Donate Now
কীবোর্ড সিলেক্টরঃ ফনেটিক বিজয় ইউনিজয়   ইংরেজী
হাদিস প্রশ্নোত্তর/দু'আ/গ্রন্থ প্রশ্নোত্তর (বাংলা হাদিস) গুগল হুবুহু সার্চ
 
 
Donate Now!

প্রশ্ন করেছেনঃ কাজী হাসান আল মাহমুদ | তারিখঃ 2014-01-12

প্রশ্ন নম্বরঃ
82

পুরুষের স্তনে হাত দেওয়া নাকি মহিলাদের স্তনে হাত দেওয়া থেকে বেশি গুনাহ্? এই ব্যাপারে জানতে চাই।

উত্তরঃ

বিসমিল্লাহ ওয়াস-সালাতু ওয়াস-সালামু আলা রসূলিল্লাহ ওয়ালা আলিহি ওয়া মান ওয়ালাহ।

আল্লাহ তা'আলা ঈমানদারদেরকে ফাহিশা [যৌনতা সম্পর্কিত অশ্লীল] কাজ করতে নিষেধ করেছেন। তিনি যিনার [ব্যভিচার/অবৈধ যৌনাচার] নিকটেও যেতে নিষেধ করেছেন। আল্লাহ তা'আলা বলেছেনঃ

وَلاَ تَقْرَبُواْ الزِّنَى إِنَّهُ كَانَ فَاحِشَةً وَسَاء سَبِيلاً

"যিনার ধারে-কাছেও যাবে না। নিশ্চয় তা অশ্লীল ও গর্হিত একটা পথ।" [১৭ঃ ৩২]

আল্লাহ শুধু যিনা করতেই নিষেধ করেন নি; বরং যে সমস্ত কর্ম যিনায় লিপ্ত করে দিতে পারে তা থেকেও দূরে থাকতে নির্দেশ দিচ্ছেন এই আয়াতে। আর যিনা মানুষ তার বিভিন্ন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ দিয়ে করে। রসূলুল্লাহ (সঃ) জানিয়েছেন মানুষের মন, হাত, পা, ইত্যাদি সবই যিনায় অংশগ্রহণ করে। স্বাভাবিকভাবে হাত দিয়ে স্পর্শ করা হাতের যিনা। আপনার স্ত্রী ছাড়া অন্য কোন নারীর স্তনে হাত লাগানো অবশ্যই গুনাহের কাজ। যৌনতার উদ্দেশ্যে এরূপ কাজ বিরাট গুনাহের কাজ। কোন ব্যক্তি নারীদের সাথে যিনা করলে গুনাহ হবে। একইভাবে কোন পুরুষ অন্য পুরুষের প্রতি যৌন আকাংখা পোষণ করাও গুনাহ এবং এটা যৌন বিকৃতি। এই কাজ মানবেতিহাসে প্রথম শুরু করে লূত [আলায়হিস-সালাম] এর জাতি। আল্লাহ তা'আলা লূতের (আঃ) মাধ্যমে আমাদের জানিয়েছেন কুরআনেঃ

وَلُوطًا إِذْ قَالَ لِقَوْمِهِ إِنَّكُمْ لَتَأْتُونَ الْفَاحِشَةَ مَا سَبَقَكُم بِهَا مِنْ أَحَدٍ مِّنَ الْعَالَمِينَ

আর প্রেরণ করেছি লূতকে। যখন সে তার সম্প্রদায়কে বলল, তোমরা এমন ফাহিশা কাজ করছ, যা তোমাদের পূর্বে পৃথিবীর কেউ করেনি। তোমরা কি পুংমৈথুনে লিপ্ত আছ, রাহাজানি করছ এবং নিজেদের মজলিসে গর্হিত কর্ম করছ? [২৯ঃ ২৮-২৯]

তাই এগুলো নিতান্তই গর্হিত কিছু শয়তানী কাজ। পুরুষদের স্তনতো নারীদের স্তনের ন্যায় গঠিত নয়। সেখানে একজন পুরুষ কীভাবে হাত দেয়?  অবৈধ যৌনাকাংখা নিয়ে যেখানেই হাত দেয়া হোক তা গুনাহের কাজ। আর মুসলমানদের সমাজে যারা এ ধরণের অশ্লীলতা ছড়াবে তাদের জন্য আল্লাহ তা'আলা বড় রকমের শাস্তির ওয়াদা করেছেন, এক্ষেত্রে কোনটা কোনটার ছেয়ে বড় তা নিয়ে কিছুই যায় আসে না। আল্লাহ তা'আলা বলেছেনঃ

إِنَّ الَّذِينَ يُحِبُّونَ أَن تَشِيعَ الْفَاحِشَةُ فِي الَّذِينَ آمَنُوا لَهُمْ عَذَابٌ أَلِيمٌ فِي الدُّنْيَا وَالْآخِرَةِ وَاللَّهُ يَعْلَمُ وَأَنتُمْ لَا تَعْلَمُونَ

নিঃসন্দেহ যারা এটা পসন্দ করে যে যারা ঈমানদারদের মধ্যে ব্যভিচার/অশ্লীলতা প্রসার করুক তাদের জন্য রয়েছে মর্মন্তুদ শাস্তি এই দুনিয়াতে এবং আখেরাতে। আর আল্লাহ্ জানেন, আর তোমরা জান না। [২৪ঃ ১৯]

 

উত্তর দিয়েছেনঃ আবূসামীহাহ সিরাজুল ইসলাম / 2014-01-12



Fatal error: Cannot redeclare EPCNTR_Go_Error() (previously declared in /home4/hadithbd/public_html/counter/counter.php:614) in /home4/hadithbd/public_html/counter/counter.php on line 637