ، عن عمرو بن مالك، عن فضالة، عن النبي صلى الله عليه وسلم قال‏:‏ يسلم الفارس على القاعد، والقليل على الكثير‏.‏


Fadala reported that the Prophet, may Allah bless him and grant him peace, said, "The person riding greets the person sitting and the small group greets the larger."


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
আল-আদাবুল মুফরাদ
পরস্পর সালাম বিনিময়

পরিচ্ছেদঃ ৪৫৬- পদচারী কি আরোহীকে সালাম দিবে?

১০০৬। হুসাইন (রহঃ) থেকে বর্ণিত। এক অশ্বারোহীর সাথে শাবী (রহঃ) এর সাক্ষাত হলে তিনি তাকে প্রথমে সালাম দেন। আমি বললাম, আপনি তাকে প্রথমে সালাম দিলেন? তিনি বলেন, আমি শুরায়হ (রাঃ) কে পদব্ৰজে যেতে প্রথমে সালাম দিতে দেখেছি।

بَابُ‏:‏ هَلْ يُسَلِّمُ الْمَاشِي عَلَى الرَّاكِبِ‏؟‏

حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ كَثِيرٍ، قَالَ‏:‏ أَخْبَرَنَا سُلَيْمَانُ بْنُ كَثِيرٍ، عَنْ حُصَيْنٍ، عَنِ الشَّعْبِيِّ، أَنَّهُ لَقِيَ فَارِسًا فَبَدَأَهُ بِالسَّلاَمِ، فَقُلْتُ‏:‏ تَبْدَأُهُ بِالسَّلاَمِ‏؟‏ قَالَ‏:‏ رَأَيْتُ شُرَيْحًا مَاشِيًا يَبْدَأُ بِالسَّلامِ‏.‏

حدثنا محمد بن كثير، قال‏:‏ أخبرنا سليمان بن كثير، عن حصين، عن الشعبي، أنه لقي فارسا فبدأه بالسلام، فقلت‏:‏ تبدأه بالسلام‏؟‏ قال‏:‏ رأيت شريحا ماشيا يبدأ بالسلام‏.‏


Ash-Sha'bi said that he met a rider and gave the greeting first. I said, "Did you give the greeting first?" He said, "I saw Shurayh walking and he gave the greeting first."


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
আল-আদাবুল মুফরাদ
পরস্পর সালাম বিনিময়
দেখানো হচ্ছেঃ থেকে ২০ পর্যন্ত, সর্বমোট ৭৪ টি রেকর্ডের মধ্য থেকে পাতা নাম্বারঃ 1 2 3 4 পরের পাতা »