Donate Now
কীবোর্ড সিলেক্টরঃ ফনেটিক বিজয় ইউনিজয়   ইংরেজী
হাদিস প্রশ্নোত্তর/দু'আ/গ্রন্থ প্রশ্নোত্তর (বাংলা হাদিস) গুগল হুবুহু সার্চ
 
 
Donate Now!

প্রশ্ন করেছেনঃ Feroja easmin | তারিখঃ 2014-01-04

প্রশ্ন নম্বরঃ
12

1.Sothik time e namaj na porle ki ki gonah hobe ?

2.meyeder pordar sothik niyom somporke .

উত্তরঃ

বিসমিল্লাহ ওয়াস-সালাতু ওয়াস-সালামু আলা রসূলিল্লাহ ওয়া বা'দ।

১)

সঠিক সময়ে নামাজ আদায় না করা মূলত মুনাফিক্বদের বৈশিষ্ট। ত্রা তাদের সালাত সম্পর্কে গাফিল হয়ে যায়। আল্লাহ তা'আলা তাদের সম্পর্কে বলেছেন,

فَوَيْلٌ لِّلْمُصَلِّينَ الَّذِينَ هُمْ عَن صَلَاتِهِمْ سَاهُونَ

ঐ সমস্ত নামাজীদের জন্য ওয়াইল, যারা নিজেদের নামাজের ব্যাপারে উদাসীন [আল-মাউনঃ ৪-৫]

আর ওয়াইল হচ্ছে জাহান্নামের একটা উপত্যকা।

আল্লাহ তাআলা আরো বলেছেন,

فَخَلَفَ مِنْ بَعْدِهِمْ خَلْفٌ أَضَاعُوا الصَّلاةَ وَاتَّبَعُوا الشَّهَوَاتِ فَسَوْفَ يَلْقَوْنَ غَيًّا

এরপর তাদের পরে আসল এমন প্রজন্ম যারা নামাজ বিনষ্ট করল এবং নিজেদের কামনা বাসনার অনুসরণ করল। শীঘ্রই তারা গাইয়া প্রত্যক্ষ করবে।

"গাইয়া" হচ্ছে জাহান্নামের একটা উপত্যকা, যা অত্যন্ত গভীর ও যার খাবার আবর্জনাময় । [ইবন কাসীর, আব্দুল্লাহ ইবন মাসঊদ থেকে]  আবূ ইয়াদ বলেছেন গাইয়া হচ্ছে রক্ত ও পুজে ভরা জাহান্নামের একটা উপত্যকা। [ইবন কাসীর]।

এছাড়াও সঠিক সময়ে সালাত আদায় না করা কবরের আজাবের একটা কারণ।

২)

পর্দার ব্যাপারে আল্লাহ তা'আলা নারীদেরকে নির্দেশ দিয়েছেন এইভাবে।

وَقُل لِّلْمُؤْمِنَاتِ يَغْضُضْنَ مِنْ أَبْصَارِ‌هِنَّ وَيَحْفَظْنَ فُرُ‌وجَهُنَّ وَلَا يُبْدِينَ زِينَتَهُنَّ إِلَّا مَا ظَهَرَ‌ مِنْهَا ۖ وَلْيَضْرِ‌بْنَ بِخُمُرِ‌هِنَّ عَلَىٰ جُيُوبِهِنَّ ۖ وَلَا يُبْدِينَ زِينَتَهُنَّ إِلَّا لِبُعُولَتِهِنَّ أَوْ آبَائِهِنَّ أَوْ آبَاءِ بُعُولَتِهِنَّ أَوْ أَبْنَائِهِنَّ أَوْ أَبْنَاءِ بُعُولَتِهِنَّ أَوْ إِخْوَانِهِنَّ أَوْ بَنِي إِخْوَانِهِنَّ أَوْ بَنِي أَخَوَاتِهِنَّ أَوْ نِسَائِهِنَّ أَوْ مَا مَلَكَتْ أَيْمَانُهُنَّ أَوِ التَّابِعِينَ غَيْرِ‌ أُولِي الْإِرْ‌بَةِ مِنَ الرِّ‌جَالِ أَوِ الطِّفْلِ الَّذِينَ لَمْ يَظْهَرُ‌وا عَلَىٰ عَوْرَ‌اتِ النِّسَاءِ ۖ وَلَا يَضْرِ‌بْنَ بِأَرْ‌جُلِهِنَّ لِيُعْلَمَ مَا يُخْفِينَ مِن زِينَتِهِنَّ

