Donate Now
কীবোর্ড সিলেক্টরঃ ফনেটিক বিজয় ইউনিজয়   ইংরেজী
হাদিস প্রশ্নোত্তর/দু'আ/গ্রন্থ প্রশ্নোত্তর (বাংলা হাদিস) গুগল হুবুহু সার্চ
 
 
Donate Now!

প্রশ্ন করেছেনঃ Wasif Md shadmanul karim | তারিখঃ 2014-01-29

প্রশ্ন নম্বরঃ
163

১।একজন শাধারন মানুশ কি আরেকজন মানুশকে হাদিস বলতে পারবে যেখানে তার পুর হাদিস তি মনে নেই অথবা আঙ্কশিক মনে আছে অথবা হাদিস বরননাকারির  নাম মনে নেই কিন্তু হাদিস মনে আছে । এভাবে কি হাদিস বলা যাবে?

২।দুই রাকাত নামাজে প্রথম রাকাতে সুরাহ ফাতেহার সাথে সুরাহ ফালাক পরলে দিতিও রাকাতে সুরাহ কাফিরুন পরা জাবেকি? প্রথম রাকআতে ছোট সুরাহ পরলে দিতিও রাকাতে বড়  সুরাহ পরা জাবে?

উত্তরঃ

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।
১। একজন সাধারন মানুষ হাদিস বর্ণনা করতে পারবে তবে শর্ত হচ্ছে হাদিসের মূল বক্তব্য সম্পর্কে তার স্পষ্ট জানা থাকতে হবে নতুবা সমস্যার সৃষ্টি হবে। আর বর্ণনাকারীর নাম না বলতে পারলেও সমস্যা নেই বলেই আমরা মনে করি কেননা একজন সাধারণ মানুষের জন্য হাদিসের মূল বক্তব্য বেশী জরুরী আর এটাও জরুরী যে উক্ত হাদিসের মান কি (অর্থাৎ সহিহ, হাসান, যঈফ, জাল ইত্যাদি) এবং কোন গ্রন্থে আছে এটা জানা আবশ্যক নতুবা দেখা যাচ্ছে যে যঈফ বা জাল হাদিস উক্ত ব্যাক্তি বর্ণনা করছে সহিহ মনে করে আর এতে সমাজে নতুন ধরনের সমস্যার উদ্ভব হবে। তাই হাদিস বর্ণনা করার ক্ষেত্রে খুবই সাবধানতা অবলম্বন করা জরুরী।

২। প্রথম রাকাতে ছোট সুরা আর দ্বিতীয় রাকাতে বড় সুরা দিয়ে পড়লে নামায হয়ে যাবে তবে এটা উচিৎ নয় বরং প্রথম রাকাতে বড় সুরা পড়বে এবং দ্বিতীয় রাকাতে ছোট সুরা পড়বে। আরও দেখতে পারেন প্রশ্ন নম্বরঃ ১৩২ এর উত্তর, লিঙ্ক এখানে।

আর আল্লাহ্‌ই ভালো জানেন সব বিষয়ে।

উত্তর দিয়েছেনঃ এ্যাডমিন , বাংলা হাদিস / 2014-02-05



Fatal error: Cannot redeclare EPCNTR_Go_Error() (previously declared in /home4/hadithbd/public_html/counter/counter.php:614) in /home4/hadithbd/public_html/counter/counter.php on line 637