• ৫৬৪০৩ টি সর্বমোট হাদিস আছেঃ
  • ৫৭৫৬ টি প্রশ্নোত্তর ও ফিকাহঃ

 

 

 

 


শো-রুমে একাধিক গাড়ি রাখা আছে বিক্রির জন্য, তাতে কি যাকাত আছে?


যে জিনিস ব্যবসার জন্য রাখা আছে, সে জিনিসের মূল্য নিসাব পরিমাণ হলে ফি-বছর তাতে যাকাত আছে। পন্যদ্রব্য, গাড়ি, জমি, বাড়ি ইত্যাদি ব্যবসার জন্য হলে তাতে যাকাত আছে। ১৩৫(ইবনে বায, ইবনে জিবরীন)

ব্যাংক বা কোম্পানির শেয়ারে কি যাকাত আছে?


পণ্যদ্রব্যের মতোই ফি-বছর তাঁর যাকাত আছে। ২৩৬ (লাজনাহ দায়েমাহ)

হিরের যাকাত আছে কি?


হিরের যাকাত নেই। তবে পণ্যদ্রব্য হলে তাতে নিয়মিত যাকাত আছে। ২৩৭ (ইবনে বায)

ফিতরার যাকাত কি মালের যাকাতের মতোই আট শ্রেণীর হকদারের মাঝে বিতরণ করা যাবে?


ফিতরার যাকাত আম নয়, বরং তা কেবল মিসকীনদের জন্য খাস। ২৩৮ (বানী, তামামুল মিন্নাহ)

যাকাতের মাল কি কোন মিসকীনকে হজ্জ করার জন্য দেওয়া যায়?


যাকাতের মাল কোন মিসকীনকে হজ্জ করার জন্য দেওয়া যায়। যেহেতু হজ্জ ‘সাবীলিল্লাহ’র পর্যায়ভুক্ত। ২৩৯ (আলবানী)

আমার বেতন মাসিক ত্রিশ হাজার টাকা। আমার নিসাব পরিমাণ টাকা ব্যাংকে আছে। আমি কি প্রত্যেক মাসের বেতনের টাকার যাকাত প্রত্যেক মাসেই বের করব?


যে নিসাব পরিমাণ টাকা যে মাসে হাতে এসেছে, সেই টাকা বছর ঘুরলে সেই মাসের যাকাত আগাম দেওয়া হয়, তাহলে তা উত্তম। সুতরাং সাড়া বছরের মধ্যেজদি বরকতময় রমযান মাসকে যাকাত আদায়ের জন্য নির্ধারিত করা হয় এবং শাবান মাসের বেতনের যাকাতও সব টাকার সাথে মিলিয়ে আদায় করে দেওয়া হয়, তাহলে সমস্যা এড়ানো যাবে। আল্লাহ্‌র পথে দু’টাকা  বেশি যাক, তা ভাল। কিন্তু কম যেন না হয়।

অলঙ্কারের যাকাত দওয়ার সময় কি মা মেয়ের অলঙ্কার একত্রিত করে যাকাত দিতে হবে?


না। প্রত্যেক মহিলার অলঙ্কার নিসাব পরিমাণ (৮৫ গ্রাম) হলে তবেই যাকাত লাগবে। মায়ের সাথে সাথে মেয়ের অলঙ্কার একত্রিত করে নিসাব দেখা জরুরী নয়।

আমি কীভাবে স্বর্ণের যাকাত আদায় করবে?


আপনার কাছে যে মানের স্বর্ণ আছে, সেই মানের স্বর্ণের বাজার দর জেনে নেবেন। তাঁর সঠিক ওজন জেনে নেবেন। অতঃপর তাঁর মূল্য নির্ধারণ করে প্রত্যেক একশ টাকায় আড়ায় টাকা, প্রত্যেক হাজারে ২৫০ এবং প্রত্যেক লাখে ২৫০০ টাকা যাকাত আদায় করবেন।

অতিরিক্ত গাড়ি ও বাড়ীর যাকাত কীভাবে আদায় করবে?


বাড়ী বা গাড়ীর যাকাত নেই। তবে যদি তা ব্যবসার সামগ্রী হয়, তাহলে তাঁর মুল্যে যাকাত আছে। আর ভাড়ার জন্য হলে ভাড়ার টাকা নিসাব পরিমাণ হবে তাতে যাকাত আছে।

জামাআতের লোকেরা নিজ নিজ যাকাত ইমাম সাহেবের নিকট জমা করে। যাতে তিনি সঠিক জায়গায় ব্যয় করতে পারেন। তিনি অভাবী হলে জামাআতকে না জানিয়ে সেই যাকাতের কিছু অংশ নিজে ব্যবহার করতে পারেন কি না?


না। কারণ তিনি জামাআতের আমানতদার। অভাবী হলেও তিনি তাঁদেরকে না জানিয়ে তা নিতে পারেন না। ২৪০ (ইবনে জিবরীন)

পেজ ন্যাভিগেশন

সর্বমোটঃ  30 টি বিষয় দেখান হচ্ছে।
123পরের পাতাশেষের পাতা