Donate Now
কীবোর্ড সিলেক্টরঃ ফনেটিক বিজয় ইউনিজয়   ইংরেজী
হাদিস প্রশ্নোত্তর/দু'আ/গ্রন্থ প্রশ্নোত্তর (বাংলা হাদিস) গুগল হুবুহু সার্চ
 
 
Donate Now!

প্রশ্ন করেছেনঃ MD. Rashedul Haque | তারিখঃ 2014-01-06

প্রশ্ন নম্বরঃ
25

আমরা জানি, পাঁচ ওয়াক্ত ফরয সালাতের পর সম্মিলিত মোনাজাত করা বিদআত। কিন্তু ফরয সালাতের পর একাকী দু'হাত তুলে মোনাজাত করাটা কি বৈধ?

জুমু'আর নামাজের পর সম্মিলিত মোনাজাত করাটা কি বৈধ?

উত্তরঃ

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহীম

আল্লামা ইবনুল কাইয়্যিম (রঃ) বলেনঃ নবী (সাঃ) নামাযে তাশাহুদের পরে এবং সালামের আগে দুআ করতেন। আবু হুরায়ারা ও ফুযালা (রাঃ)এর হাদীছে তিনি নামাযের এই স্থানে দুআ করার আদেশও দিয়েছেন। (দেখুনঃ সহীহ মুসলিম, হাদীছ নং- ৫৮৮) 

কিন্তু নামাযের পর কিবলামুখী হয়ে কিংবা মুসল্লীদের দিকে ফিরে (একাকী কিংবা সম্মিলিতভাবে) দুআ করা নবী (সাঃ)এর সুন্নাতের অন্তর্ভূক্ত ছিলনা। নামাযের সাথে সংশ্লিষ্ট যত দুআ আছে, তার সবগুলোই নামাযের ভিতরে পড়েছেন এবং ভিতরে পড়ার আদেশ দিয়েছেন। নামাযে যেহেত মুসল্লী আল্লাহর দিকেই মনোনিবেশকারী হয়, তাই মুসাল্লীর উচিৎ নামাযের ভিতরেই দুআ করা। সালাম ফিরানোর পর পরই এই অবস্থার অবসান হয়। ইবনুল কাইয়্যিমের কথা এখানেই শেষ।

জুমআর নামাযের পর, দুই ঈদের নামাযের পর হাত তুলে সম্মিলিত মুনাজাত বৈধ নয়। কেননা রাসূল (সাঃ) এবং সাহাবীদের থেকে এসব ক্ষেত্রে সম্মিলিত দুআ করার কথা বর্ণিত হয়নি। 

সুতরাং নামাযের ভিতরে দুআ করাই দুআ কবুল হওয়ার অধিক আশা করা যায়। ফরয নামাযের পর যে সমস্ত মাসনুন দুআ বর্ণিত হয়েছে, তা পাঠ করা বাঞ্চনীয়। ফরয নামায শেষে মাসনুন দুআগুলো পাঠ করার পর একাকী দুই হাত তুলে দুআ করা হলে কোন অসুবিধা নেই। (আল্লাহই ভাল জানেন)

উত্তর দিয়েছেনঃ আবদুল্লাহ শাহেদ আল-মাদানী / 2014-01-07



Fatal error: Cannot redeclare EPCNTR_Go_Error() (previously declared in /home4/hadithbd/public_html/counter/counter.php:614) in /home4/hadithbd/public_html/counter/counter.php on line 637