• ৬৯৯২৯ টি সর্বমোট হাদিস আছেঃ
  • ৬৯৭০ টি প্রশ্নোত্তর ও ফিকাহঃ

 

 

 

 


  • helaluzzaman
  • 2014-04-01

আসসলামু আলাইকুম...

আপনাদের সাইটটি আমার কাছে দিন দিন ভালো লাগছে। আরবিগুলো পড়তে লাগলে সমস্যায় পড়ে যাই। কারণ লেখাগুলো উঁচু-নিচু বা লাইন সিকুয়েন্স ঠিক নাই। যার ফলে পড়তে গেলে অসুবিধায় পড়তে হয়। দয়া করে সমস্যাটা দূর করে বাধিত করবেন।

আমার ইচ্ছা সাপ্তাহে হোক, মাসে হোক কোনো একটা সময় আল্লাহর দ্বীনের খেদমতে আপনাদের সাথে কাজ করি। যদি সুযোগ থাকে জানাবেন। ফোন : ০১৭৫৬৯৫১৪৭৬, হেলালুজ্জামান, গ্রাফিক্স ডিজাইনার।


ওয়ালাইকুম আস-সালাম, যদি আপনার সমস্যাটি একটু বিস্তারিত বলতেন তাহলে সুবিধা হত। একটি ছবি তুলে পাঠিয়ে দিন আমাদের ইমেইল ঠিকানায়। জাজাকাল্লাহু খায়ের।

  • helaluzzaman
  • 2014-03-30

Khub bhalo padakkhep. Bar bar parte iccha kore. Tawhid publication er sab gulo hadith boi aro dhroto update kora darkar amra allah'r sahajjo kamona kari. helaluzzaman


জাজাকাল্লাহু খায়ের আপনার মন্তব্যের জন্য। ইনশাআল্লাহ আমরা আমাদের সাধ্যমত চেষ্টা করব যত দ্রুত সম্ভব কাজগুলি শেষ করার জন্য।

  • মোহাম্মদ মুরাদ হোসেন
  • 2014-03-29

আসসালামুআলাইকুম। ভাই গত সপ্তাহে প্রশ্নোত্তর পেজ সম্পূর্ন ফিলআপ করে আমি দুইবারে মোট পাঁচটি গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন সেন্ড করেছি। কিন্তু একটিও পাবলিশ করা হয়নি বা উত্তর দেওয়া হয়নি। কারনটা জানতে চাচ্ছি।

ওয়ালাইকুম আস-সালাম, ভাই যে সমস্ত শায়েখগন প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন উনারা বেশীরভাগ দেশের বাইরে থাকেন এবং প্রচুর ব্যাস্ততার ভিতরেও উনারা আমাদেরকে সময় দেন। তাই আমাদের পক্ষে বলা সম্ভব নয় কখন উত্তর দেয়া সম্ভব হবে। আর যদি একসাথে বেশি প্রশ্ন করেন সে ক্ষেত্রে উত্তর পেতে অনেক দেরি হবে এবং প্রশ্নের ধরনের উপরও উত্তরের আগে বা পরে হয়ে থাকে। আশা করি বিষয়টি বুঝতে পেরেছেন।

  • মো: আসাদুজ্জামান
  • 2014-03-26

ওয়েবসাইটটি অনেক তথ্য সমৃদ্ধ, প্রথম দেখাতে আমার খুব ভাল লেগেছে। যে কেউ খুব সহজে ইসলামের না জানা অনেক তথ্য এখান থেকে পেতে পারবেন। যে বা যারা এই মহতি উদ্যোগ নিয়েছেন তাদের জন্য মহান রাব্বুল আলামীনের কাছে অনেক অনেক শুকরিয়া জ্ঞাপন করছি। আমিন।


জাজাকাল্লাহু খায়ের আপনার মন্তব্যের জন্য। আমাদের জন্য আল্লাহর কাছে দু'আ করবেন যেন তিনি এই কাজকে কবুল করেন এবং এর উসিলায় পরকালে বিনা হিসাবে নাজাদের ব্যাবস্থা করেন।

  • আহমেদ রাসেল
  • 2014-03-26

আপনাদের অসংখ ধন্যবাদ আপনাদের এই ওয়েব সাইটের মাধ্যমে ইসলাম সম্পর্কে অনেক কিছু জানার সুযোগ করে দিয়ছেন বলে। যিনি আমাদের প্রশ্নের উত্তর দেন তাঁর সম্পর্কে জানতে চাই।

জাজাকাল্লাহু খায়ের আপনার মন্তব্যের জন্য। এই সাইটে বেশ কয়েকজন শায়েখ প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন, উনারা কেউ কেউ মদিনা থাকেন, কেউবা আমেরিকা এবং কেউবা ইউকে।

  • বক্কার
  • 2014-03-26

আসলামুআলাইকুম ভাইয়া

প্রথমে আপনাকে ধন্যবাদ জানাই আমার প্রশ্নের জন্য।

এখন আমার আরো দুইটা প্রশ্ন আছে উত্তর পেলে খুশি হব।

প্রশ্ন নং ১। এমন যদি হয় স্বামী এবং স্ত্রী কোন এক জায়গায় বেরাতে গেল যেখানে যেতে গিয়ে তাদের খাবার পানি শেষ হয়ে গেল এবং স্বামী অসুস্থ হয়ে পড়ল খাবার পানি নেই এমতাবস্থায় কি স্ত্রী তার বুকের দুধ স্বামীকে পান করাতে পারবে? শরিয়তে এর বিধান কি? কিংবা সে যদি নিজেও পান করতে চায় তার ই বা বিধান কি ইসলামে?

