Donate Now
কীবোর্ড সিলেক্টরঃ ফনেটিক বিজয় ইউনিজয়   ইংরেজী
হাদিস প্রশ্নোত্তর/দু'আ/গ্রন্থ প্রশ্নোত্তর (বাংলা হাদিস) গুগল হুবুহু সার্চ
 
 
Donate Now!
Google Play

Google App Google Play

প্রশ্নঃ

প্রশ্নঃ  মাযহাব কি । মযহাব মানা িকি ফরয । উত্তর দিয়ে ধন 

উত্তরঃ

বিসমিল্লাহ ওয়াস-সালাতু ওয়াস-সালামু আলা রসূলিল্লাহ্।

মাজহাব মানে হচ্ছে পথ বা পদ্ধতি। কখনো কখনো দীন [ধর্ম] অর্থেও মাজহাব ব্যবহার করা হয়। কুর'আন, সুন্নাহ ও ইজতিহাদের আলোকে শরীয়তের হুকুম বের করার পদ্ধতি হল মাজহাব। শরীয়তের বিভিন্ন বিষয়ে হুকুম আহকাম বের করার জন্য আমাদের উলামাগণ অতীতে গবেষণা করেছেন; তাদের গবেষণার পদ্ধতিকে তাদের নামের ভিত্তিতে পরবর্তীতে তাদের মাজহাব হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। যেমন, হানাফী মাজহাব - ইমাম আবূ হানীফা নুমান ইবন সাবিত এর নামানুসারে, মালিকী মাজহাব - ইমাম মালিক ইবন আনাস এর নামানুসারে, শাফি'ঈ মাজহাব - ইমাম মুহাম্মদ ইবন ইদ্রীস আশ-শাফি'ঈ এর নামানুসারে, হাম্বলী মাজহাব - ইমাম আহমাদ ইবন হাম্বল এর নামানুসারে ইত্যাদি। এসমস্ত ইমামদের ছাত্ররা ও তাদের অনুসারীরা তাদের পদ্ধতিতে ফিক্বহী গবেষণা করে শরীয়তের হুকুম বের করেছেন, যা পরবর্তী কালে তাদের মাজহাব হিসেবে প্রসিদ্ধি লাভ করে।

মাজহাব মানা ফরজ নয়। মুসলিমরা তাদের সমাজে ইসলামের যে সমস্ত হুকুম আহকাম বিশুদ্ধরূপে প্রচলিত আছে তার অনুসরণ করবে। একজন মুসলিম,  যার গবেষণার মাধ্যমে শরীয়তের হুকুম বের করার যোগ্যতা নেই সে অবশ্যই মুসলিমদের আলিমদের অনুসরণ করবে। এ জন্য সে তাদের সমাজে সাধারণভাবে প্রচলিত মাজহাব অনুসরণ করবে। তবে এটাও একজন মুসলিমের জন্য জরূরী যে সে তার দীনের হুকুম আহকামের বিশুদ্ধতা জানার চেষ্টা করবে। এজন্য যখনই সে বিভিন্ন মাসআলায় বিরোধ দেখবে তখন তার উচিৎ হবে হক্ব তালাশ করা এবং আল্লাহর কিতাব ও রসূলুল্লাহর সুন্নতের দিকে ফিরে যাওয়া। আল্লাহ তা'আলা আমাদেরকে আমাদের মধ্যে যারা "উলুল আমর" [রাজনৈতিক ও ধর্মীয় নেতা] তাদের আনুগত্য করতে বলেছেন ততক্ষণ পর্যন্ত যতক্ষণ তাদের আনুগত্য আল্লাহ ও রসূলের আনুগত্যের ভিতরে থাকে। আল্লাহ তা'আলা বলেছেনঃ 

يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آمَنُوا أَطِيعُوا اللَّـهَ وَأَطِيعُوا الرَّ‌سُولَ وَأُولِي الْأَمْرِ‌ مِنكُمْ ۖ فَإِن تَنَازَعْتُمْ فِي شَيْءٍ فَرُ‌دُّوهُ إِلَى اللَّـهِ وَالرَّ‌سُولِ إِن كُنتُمْ تُؤْمِنُونَ بِاللَّـهِ وَالْيَوْمِ الْآخِرِ‌ ۚ ذَٰلِكَ خَيْرٌ‌ وَأَحْسَنُ تَأْوِيلً

হে ঈমানদারগণ! আল্লাহর নির্দেশ মান্য কর, নির্দেশ মান্য কর রসূলের এবং তোমাদের মধ্যে যারা উলুল আমর তাদের। তারপর যদি তোমরা কোন বিষয়ে মতবিরোধে প্রবৃত্ত হয়ে পড়, তাহলে তা আল্লাহ ও তাঁর রসূলের প্রতি ফিরিয়ে দাও - যদি তোমরা আল্লাহ ও কেয়ামত দিবসের উপর বিশ্বাসী হয়ে থাক। আর এটাই কল্যাণকর এবং পরিণতির দিক দিয়ে উত্তম। [৪ঃ ৫৯]

জাযাকুমুল্লাহু খায়রা ।

 
Type the characters you see in the picture below.