"ঈমানদার নারীদেরকে বলুন, তারা যেন তাদের দৃষ্টিকে নত রাখে এবং তাদের যৌন অঙ্গের হেফাযত করে। তারা যেন যা সাধারণতঃ প্রকাশমান, তা ছাড়া তাদের সৌন্দর্য প্রদর্শন না করে এবং তারা যেন তাদের মাথার ওড়না বক্ষ দেশে ফেলে রাখে এবং তারা যেন তাদের স্বামী, পিতা, শ্বশুর, পুত্র, স্বামীর পুত্র, ভ্রাতা, ভ্রাতুস্পুত্র, ভগ্নিপুত্র, স্ত্রীলোক অধিকারভুক্ত বাঁদী, যৌনকামনামুক্ত পুরুষ, ও বালক, যারা নারীদের গোপন অঙ্গ সম্পর্কে অজ্ঞ, তাদের ব্যতীত কারো আছে তাদের সৌন্দর্য প্রকাশ না করে, তারা যেন তাদের গোপন সাজ-সজ্জা প্রকাশ করার জন্য জোরে পদচারণা না করে। " [২৪ঃ ৩১]

অন্য জায়গায় আল্লাহ তা'আলা বলেছেন,

يَا أَيُّهَا النَّبِيُّ قُل لِّأَزْوَاجِكَ وَبَنَاتِكَ وَنِسَاءِ الْمُؤْمِنِينَ يُدْنِينَ عَلَيْهِنَّ مِن جَلَابِيبِهِنَّ ۚ ذَٰلِكَ أَدْنَىٰ أَن يُعْرَ‌فْنَ فَلَا يُؤْذَيْنَ ۗ وَكَانَ اللَّـهُ غَفُورً‌ا رَّ‌حِيمًا

"হে প্রিয় নবী! তোমার স্ত্রীগণকে ও কন্যাদের ও মুমিন-লোকের স্ত্রীলোকদের বলো যে তারা যেন তাদের জিলবাব থেকে তাদের উপরে টেনে রাখে। এটিই বেশী ভাল হয় যেন তাদের চেনা যায়, তাহলে তাদের উত্ত্যক্ত করা হবে না। আর আল্লাহ্ পরিত্রাণকারী, অফুরন্ত ফলদাতা।" [৩৩ঃ৫৯]

এই দুই আয়াত থেকে পর্দার হুকুম প্রমাণিত হয়। এ থেকে যা প্রমাণিত হয় তা হলঃ 

  1. নারীরা তাদের গায়র-মাহরাম [যাদের সাথে বিবাহ জায়েজ] পুরুষদের সাথে পর্দা করবে।
  2. নিজেদের শরীরের সব কিছু ঢেকে রাখবে। নিজেদের সৌন্দর্য এদের সামনে প্রকাশ করবে না।
  3. নিজেদের সাধারণ পরিধেয় কাপড়ের অতিরিক্ত একটা চাদর [জিলবাব/বোরক্বা] পরিধান করবে যখন বাইরে যাবে।
  4. ছিনালীপনা করবে না।

ঢেকে রাখার ব্যাপারে উলামাদের দু'ধরণের মত পাওয়া যায়ঃ

  1. নারীরা তাদের সমস্ত শরীর [হাত ও মুখমণ্ডলসহ] ঢেকে রাখবে গায়র-মাহরাম পুরুষদের সামনে।
  2. নারীরা তাদের মুখমণ্ডল ও হাত [কব্জি পর্যন্ত] ব্যতীত বাক্বী সর্বাঙ্গ ঢেকে রাখবে।

এরপর কথা হচ্ছে তাদের হিজাব/জিলবাব এমন টাইট-ফিটিং হবে না যা দিয়ে শরীরের আকৃতি বুঝা যাবে। তারা সুগন্ধি লাগিয়ে গায়র-মাহরাম পুরুষদের সামনে চলবে না।

ওয়াল্লাহু আ'লামু বিস-সাওয়াব।

উত্তর দিয়েছেনঃ আবূসামীহাহ সিরাজুল ইসলাম / 2014-01-04



Fatal error: Cannot redeclare EPCNTR_Go_Error() (previously declared in /home4/hadithbd/public_html/counter/counter.php:614) in /home4/hadithbd/public_html/counter/counter.php on line 637