প্রশ্ন নং ২। কোন স্বামী যদি তার স্ত্রীর বুকের দুধ পান করে ইচ্ছাকৃত বা অন-ইচ্ছাকৃত তাহলে তার বিধান ই বা কি ইসলামে? কোন স্বামী যদি তার স্ত্রীর বুকের দুধ পান করতে চায় তা হলে সে কি তা পান করতে পারবে এ বিষয়ে ইসলামে বিধান কি?

প্রশ্ন দুইটার উত্তর পেলে খুশি হব।


ওয়ালাইকুম আস-সালাম, প্রথমত আপনি কমেন্টের পাতায় প্রশ্ন করেছেন আর দ্বিতীয়ত আপনার প্রশ্নগুলি এমন ধরনের যার ভিতরে আসলে ইসলামী শরীয়তের মাসআলা জানতে চাওয়ার উদ্দেশ্য বোঝা যায় না।

  • মো : গোলাম সারোয়ার জালাল
  • 2014-03-25

ইংরেজী আর্টিকেল সফটওয়ারটি কাজ করছে না ডাউনলোড করার পর। একটু দেখবেন।

 


আপনি দয়া করে rub_sanjida@yahoo.com ইমেইলে একটু যোগাযোগ করুন এই বিষয়টি নিয়ে। জাজাকাল্লাহু খায়ের।

  • সাইফুল ইসলাম
  • 2014-03-25

আপনার এই পোস্টটির প্রতি ওলামায়ে দেওবন্দ এর সম্মতি আছে কিনা, জানালে খুশি হব।

 


আপনি কোন পোস্টটির বিষয়ে বলতে চাইছেন আমাদের কাছে তা স্পষ্ট নয়। আর ইসলামের মুল ভিত্তি বা মানদণ্ড আল-কোরআন এবং সহিহ হাদিস। কোন ব্যাক্তি, গোষ্ঠী, দল, ফিরকা ইত্যাদি ইসলামের কোন মানদণ্ড নয়।

  • মুশফিক
  • 2014-03-24

প্রশ্ন করার পর সিকিউরিটি কোড দেওয়ার পরেও প্রশ্ন সেন্ট না হয়ে পুনরায় কোড দিতে বলে। এইটা ঠিক করলে ভাল হয়। 
আর স্বপ্নের ব্যাখ্যা নিয়ে একটা বিভাগ খুললে ভাল হয়। 


আপনি যদি সিকিউরিটি কোড ভুল টাইপ করেন তাহলে সেটা পুনরায় দিতে বলবে, এটা সম্পূর্ণ অটোম্যাটিক তাই আসলে এখানে ঠিক করার কিছু নেই। আর স্বপ্নের ব্যাখ্যা দেয়া বা এই ধরনের বিষয় মূলত আমাদের কাজের অন্তর্ভুক্ত নয় বলে দুঃখিত।

  • আবিদ হাসান
  • 2014-03-22

আস-সালামুয়ালাইকুম।

'ইসলামে ব্যবসা বানিজ্য'/ ইসলামী অর্থনীতি-র নিয়ম/হাদীস বিষয় নিয়ে একটি আলোচনা থাকলে অনেক মানুষ উপকৃত হতো বলে আমি মনে করি। কারন আমাদের আমল-ইবাদতের একটি গুরুত্বপূর্ন অংশ হল "হালাল উপার্জন", হালাল রুজী ভক্ষন । অনেক মানুষ হালাল পন্যের ব্যবসার সাথে হারাম পন্য যেমনঃ ছিগারেট, জর্দা, বিয়ার/মদ বিক্রি করেন। আবার অনেকে অধিক দামের আশায় পন্যসামগ্রী (বিশেষ সময়ে- রমযান মাস) স্টক করে রাখেন  , বাকীতে পন্য বিক্রি করলে বেশী দাম রাখেন , ব্যবসা করার জন্য সুদ লেনদেন কারী ব্যাংক থেকে ঋন গ্রহন করেন । এই সকল বিষয়ে পরিষ্কার ধারনা থাকলে অনেক মানুষ ব্যবসা ক্ষেত্রে সুদ, প্রতারনা, ফটকাবাজি হতে নিজেদের মুক্ত রেখে হালাল উপর্জনে সক্ষম হত । 

আল্লাহ হাফেজ।


ওয়ালাইকুম আস-সালাম। হালাল উপার্জন সম্পর্কে জানতে দেখতে পারেন আমাদের এই লিঙ্কে। জাজাকাল্লাহু খায়ের। 

দেখানো হচ্ছেঃ  101 থেকে  110 পর্যন্ত এবং সর্বমোট আছে 151  টি কমেন্ট।

PAGE: 11 OF 16
প্রতি পাতাতে   টি কমেন্ট