• ৫৬৪০৩ টি সর্বমোট হাদিস আছেঃ
  • ৫৭৫৬ টি প্রশ্নোত্তর ও ফিকাহঃ

 

 

 

 


কাউকে পাথর মারার প্রতিনিধি বানিয়ে দিয়ে তাঁর পাথর মারার পূর্বে হাজীর মিনা ত্যাগ করা যাবে কি?


প্রতিনিধি পাথর না মারা পর্যন্ত হাজীর মিনা ত্যাগ করা যাবে না। সুতরাং ১২ তারিখের সকালে কাউকে পাথর মারতে প্রতিনিধি নিযুক্ত করে মিনা ত্যাগ করা বৈধ নয়। ৩৯৪ (ফাতাওয়া ইসলামিয়্যাহ ২/২৪০-২৪২)

তাশরীকের (১১, ১২ ও ১৩ তারিখের) দিনগুলিতে সকালে পাথর মারলে শুদ্ধ হবে কি?


তাশরীকের (১১, ১২ ও ১৩ তারিখের) দিনগুলিতে সূর্য ঢলার আগে পাথর মারা শুদ্ধ ও যথেষ্ট নয়। সূর্য ঢলার পূর্বে পাথর মেরে সফর করে থাকলে মক্কায় ফিদয়্যাহ লাগবে। (তবে ভিড়ের চাপে হাজী মরার ফলে আধুনিক ফতোয়া অনুযায়ী সকালেও পাথর মারা চলবে।)

৭ টি পাথরকেই একই সঙ্গে ছুঁড়ে মারলে, ছোট জামরাহ থেকে শুরু না করে বিপরীত দিকে বড় জামরাহ থেকে শুরু করে পাথর মেরে থাকলে শুদ্ধ হবে কি?


৭ টি পাথরকেই একই সঙ্গে ছুঁড়ে মারলে, ছোট জামরাহ থেকে শুরু না করে বিপরীত দিকে বড় জামরাহ থেকে শুরু করে পাথর মেরে থাকলেও মক্কায় দম লাগবে। ৩৯৫ (ফাতাওয়া ইসলামিয়্যাহ ২/২৮৫, ২৮৬)অবশ্য সময় থাকতে কাযা করে নিলে দম লাগবে না।

পাথর কি দেওয়ালে লাগা জরুরী? দেওয়ালে লেগে যদি হওযে না পড়ে, তাহলে যথেষ্ট কি? পাথর যদি না ছুঁড়ে হওযের কিনারায় দাঁড়িয়ে তাতে ছেড়ে দেওয়া হয়, তাহলে শুদ্ধ হবে কি?


পাথর কি দেওয়ালে লাগা জরুরী নয়। জরুরী হল হওযে পড়া। হওযে না পড়লে দম লাগবে। ৩৯৬ (ফাতাওয়া ইবনে উষাইমীন ২/৬৩৫-৬৩৬) যেমন পাথর হওযে ফেলে দিলে যথেষ্ট নয়; বরং তা ছুঁড়ে মেরে হওযে ফেলতে হবে।

রমই শেষ হওয়ার পূর্বে পাথর শেষ হয়ে গেলে কি করা যাবে? হওযের নিকটবর্তী পাথর নিয়ে মারা যাবে কি?


রমই শেষ হওয়ার পূর্বে পাথর শেষ হয়ে গেলে হওয থেকে দূরে কোন জায়গা হতে পাথর কুড়িয়ে এনে বাকী রমই পূর্ণ করে নেওয়া যাবে। ৩৯৭ (ঐ ২৩৬)

রমইর জন্য কি পাথর বা কাঁকরই হতে হবে?


রমইর পাথর পাথরই হতে হবে। রত্ন, মাটি সিমেন্ট বা পিচের ঢেলা হলে তা দিয়ে রমই সহীহ নয়। ৩৯৮ (আল-মুমতে ৭/৩৫৭)

মিনায় রাত্রিবাস ও সমস্ত রমই ত্যাগ করলে কি প্রত্যেকটির বিনিময়ে এক একটি ফিদয়্যাহ লাগবে?


মিনায় রাত্রিবাস ও সমস্ত রমই ত্যাগ করলে ১টি মাত্র ফিদয়্যাহ দিলেই যথেষ্ট হবে। ৩৯৯ (মাজাল্লাতুল বুহূসিল ইসলামিয়্যাহ ২৩/৯৪)অবশ্য ফিদয়্যাহ দেওয়ার পর পুনরায় কোন ওয়াজেব ত্যাগ করলে পুনরায় ফিদয়্যাহ লাগবে।

বিদায়ী তওয়াফ করার আগে মহিলার মাসিক শুরু হয়েছে। কেউ কেউ দুর্বল ও অসুস্থ হয়ে পড়েছে। ওদিকে সফর সঙ্গীরা যথাসময়ে বিদায় নিচ্ছে। তাহলে মহিলা ও অসুস্থ ব্যক্তি বিদায়ী তওয়াফ না করতে পারলে কি দম লাগবে?


ঋতুমতী মহিলার জন্য তওয়াফ বিদা মাফ। দুর্বল ও রোগী হাজীদের বহন করে বিদায়ী তওয়াফ করতে হবে। ত্যাগ করলে দম লাগবে। ৪০০ (মাজাল্লাতুল বুহূসিল ইসলামিয়্যাহ  ৬/২৫৪, ১৪/১৩৭)

বিদায়ী তওয়াফের পর কিছু কেনা কাটা করায় ও সঙ্গীদের অপেক্ষায় কিছু দেরী হওয়ায় দোষ আছে কি?


তওয়াফে বিদা’র পরপরই মক্কা ত্যাগ করতে হবে। বহু দেরী করে ফেললে পুনরায় তওয়াফ করতে হবে। অবশ্য তওয়াফের পর কিছু কেনা কাটা করায় ও সঙ্গীদের অপেক্ষায় কিছু দেরী হওয়ার দোষ নেই। ৪০১ (ফাতাওয়া মুহিম্মাহ ৪৩ পৃঃ)

সময় বাঁচাতে গিয়ে সফরের দিন মক্কায় গিয়ে বিদায়ী তওয়াফ করে পুনরায় মিনায় এসে কাঁকর মেরে বাড়ী ফেরা যায় কি?


সফরের দিন মক্কায় গিয়ে বিদায়ী তওয়াফ করে পুনরায় মিনায় এসে কাঁকর মেরে বাড়ী ফেরা বৈধ নয়। বরং মিনা ত্যাগ করে মক্কায় গিয়ে বিদায়ী তওয়াফ করে বাড়ী ফিরতে হবে। ৪০২ (দালীলুল হাজ্জ দ্রঃ)

পেজ ন্যাভিগেশন

সর্বমোটঃ  126 টি বিষয় দেখান হচ্ছে।